বিকাল বেলার পাখি হয়ে সিডনিতে উড়লেন জনি

বিকাল বেলার পাখি হয়ে সিডনিতে উড়লেন জনি
Vinkmag ad

আজ সিডনির আকাশে সকাল বেলার পাখি হয়ে উড়ছিলেন অজি পেসার স্কট বোলান্ড। তবে উল্টো পথের আক্রমণে হেসে হেসে দিনের সব আলো নিজের করে নিলেন জনি বেয়ারস্টো। হতাশার শুরুর পর বেয়ারস্টো-স্টোকস-উডের ব্যাটিং দাপটে খানিকটা স্বস্তি পেল ইংলিশরা। পড়ন্ত বিকেলে ফুড়ুৎ করে উড়লেন জনি, এ যেন বিকাল বেলার পাখি। দিনের শেষ ওভারে এসে চার মেরে বেয়ারস্টোর ‘লাকি সেভেন’ সেঞ্চুরি পূর্ণ। তাঁর অনবদ্য সেঞ্চুরিতে অ্যাশেজের চতুর্থ টেস্টে লড়ছে ইংল্যান্ড! বেলা শেষ তবে, তবুও যে যেতে হবে দূরে…

সিডনিতে বোলান্ড-কামিন্সদের তোপের মুখ থেকে জনি বেয়ারেস্টোর অপরাজিত ১০৩ এবং স্টোকসের ৬৬ রানের উপর ভর করে ৭ উইকেটে ২৫৮ রান সংগ্রহ করেছে ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে এখনও পিছিয়ে আছে ১৫৮ রানে। জ্যাক লিচকে সাথে নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করবেন সেঞ্চুরিয়ান বেয়ারস্টো।

গতকাল শেষ সময়ে ব্যাট করতে নেমে ৫ ওভারে কোন উইকেট না হারিয়েই দিনের খেলা পার করে ইংলিশরা। দুই ওপেনার হাসিব হামিদ ও জ্যাক ক্রাউলি আজ বিদায় নেন সকালের শুরুতেই।

ইংলিশদের ব্যাটিং লাইন-আপে প্রথম আঘাত হানেন মিচেল স্টার্ক। ব্যক্তিগত ৬ রানে বিদায় নেন হাসিব হামিদ। স্কট বোলান্ডের শিকার হওয়ার আগে ক্রাউলির ব্যাট থেকে আসে ১৮ রান । এরপর অধিনায়ক জো রুট ডাক মেরে বোলান্ডের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন। উইকেটে বেশি সময় টিকতে পারেননি ডেভিড মালানও (৩)। ৩৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে চরম বিপাকে পড়ে সফরকারী দল।

এরপর প্রতিরোধ গড়েন জনি বেয়ারস্টো এবং বেন স্টোকস। ১২৮ রানের জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেন। তবে ৬৬ রানের ইনিংসে স্টোকসকে বিদায় করেন নাথান লায়ন। প্যাট কামিন্সের তোপের সামনে পড়েন বাটলার; প্যাভিলিয়নে ফেরেন শূন্য হাতে।

এরমাঝেই ফিফটি হাঁকিয়ে নেন বেয়ারস্টো। তাঁকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন মার্ক উড। খেলতে থাকেন ওয়ানডে মেজাজে। কামিন্সের ওভারে পরপর দুই বলে দুই ছক্কাও হাঁকিয়েছেন। তবে বেয়ারস্টো-উডের ৭২ রানের জুটি ভেঙ্গে দেন কামিন্স। সাজঘরে ফেরার আগে পাল্টা আক্রমণ করে ৪১ বলে ৩৯ রানের চমৎকার কার্যকরী এক ইনিংস খেলেন মার্ক উড।

দিনের শেষ ওভারে এসে চার মেরে বেয়ারস্টোর ‘লাকি সেভেন’ সেঞ্চুরি পূর্ণ। ক্যারিয়ারের ৭ম সেঞ্চুরি তুলে ১০৩ রানে অপরাজিত আছেন এই ব্যাটার। ১৪০ বলের ইনিংসে তিনি ৮টি চার ও ৩টি ছক্কা মেরেছেন জনি। জ্যাক লিচ অপরাজিত রয়েছেন ব্যক্তিগত ৪ রানে।

বল হাতে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন প্যাট কামিন্স ও স্কট বোলান্ড। ১টি করে উইকেট দখল করেন মিচেল স্টার্ক, ক্যামেরুন গ্রিন ও নাথান লায়ন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (৩য় দিন শেষে)

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংসঃ ৪১৬/৮ (১৩৪ ওভারে ইনিংস ঘোষণা), ওয়ার্নার ৩০, হ্যারিস ৩৮, লাবুশেইন ২৮, স্মিথ ৬৭, খাজা ১৩৭, গ্রিন ৫, ক্যারি ১৩, কামিন্স ২৪, স্টার্ক ৩৪*, লায়ন ১৬*; অ্যান্ডারসন ৩০-৯-৫৪-১, ব্রড ২৯-৫-১০১-৫, উড ২৬.১-৬-৭৬-১, রুট ৮-০-৩৬-১

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংসঃ ২৫৮/৭ (৭০ ওভার) হাসিব ৬, ক্রাউলি ১৮, মালান ৩, রুট ০, স্টোকস ৬৬, বেয়ারস্টো ১০৩*, বাটলার ০, উড ৩৯, লিচ ৪*; কামিন্স ২০-৬-৬৮-২, বোলান্ড ১২-৬-২৫-২, স্টার্ক ১৪-২-৪৯-১, লায়ন ১২-০-৭১-১, গ্রিন ৯-৪-২৪-১

প্রথম ইনিংসে এখনও ১৫৮ রানে পিছিয়ে আছে ইংল্যান্ড।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে সাময়িক বিরতি নিলেন নাভিন

Read Next

বাংলাদেশের জয় বিশ্ব ক্রিকেটের জন্য ভালো বলছেন টেইলর

Total
5
Share