দলকে উদ্ধার করে আক্ষেপে পুড়লেন জাকের-তাইবুর

দলকে উদ্ধার করে আক্ষেপে পুড়লেন জাকের-তাইবুর

জাকের আলি অনিক ও তাইবুর রহমানের ব্যাটে খাদের কিনারা থেকে ম্যাচে ফিরেছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) দ্বিতীয় রাউন্ডে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনের বিপক্ষে তারা এখনো অবশ্য পিছিয়ে আছে ২২ রানে।

আগেরদিন ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনকে ২৪৫ রানে অল আউট করে ওয়ালটন দিন শেষ করেছিলো কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪ রান তুলে।

তবে আজ দ্বিতীয় দিন শুরুতেই ফেরেন সমান ২ রান নিয়ে দিন শুরু করা মোহাম্মদ মিঠুন ও মিজানুর রহমান। আগের ম্যাচে দুজনেই হাঁকিয়েছেন সেঞ্চুরি। আজ দিনের প্রথম বলেই মিঠুনকে ফেরান এনামুল হক। পরের ওভারেই মিজানুরকে বিদায় করেন আসাদুজ্জামান পিয়াল। দুজনেই আজ কোনো রান যোগ করতে পারেননি।

মিঠুন-মিজানুরকে হারানোর পর ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের উপর ঝড় বয়ে যায় আরও। দলীয় ৩১ রানেই হারায় ৫ উইকেট, তিন নম্বরে নামা সৌম্য সরকারও থামেন ২ রানে। ১৩ রানের বেশি করতে পারেননি সালমান হোসেন। অধিনায়ক শুভাগত হোম করেন মাত্র ৩ রান।

সেখান থেকে তাইবুর রহমান ও জাকের আলি অনিকের ১৫৩ রানের জুটি। ৯৯ বলে ফিফটি তুলে নেন তাইবুর। ১৯৮ বলে ১১ চারে ৭৬ রান করে তাইবুর আউট হলেই ভাঙে জুটি। এরপর সুবিধা করতে পারেনি আর কেউ।

৯৩ বলে ফিফটি তোলা জাকের আলি হাঁটছিলেন সেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু ৮ম ব্যাটার হিসেবে ফিরেছেন নার্ভাস নাইনটিজে। ১৮০ বলে ১১ চার ৩ ছক্কায় ৯২ রান করা জাকেরকে ফেরান বাঁহাতি স্পিনার তানভীর ইসলাম।

২০৩ রানে ৯ উইকেট হারায় ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। তবে দ্বিতীয় দিনই অলআউট হওয়া থেকে তাদের রক্ষা করে ১০ নম্বর ব্যাটার রবিউল হক ও ১১ নম্বর ব্যাটার আহসান মুরাদ।

দুজনে অবিচ্ছেদ্য আছেন ২০ রানের জুটিতে। ৯ উইকেটে ২২৩ রানে দিন শেষ হয় ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের। ২২ রানে রবিউল হক, ৩ রানে অপরাজিত আছেন হাসান মুরাদ।

ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট আসাদুজ্জামান পিয়ালের। ২ টি করে উইকেট নেন এনামুল হক ও নাইম হাসান ও তানভীর ইসলাম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (২য় দিন শেষে):

ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন ১ম ইনিংসে ২৪৫/১০ (৮৩.৫), ইমরুল ৩২, আশরাফুল ০, দিপু ৭২, শুক্কুর ১৪, ধ্রুব ০, নাদিফ ২৬, প্রীতম ৩০, নাইম ৪০*, এনামুল ১, তানভীর ২০, পায়েল ০; রবিউল ১৬-৭-২৯-২, রনি ২০.৫-৫-৯৩-৫, মুরাদ ২১-৮-৪৭-৩

ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন ১ম ইনিংসে ২২৩/৯ (৮৬.৪), মিজানুর ২, মিঠুন ২, সৌম্য ২, ইমন ১৩, তাইবুর ৭৬, শুভাগত ৩, জাকের ৯২, রনি ০, মৃত্যুঞ্জয় ৮, রবিউল ২২*, মুরাদ ৩*; এনামুল ১৪-১-৫০-২, পায়েল ১৪.৪-৫-৪৮-৩, নাইম ৩১-১১-৭০-২, তানভীর ২১-৪-৪২-২

ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন ২২ রানে পিছিয়ে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মাহমুদউল্লাহর কাছ থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ধারণা নিলেন রাকিবুলরা

Read Next

নাসুমের ‘৬’, নর্থ জোনকে জবাব দিচ্ছে সাউথ জোন

Total
8
Share