স্টোকসের ‘নো বল বিতর্ক’, হেডের সেঞ্চুরি- গ্যাবায় যেমন গেল ২য় দিন

featured photo updated v 8
Vinkmag ad

অ্যাশেজের প্রথম টেস্টে ওয়ানডে মেজাজে সেঞ্চুরি হাঁকালেন ট্রাভিস হেড, ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরি মিস। গ্যাবা টেস্টের নিয়ন্ত্রণ এখন পুরোপুরি অস্ট্রেলিয়ার হাতে। তবে এসব ছাপিয়ে জন্ম হয়েছে নতুন বিতর্কের। অ্যাশেজে বিকল প্রযুক্তি, নো-বল বিতর্কে বেন স্টোকস।

দ্বিতীয় দিন শেষে ১৯৬ রানের বড় লিড পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্বাগতিকদের এমন সংগ্রহে বড় ভূমিকা রেখেছেন ট্রাভিস হেড, ডেভিড ওয়ার্নার ও মারনাস লাবুশেইন। ১১২ রানে অপরাজিত থেকে দিনের খেলা শেষ করেছেন ট্রাভিস হেড।

গ্যাবায় প্রথম অ্যাশেজ টেস্টের প্রথম দিনে সফরকারীদের ১৪৭ রানে গুটিয়ে দেয় অস্ট্রেলিয়া। অধিনায়ক প্যাট কামিন্স একাই পাঁচ উইকেট দখলে নিয়ে ভেঙ্গে দেন ইংলিশদের ব্যাটিং লাইন। বৃষ্টির বাগড়া ও ভেজা আউটফিল্ডের কারণে ব্যাটিংয়ে নামতে পারেনি স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া।

আজ দ্বিতীয় দিন ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ওপেনার মার্কাস হ্যারিসের উইকেট হারায় অজিরা। ওলি রবিনসনের বলে ক্যাচ তুলে ফেরার আগে হ্যারিসের ব্যাট থেকে আসে কেবল ৩ রান। এরপর ডেভিড ওয়ার্নার আর মারনাস লাবুশেইনের জুটিতে জমে ওঠে লড়াই।

তবে প্রথম সেশনেই ১৪টি নো বল করে বিতর্কের জন্ম দিলেন ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। ৫ ওভারে স্টোকসের ১৪টি নো বল! তারচেয়েও অবিশ্বাস্য বিষয় হলো ১৪ নো বলের মাত্র ২ টি নো বল দেন  আম্পায়ারা। মূলত গ্যাবা টেস্টে নো-বল শনাক্তকরণ প্রযুক্তি কাজ না করায় ঘটে এই বিপত্তি।

লাঞ্চ বিরতির আগেই ফিফটি তুলে নেন মারনাস লাবুশেইন। আর লাঞ্চ থেকে ফিরে এসেই অর্ধশত হাঁকান ডেভিড ওয়ার্নার। এরপর জ্যাক লিচ এনে দেন ইংল্যান্ডকে ব্রেকথ্রু। ৭৪ রানের ইনিংসে ফেরেন মারনাস লাবুশেইন। ভাঙ্গে ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে গড়া ১৫৫ রানের জুটি। ইনিংস বড় করতে পারেননি স্টিভ স্মিথ। মার্ক উডের শিকার হয়ে ফেরার আগে তাঁর ব্যাট থেকে আসে ১২ রান।

ডেভিড ওয়ার্নার হাঁটছিলেন সেঞ্চুরির পথেই। কিন্তু হলো না। তীরে গিয়ে তরী ডুবলো! ৯৪ রানে আউট হয়েছেন ওয়ার্নার। রবিনসনের স্লোয়ারে পরাস্ত হয়ে স্টোকসের হাতে ক্যাচ তুলে দেন। ওয়ার্নারের ৯৪ রানের ইনিংস সাজানো ১১টি চার ও ২টি ছয়ের সাহায্যে। স্টোকসের নো বলেই আউট হয়ে ফিরতে হয়ে ওয়ার্নারকে।

ডাক মারেন ক্যামেরুন গ্রিন। পরপর দুই বলে উইকেট তুলে নেন ওলি রবিনসন। ম্যাচে ফেরার আভাস দিল ইংল্যান্ড। অভিষেক রাঙাতে পারলেন না অ্যালেক্স ক্যারি (১২)। অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের ব্যাট থেকেও আসে সমান ১২ রান।

অন্যপ্রান্তে উইকেট হারালেও নিজের পথে অবিচল ছিলেন ট্রাভিস হেড। ইনিংসের শুরু থেকেই আগ্রাসী ব্যাটিং করে গেছেন। ওয়ানডে মেজাজে ব্যাট করে মাত্র ৮৫ বলেই সেঞ্চুরি তুলে নেন হেড। অ্যাশেজে এটি যৌথভাবে তৃতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি।

৭ উইকেটে ৩৪৩ রান সংগ্রহ করে দিন শেষ করেছে অস্ট্রেলিয়া। এরমধ্যেই অজিরা পেল ১৯৬ রানের বড় লিড। হাতে আরও ৩ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (দ্বিতীয় দিন শেষে)

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংসঃ ১৪৭/১০ (৫০.১ ওভার) বার্নস ০, হামিদ ২৫, মালান ৬, রুট ০, স্টোকস ৫, পোপ ৩৫, বাটলার ৩৯, ওকস ২১, রবিনসন ০, উড ৮, লিচ ২*; স্টার্ক ১২-২-৩৫-২, হ্যাজেলউড ১৩-৪-৪২-২, কামিন্স ১৩.১-৩-৩৮-৫, গ্রিন ৩-১-৬-১

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংসঃ ৩৪৩/৭ (৮৪ ওভার) হ্যারিস ৩, ওয়ার্নার ৯৪, লাবুশেইন ৭৪, স্মিথ ১২, হেড ১১২* গ্রিন ০, ক্যারি ১২, কামিন্স ১২, স্টার্ক ১০*;

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কাতারে নেদারল্যান্ডসকে আতিথ্য দেবে আফগানিস্তান

Read Next

মাঠে ফেরার পর ওয়ার্ক লোড ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্ত নিবেন শফিউল

Total
1
Share