লম্বা বৃষ্টি বিরতির পর কাটল পেসারদের উইকেট খরা

লম্বা বৃষ্টি বিরতির পর কাটল পেসারদের উইকেট খরা
Vinkmag ad

চলমান ঢাকা টেস্টের প্রথম ৩ দিন শেষে আক্ষেপের নাম ছিল বাংলাদেশের ফাস্ট বোলাররা। বৃষ্টিতে প্রথম ৩ দিনের বেশিরভাগ ভেসে যায়, খেলা হয়েছিল ৬৩.২ ওভার। সেখানে বলার মত কোন পার্থক্য তৈরি করতে পারেননি এবাদত হোসেন ও খালেদ আহমেদ।

চতুর্থ দিনে এসে অবশ্য দুজনেই একাদশে থাকার স্বার্থকতা প্রমাণ করেছেন কিছুটা হলেও। ফিফটি করা দুই ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফিরেছে পেসারদের কল্যাণে।

আগের দিনের পুরোটাই যায় বৃষ্টির পেটে। আজও খেলা শুরু হয় নির্ধারিত সময়ের ১ ঘন্টা ২০ মিনিট পর। নতুন দিনে অবশ্য খালেদ-এবাদতের সামনে সাবলীল ছিলেন না আজহার আলি ও বাবর আজম।

মাত্র ৪ রান যোগ করে দিনের দ্বিতীয় ওভারেই ফেরেন আজহার আলি। এবাদত হোসেনের বলে পুল করতে যেয়ে টাইমিংয়ে গড়বড়। সহজ ক্যাচ লুফে নেন লিটন দাস। ১৪৪ বলে ৮ চারে ৫৬ রান করে থামতে হয় আজহারকে।

বেশিক্ষণ টেকেননি বাবর আজমও। এদিন আর মাত্র ৫ রান যোগ করেন বাবর। টেস্ট ক্রিকেটে খালেদ আহমেদ প্রথম উইকেটের দেখা পান বাবরকে ফিরিয়েই। কিছু নিচু হয়ে ভেতরে ঢোকা বল আঘাত হানে বাবরের প্যাডে, আম্পায়ার আঙুল তুলতে সময় নেননি। পাকিস্তান দলপতি রিভিউ নিলেও তা তাকে বাচাতে পারেনি। ১২৬ বলে ৯ চার ও ১ ছয়ে ৭৬ রান করেন বাবর।

ফাওয়াদ আলমের উইকেটও যেতে পারত পেসারের পকেটে। তবে ফাওয়াদের ব্যাটে ছুয়ে বল লিটন দাসের গ্লাভসে জমা পড়লেও আপিলই করেনি বাংলাদেশ দল। এবাদতের বলে আম্পায়ার মোহাম্মদ রিজওয়ানকে আউট ঘোষণা করলে রিভিউ নিয়ে বাচেন রিজওয়ান। পরবর্তীতে তাইজুল ইসলামের বলেও রিজওয়ানকে আরেক দফা বাচিয়ে দেয় প্রযুক্তি।

লাঞ্চ বিরতির আগে আর কোন বিপদ ঘটতে দেননি ফাওয়াদ আলম ও মোহাম্মদ রিজওয়ান। অপরাজিত থেকেই মাঠ ছেড়েছেন তারা। ৪৮ বলে ২৬ রান করে রিজওয়ান, ৪৯ বলে ১৯ রান করে অপরাজিত ফাওয়াদ। স্কোরবোর্ডে পাকিস্তানের রান ২৪২ (৪ উইকেট হারিয়ে)।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৪র্থ দিন ১ম সেশন শেষে):

পাকিস্তান ১ম ইনিংসে ২৪২/৪ (৮৩), আবিদ ৩৯, শফিক ২৫, আজহার ৫৬, বাবর ৭৬, ফাওয়াদ ১৯*, রিজওয়ান ২৬*; তাইজুল ২১-৬-৫৮-২, খালেদ ১৫-৫-৪০-১, এবাদত ২০-৩-৭৯-১।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

আইরিশদের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের সূচি ঘোষণা

Read Next

মিচেল স্টার্কের হয়ে ব্যাট করলেন স্টিভ স্মিথ

Total
1
Share