সেঞ্চুরি হাঁকানো লিটনের দুশ্চিন্তার কারণ ‘ক্রাম্প’

সেঞ্চুরি হাঁকানো লিটনের দুশ্চিন্তার কারণ ‘ক্রাম্প’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ব্যর্থতা পেছনে ফেলে টেস্ট ফরম্যাটে ফিরতেই হেসেছে লিটন দাসের ব্যাট। দলের প্রয়োজনে চট্টগ্রাম টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছেন দুর্দান্ত এক ইনিংস। তবে আজ (২৬ নভেম্বর) ক্যারিয়ারের প্রথম শতক হাঁকানোর দিনে তাকে ভুগিয়েছে পেশির টান (ক্রাম্প)। তাকে নিয়ে দুশ্চিন্তা আছে জানিয়েছেন ব্যাটিং পরামর্শক অ্যাশওয়েল প্রিন্স।

চলতি বছর টি-টোয়েন্টিতে হতশ্রী পারফরম্যান্স লিটনের ব্যাটে। ১৭ ম্যাচে ১৩ গড়ে রান করেছেন মাত্র ২০৮, স্ট্রাইক রেট ১০০ এর নিচে। বিশেষ করে বিশ্বকাপে ব্যর্থ হওয়ার পরই সমালোচনার মুখে পড়েন।

অন্যদিকে টেস্ট ফরম্যাটে চলতি বছর দারুণ সময় পার করেছেন লিটন। চলতি চট্টগ্রাম টেস্টের আগে ৮ ইনিংসে প্রায় ৫০ (৪৬.২৫) গড়ে ৩৭০ রান করেন। আর আজ সাম্প্রতিক টি-টোয়েন্টি ফর্মের জন্য সমালোচনার বোঝা মাথায় নিয়েও হাঁকালেন সেঞ্চুরি।

৪৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে দল যখন ধুঁকছিল তখন ক্রিজে আসেন এই উইকেট রক্ষক ব্যাটার। টানা দুই সেশন পাকিস্তানি বোলারদের দুঃস্বপ্ন উপহার দেন, রাখেন উইকেট শূন্য। মুশফিকুর রহিমের সাথে অবিচ্ছেদ্য ২০৪ রানের জুটিতে গড়েন রেকর্ডও। এখনো পর্যন্ত চট্টগ্রামে ৫ম উইকেট জুটিতে এটিই সর্বোচ্চ রান।

২২৫ বলে ১১ চার ১ ছক্কায় লিটনের ব্যাটে অপরাজিত ১১৩ রান। যেখানে মুশফিক অপরাজিত আছেন ১৯০ বলে ৮২ রানে। বাংলাদেশ দিন শেষ করেছে ৪ উইকেটে ২৪৩ রান তুলে।

দলকে শক্ত অবস্থানে পৌঁছে দেওয়ার পথে লিটন অবশ্য ব্যাট করেছেন চোট নিয়ে। ক্রাম্পের চোটে অস্বস্তিতে কেটেছে তার বেশিরভাগ সময়। এমনকি মাঠে কয়েকবার ডেকে আনতে হয় ফিজিওকে।

দিন শেষে ব্যাটিং পরামর্শক অ্যাশওয়েল প্রিন্স সংবাদ সম্মেলনে তার চোটের আপডেট দিতে গিয়ে বলেন, ‘ছেলেরা দারুণ দৃঢ়তা দেখিয়েছে। মুশফিক শুরুতে অনেক ধৈর্য দেখিয়েছে। সে অভিজ্ঞ একজন খেলোয়াড়। অনেক কম অভিজ্ঞ বা তরুণ খেলোয়াড় এই পরিস্থিতিতে ঘাবড়ে যেত। অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছে। শান্ত থেকে লিটনও দারুণ করেছে।’

‘ক্র্যাম্পের পর লিটন চাচ্ছিল দিনের খেলা শেষ হওয়া পর্যন্ত যেন উইকেটে থাকতে পারে। বরফ লাগানো হচ্ছে। আজ রাতে শুশ্রূষা করা হবে। আশা করছি কাল আবারও ওরা ব্যাট করতে নামবে।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যর্থ হওয়ার পরেও শিষ্য লিটনকে কিছু বলেননি প্রিন্স। বরং অনুপ্রেরণা দিয়ে তৈরি করেছে টেস্ট সিরিজের জন্য। তবে এখনো তার চোট নিয়ে চিন্তিত প্রিন্স।

তিনি বলেন, ‘সবাই অনেক খুশি ছিল। বিশ্বকাপে ব্যর্থতার সময় আমি তাকে কিছু বলিনি। এখানে আগেভাগে এসে টেস্টের জন্য তৈরি হয়েছে। দুই-একটি টেকনিক্যাল জিনিস নিয়ে কাজ করেছে। ক্রিজে দারুণ ভারসাম্য দেখিয়েছে। এত স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাট করেছে, এটা দেখা অনেক উপভোগ্য ছিল। দিনশেষে ক্র্যাম্পটা দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াল।’

চট্টগ্রাম থেকে, ক্রিকেট৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

লিটন-মুশফিককে প্রশংসায় ভাসালেন হাসান আলি

Read Next

লিটন ইস্যুতে কড়া ভাষায় জবাব দিলেন প্রিন্স

Total
24
Share