সার্জারির জন্য ভারতে গেলেন যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের পেসার অভিষেক দাস

অভিষেক দাস

যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের বেশিরভাগ সদস্যই নিজেদের অবস্থান পোক্ত করার পথে আছেন। শরিফুল ইসলাম, শামীম হোসেনের ইতোমধ্যে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেকও হয়েছে। অভিষেক না হলেও দলে ডাক পড়ে আকবর আলি, পারভেজ হোসেন ইমনদেরও। চট্টগ্রাম টেস্ট দিয়ে অভিষেক হতে পারে মাহমুদুল হাসান জয়েরও। তবে পেসার অভিষেক দাস অরণ্য লড়ছেন অন্য যুদ্ধে। চোটের কারণে লক্ষ্যের পথেই হাঁটতে পারেননি, যেতে হচ্ছে চিকিৎসকের ছুরি, কাঁচির নিচেও।

ভারত যুব দলের বিপক্ষে সর্বশেষ যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে বাংলাদেশ যুব দলের হয়ে সেরা বোলিংটাই করেছেন অভিষেক দাস। ভারত যুবাদের ১৭৭ রানে আটোকে দেওয়ার পথে ডানহাতি এই পেসার নিয়েছেন ৪০ রানে ৩ উইকেট। যা ৩ উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নিয়ে শিরোপা ঘরে তোলে টাইগার যুবারা।

যুব বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে দুই বছর পেরোতে চলল। কিন্তু অভিষেক যেনো ঠিকঠাক পথের দেখা পাননি চোটে জর্জরিত হয়ে। পিঠের চোটে ভুগছেন লম্বা সময় ধরে। তার বাকী সতীর্থরা সিনিয়র পর্যায়ের ক্রিকেটে নিয়মিত হয়ে গেলেও কেবল ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) ওল্ড ডিওএইচএসের হয়ে একটি ম্যাচই খেলতে পেরেছেন। ঐ ম্যাচেও নিয়েছেন ৩ উইকেট।

কিন্তু এরপর প্রায় ২ বছর হতে চলল স্বীকৃত কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ মেলেনি অভিষেকের। ভোগাচ্ছিলো পিঠের চোট। বিসিবির অধীনে পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় থেকে ফল মেলেনি। সার্জারি করাতে এবার তাকে ভারত পাঠালো বিসিবি। ২৪ নভেম্বর ভারতের উদ্দেশে রওয়ানা করেন অভিষেক। যদিও প্রাথমিকভাবে দুবাই নেওয়ার সিদ্ধান্ত হলেও সেটিও সম্ভব হয়নি কোভিড পরিস্থিতির কারণে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

রাব্বির মতো তার পরিবারও গুনছেন অপেক্ষার প্রহর

Read Next

সাগরিকা এনে দিবে কি এক টুকরো স্বস্তি?

Total
0
Share