মুস্তাফিজ ভক্ত রাসেল পরিকল্পনা করেই এদিন মাঠে ঢুকেছিল

মুস্তাফিজ ভক্ত রাসেল পরিকল্পনা করেই এদিন মাঠে ঢুকেছিল

আজও মাঠে ঢুকে পড়েছে দর্শক। মিরপুরে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচে দেখা গিয়েছে এই দৃশ্য। মুস্তাফিজুর রহমানের কাছে পৌঁছে সিজদা দেওয়ার মতো অঙ্গভঙ্গিমা দেখিয়েছে এই দর্শক। নিরাপত্তা কর্মীরা দ্রুত তাঁকে মাঠ থেকে বাইরে নিয়ে যায়। তাঁর বর্তমান অবস্থান মিরপুর মডেল থানায়। আইনগতভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে সেই দর্শক রাসেলের বিরুদ্ধে।

বাংলাদেশের করা ১০৮ রানের জবাবে ব্যাট করছে পাকিস্তান। ইনিংসের ১৪তম ওভারের প্রথম বল করার পরপরই নর্দান গ্যালারি থেকে হুট করে এক দর্শক ঢুকে পড়ল মাঠে। কয়েকজন সিকিউরিটি তাঁকে আটকানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। প্রায় ৪-৫ জন সিকিউরিটিকে ফাঁকি দিয়ে সে ঠিকই পৌঁছে যায় বোলিং প্রান্তে থাকা মুস্তাফিজের কাছে।

পরে জানা গেল এই দর্শকের পুরো ঠিকানা। নাম তাঁর মোহাম্মদ রাসেল। ১৮ বছর বয়সী কিশোরের বাড়ি কুমিল্লায়। অধ্যয়নরত আছেন ঢাকা মিশন ইন্টারন্যাশনাল কলেজে।

খেলা চলার সময় বারবার এভাবে দর্শক ঢুকে পড়ায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। মাঠে দর্শক ঢোকার প্রসঙ্গে মিরপুর জোনের পেট্রোল ইনেসপেক্টর মোহাম্মদ মাহফুজুল হক বকশি বলেন,

‘আমাদের সিকিউরিটি লেবেল তো আসলে ভালোই ছিল। জৈব সুরক্ষা বলয়ের কারণে আমাদের যেখানে যেখানে প্রবেশ করা সম্ভব আমরা সব জায়গায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছি। ও মূলত টিকিট কেটেই ঢুকেছিল। ওর পরিকল্পনাই ছিল। ও মুস্তাফিজুর রহমানের পাগল ফ্যান। তো পরিকল্পনা করেই ঢুকেছিল। টিকিট কেটে তার জায়গাতেই ঢুকেছিল, হঠাত করে এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে।’

‘সে মুস্তাফিজের জন্য পাগল। সে কোনভাবে মুস্তাফিজের কাছে যেতে চেয়েছিল।’

‘আইনগতভাবে যেটি ঘটার সেটিই ঘটবে। আমরা প্রথম যে কাজটি করেছি, ঘটনা ঘটার পরেই আমরা তাকে হেফাজতে নিয়ে নিয়েছি। আমাদের ডিসি স্যার ছিলেন, উনি সাথে করেই থানায় নিয়ে গেছেন।’

মাঠে দর্শক ঢুকার কারণে খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্য ঝুঁকির বিষয় নিয়ে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন,

‘দর্শক প্রবেশের ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত। তবে খুব বেশি শঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। দর্শক যারা মাঠে প্রবেশ করেছেন, সবারই টিকা ডাবল জোজ নেওয়া আছে। সেটি তো পরীক্ষা করেই ভেতরে ঢোকানো হচ্ছে। তবুও মুস্তাফিজ যেহেতু সংস্পর্শে গেছে, তাকে মাঠ থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে নিরাপত্তার কথা ভেবে।’

‘তবে এটাকে আমরা ক্লোজ কন্টাক্ট বলছি না। কারণ মুস্তাফিজ খুব বেশি ক্লোজ ছিল না। তবুও আমরা যথেষ্ট সতর্ক। মুস্তাফিজকে টেস্ট করানো হবে। আইসিসির প্রটোকল অফিসার আছেন, তারা সিদ্ধান্ত নেবেন। প্রয়োজনে দুই টিমের সকল ক্রিকেটার ও মাঠে উপস্থিত ম্যাচ অফিশিয়ালদের টেস্ট করানো হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মুস্তাফিজের অবস্থা জানা যাবে আগামীকাল

Read Next

ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলতে না পারায় হতাশ শান্ত

Total
21
Share