পাকিস্তান রূপকথার ইতি, ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া

পাকিস্তান রূপকথার ইতি, ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া

প্রথমবারের মত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ে এক ধাপ এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া। রোমাঞ্চকর ২য় সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে তারা। রবিবার নতুন চ্যাম্পিয়ন দেখবে বিশ্ব, মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড।

১৭৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শাহীন শাহ আফ্রিদির আগুনঝরা বোলিংয়ে শুরুতে বিদায় নেন অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। তবে ডেভিড ওয়ার্নার ও মিচেল মার্শের মধ্যকার ৫১ রানের জুটিতে প্রাথমিক বিপর্যয় কাটিয়ে উঠে অস্ট্রেলিয়া।

এরপর শুরু হয় শাদাব খানের ম্যাজিক বোলিং। তার লেগ স্পিনের ঘুর্ণিতে প্রথমে আউট হন মার্শ (২৮)। অল্প রানে স্টিভ স্মিথকে (৫) বিদায় করার পর ওয়ার্নারকেও (৪৯) সাজঘরের পথ দেখান শাদাব। ম্যাক্সওয়েলও মাত্র ৭ রান করে শাদাবের বলে আউট হন। ৯৬ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়া।

তবে মার্কাস স্টয়নিস ও ম্যাথু ওয়েড সব হিসাব নিকাশ পাল্টে দেন। দলের বিপদের মাথায়ও পাকিস্তানি বোলারদের উপর চড়াও হয়ে খেলেন তারা। শাহীন শাহ আফ্রিদির করা ১৯তম ওভারে ওয়েডের ক্যাচ হাসান আলি ফেলে দেন।

পরের তিন বলে তিনটি বিশাল ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জয় এনে দেন ওয়েড। ১ ওভার বাকি থাকতে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় অজিরা। ওয়েড ১৭ বলে ২ চার ও ৪ ছয়ে ৪১ এবং স্টয়নিস ৩১ বলে ২টি করে চার ও ছয়ের মারে ৪০ রানে অপরাজিত থাকেন। এ দুইজন ৮১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন। দানবীয় ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরার পুরস্কার যায় ওয়েডের দখলে।

পাকিস্তানের পক্ষে শাদাব ৪টি ও শাহীন শাহ আফ্রিদি ১টি উইকেট পান।

এর আগে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে বরাবরের মত পাকিস্তানের ওপেনিং জুটি দারুণ ব্যাটিং করে। উদ্বোধনীতে ৭১ রান আসে। ১০ম ওভারের শেষ বলে বাবর আজমকে (৩৯) বিদায় করে অজিদের ১ম ব্রেকথ্রু এনে দেন অ্যাডাম জ্যাম্পা।

এরপর রিজওয়ান ও তিনে নামা ফখর জামান অজি বোলারদের উপর তাণ্ডব চালান। ফখর অবশ্য শুরুতে কিছুটা মন্থর গতিতে ব্যাট করেন। তবে রিজওয়ান ছিলেন সপ্রতিভ। এ দুইজন ৪৪ বলে ৭২ রানের জুটি গড়েন। রিজওয়ান এবারের টুর্নামেন্টে ৩য় হাফসেঞ্চুরির দেখা পান।

৫২ বলে ৩ চার ও ৪ ছয়ে ৬৭ রান করেন রিজওয়ান। তার বিদায়ের পর একাই সামাল দেন ফখর। পাকিস্তান শেষ পর্যন্ত ৪ উইকেটে ১৭২ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে। ফখর ৩২ বলে ৩ চার ও ৪ ছয়ে ৫৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

অজিদের পক্ষে মিচেল স্টার্ক ২টি এবং জ্যাম্পা ও প্যাট কামিন্স ১টি করে উইকেট পান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

পাকিস্তানঃ ১৭৬/৪ (২০), রিজওয়ান ৬৭, বাবর ৩৯, ফখর ৫৫*, আসিফ ০, শোয়েব ১, হাফিজ ১*; স্টার্ক ৪-০-৩৮-২, কামিন্স ৪-০-৩০-১, জ্যাম্পা ৪-০-২২-১

অস্ট্রেলিয়াঃ ১৭৭/৫ (১৯), ওয়ার্নার ৪৯, ফিঞ্চ ০, মার্শ ২৮, স্মিথ ৫, ম্যাক্সওয়েল ৭, স্টয়নিস ৪০*, ওয়েড ৪১*; শাহীন শাহ আফ্রিদি ৪-০-৩৫-১, শাদাব ৪-০-২৬-৪

ফলাফলঃ অস্ট্রেলিয়া ৫ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ ম্যাথু ওয়েড (অস্ট্রেলিয়া)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কোহলির কন্যাকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া ব্যক্তি গ্রেফতার

Read Next

দুই রাত আইসিইউতে কাটানো রিজওয়ান দেখিয়েছেন দলের প্রতি নিবেদন

Total
3
Share