ইয়র্কশায়ারের ঘটনা নাড়া দিয়েছে ইংল্যান্ড ড্রেসিং রুমেও

এউইন মরগান

খেলাধুলার ক্ষেত্রে বর্ণ বাদ নীরব ঘাতক হিসেবে চিহ্নিত। ক্রিকেটেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। ইয়র্কশায়ারের ক্রিকেটার আজিম রফিকের বর্ণ বাদের ঘটনাটি এখন কারো অজানা নয়। এ ঘটনায় তার ক্লাব ইয়র্কশায়ার কারো বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি। তবে এটি বেশ নাড়া দিয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলে। বর্ণবাদের এমন ন্যাক্কারজনক পরিস্থিতি নিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চলাকালেও নিজেদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা চলছে ইংলিশ দলে, এমনটাই জানিয়েছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক এউইন মরগান।

এমন স্ক্যান্ডালের ঘটনায় ইংল্যান্ডের অলরাউন্ডার মইন আলি মোটেও অবাক হননি।

‘আমরা এ ঘটনাকে গুরুতর হিসেবে দেখছি। আমাদের দলের সবার সাথে এ নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে,’ বলেন মরগান। আজ রাতে আবু ধাবিতে প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে মরগানের দল।

মরগানের অধিনায়কত্বে ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ের পাশাপাশি ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে রানার আপ হয়েছিল ইংলিশরা।

‘আমাদের মধ্যে বর্ণ বাদ নিয়ে অনেক কথা হয়, কেননা আমাদের গ্রুপে অনেক ধরণের বৈষম্য দেখা যায়,’ তিনি যোগ করেন।

‘২০১৯ বিশ্বকাপ জয়ের পর আমাদের দলে বড় প্লাটফর্মের পাশাপাশি যোগ্য স্কোয়াড গড়ে উঠেছে। এ নিয়ে বেশ আরামবোধ করি এবং আমাদের জীবনের বিভিন্ন গল্প সহজে বলতে পারি।’

‘যেকোন বর্ণের হোক না কেন, আমরা সবাই একসাথে ক্রিকেট মাঠে সহজে খেলতে পারি এবং আদর্শ রোল মডেল হিসেবেও অন্যরা আমাদের অনুসরণ করতে পারে।’

এ স্ক্যান্ডালের ঘটনায় ইয়র্কশায়ারের অনেক সিনিয়র ব্যক্তিত্ব পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। একইসাথে আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজনের ক্ষেত্রে বরখাস্ত করা হয় ক্লাবটিকে এবং ক্লাবের সাথে অনেক স্পন্সর তাদের স্বত্ব বাতিল করে।

রফিকের সাথে বর্ণ বাদের কিছু ঘটনার সাক্ষী ছিলেন তারই সতীর্থ সাবেক ইংলিশ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার গ্যারি ব্যালেন্স। তিনি এ নিয়ে অনুশোচনা করেছিলেন। তবে এ ব্যাপারটি যে রফিককে মানসিকভাবে এত ক্ষতিগ্রস্ত করবে, তা তিনি বুঝতে পারেননি।

রফিকের সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন ইয়র্কশায়ারের নতুন চেয়ারম্যান লর্ড প্যাটেল। এমন ঘটনা কখনই প্রশ্রয় দেওয়া উচিত না, এমন মন্তব্যও করেন তিনি। এ সাবেক ক্রিকেটারের জন্য ক্লাব আবার নতুন করে ট্রাইবুনাল গঠন করেছে।

রবার্ট হাটনের পদত্যাগের পর গত শুক্রবার ইয়র্কশায়ারের চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত হন ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক সদস্য প্যাটেল।

এদিকে ১৬ বছর বয়সে বর্ণবাদের শিকার হয়েছিলেন ইয়র্কাশায়ারের সাবেক একাডেমি খেলোয়াড় ইরফান আমজাদ। ক্লাব কর্তৃপক্ষ এ নিয়ে নতুন করে তদন্ত করছে।

দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট কমিশন ফর ইকুইটি ইন ক্রিকেট (আইসিইসি) ক্রিকেটে বর্ণবাদের অভিযোগ নিয়ে দেখভাল শুরু করেছে। মঙ্গলবার থেকে একটি অনলাইন জরিপও চালু করেছে তারা, যা চলবে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এদিকে মরগান বলেন, ‘ ইয়র্কশায়ারে যা চলছে, তা নিয়ে আমাদের দলেও আলোচনা চলছে এবং এটি যে তরুণ প্রজন্মে প্রভাব ফেলবে, সে ব্যাপারেও কথা বলছি আমরা। মাঠের ভিতর এবং বাইরে এ ব্যাপারটি নির্মূল করা মোটেও সহজসাধ্য কাজ নয়, বিশেষ করে শুরুর দিকে।’

‘ইয়র্কশায়ারের বিষয়টি সবার সামনে এসেছে। আমরা এ ব্যাপারে সতর্ক। আশা করি, সামনের দিকে কাউন্টিতে এর থেকে সুফল আমরা পাবো।’

ইংল্যান্ড দলে মুসলিম ক্রিকেটার হিসেবে আছেন মইন আলি ও আদিল রশিদ। জন্মগতভাবে তারা পাকিস্তানি। এছাড়া কৃষ্ণ বর্ণের খেলোয়াড় আছেন ক্রিস জর্ডান ও টাইমাল মিলস। উরুর ইনজুরির কারণে অবশ্য বিশ্বকাপ যাত্রা শেষ হয়ে গেছে মিলসের।

তরুণ ক্রিকেটারদের ব্যাপক উৎসাহ প্রদান করে মরগানের দল, এমনটাই জানান মরগান।

‘তরুণদেরকে আমরা অনেক সাহস দেই। আমাদের কথা তাদেরকে বলি৷ তারা এতে অনুপ্রাণিত হয়ে তাদের স্বপ্নের কথা বলে। তারা যেন মনে করে তারাও একদিন ইংল্যান্ড জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করতে পারবে। তাদের সামনে আমরা সে সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিতে চাই।’

‘এসব বিষয় নিয়ে বিশ্বকাপে আমরা আলোচনা করি এবং এগুলো আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ,’ জানান মরগান।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

মার্করামের ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাংকিং, হ্যাজেলউডের বড় লাফ

Read Next

রিজওয়ানের দেওয়া ‘কুরআন শরীফ’ নিয়মিত পাঠ করছেন হেইডেন

Total
16
Share