দক্ষিণ আফ্রিকার কাছেও পাত্তা পেল না বাংলাদেশ

দক্ষিণ আফ্রিকার কাছেও পাত্তা পেল না বাংলাদেশ

আরও একটি লজ্জার অধ্যায় লিখল বাংলাদেশ। চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাত্র ৮৪ রানে অলআউট টাইগাররা। অল্প পুঁজিতেই লড়াইয়ের চেষ্টা করেন তাসকিন, শরিফুলরা। কিন্তু তাতেও রক্ষা হয়নি; ৩৯ বল বাকি থাকতে ৬ উইকেটের জয় পেল প্রোটিয়ারা।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)


টানা ৪ হারে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমি ফাইনাল খেলার স্বপ্ন আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ বাংলাদেশের। জায়গা হল পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে। শ্রীলঙ্কারও আর সেমিতে যাবার সুযোগ নেই।

বাংলাদেশের ইনিংসে দুই অঙ্কের ঘর ছুঁয়েছেন ৩ ব্যাটসম্যান, বিপরীতে শূন্যতে থেকেই বিদায় নেন ৪ ব্যাটসম্যান। ওপেনার লিটন দাসের ২৪, অভিষিক্ত শামীমের ১১ ও শেষদিকে মেহেদী হাসানের ২৭ রানের ইনিংসের সুবাদে ৮৪ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে বাংলাদেশ।

অল্প পুঁজি নিয়েও লড়াই জমিয়ে তোলার চেষ্টা করেন তাসকিন, শরিফুলরা। প্রথম ওভারেই সাফল্য পান তাসকিন। লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন ৪ রান করা ওপেনার রেজা হেনড্রিক্সকে। ভয়ংকর হয়ে ওঠার আগেই কুইন্টন ডি কককে বোল্ড করেন মেহেদী হাসান। ফেরার আগে ১৫ বলে ৩ চারের সাহায্যে ককের ব্যাট থেকে আসে ১৬ রান।

এইডেন মার্করামকে (০) উইকেটে দাঁড়াতেই দেননি তাসকিন। ধীর গতিতে খেলতে থাকা র‍্যাসি ভ্যান ড্যার ডুসেনকে ২২ রানে থামান নাসুম আহমেদ। তবে নাসুমের থেকে এই উইকেটের ক্রেডিট বেশি দুর্দান্ত ক্যাচ নেওয়া শরিফুল ইসলামের।

প্রোটিয়া অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা শেষপর্যন্ত অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন। বাভুমা থাকেন ৩১* রানে, সঙ্গে মিলারের ব্যাট থেকে আসে জয়সূচক বাউন্ডারি। ৪ উইকেট হারিয়ে ১৩.৩ ওভারেই বাংলাদেশের করা ৮৪ রান টপকে ফেলে দক্ষিণ আফ্রিকা।

আবুধাবিতে টস জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা। শুরু থেকেই দাপট দেখান রাবাদা, নরকিয়া। ইনিংসের ৪র্থ ওভারের শেষ দুই বলে কাগিসো রাবাদা তুলে নেন মোহাম্মদ নাইম শেখ (৯) ও সৌম্য সরকারের (০) উইকেট।

কোন রান করার আগেই রাবাদার তৃতীয় শিকার হন মুশফিকুর রহিম। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে (৩) বাউন্সে ফেরালেন আনরিখ নরকিয়া। আফিফ হোসেন ধ্রুবকে প্রথম বলেই বোল্ড করেন ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস।

তাব্রাইজ শামসির প্রথম ওভারেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন লিটন দাস। রিভিউ নিয়েও বাঁচতে পারেননি লিটন। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে সর্বোচ্চ ২৪ রান আসে এই লিটনের ব্যাট থেকেই। ১১ রানের বেশি করতে পারেননি বিশ্বকাপে অভিষিক্ত শামীম হোসেন। শেষদিকে ২ চার ও ১ ছয়ের সাহায্যে ২৪ রানের ইনিংস খেলেন মেহেদী হাসান। বাংলাদেশের ইনিংস শেষ হয়ে যায় ৮৪ রানে।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে বল হাতে কাগিসো রাবাদা ও আনরিখ নরকিয়ার শিকার ৩টি করে উইকেট। এছাড়া তাব্রাইজ শামসি ২টি ও প্রিটোরিয়াসের দখলে ১টি উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বাংলাদেশঃ ৮৪/১০ (১৮.২ ওভার) লিটন ২৪, নাইম ৯, সৌম্য ০, মুশফিক ০, রিয়াদ ৩, আফিফ ০, শামীম ১১, মেহেদী ২৭, তাসকিন ৩, নাসুম ০, শরিফুল ০*; রাবাদা ৩/২০, শামসি ২/২১ নরকিয়া ৩/৮, প্রিটোরিয়াস ১/১১

দক্ষিণ আফ্রিকাঃ ৮৬/৪ (১৩.৩ ওভার) ডি কক ১৬, হেনড্রিক্স ৪, ডুসেন ২২, মার্করাম ০, বাভুমা ৩১*, মিলার ৫*; তাসকিন ২/১৮, মেহেদী ২/১৯, নাসুম ১/২২

ফলাফলঃ দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ কাগিসো রাবাদা (দক্ষিণ আফ্রিকা)।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

কোহলির পক্ষে ও বিপক্ষে দুইটি দল দেখছেন শোয়েব আখতার

Read Next

অসহায় কণ্ঠে তাসকিন বললেন- ‘আমরা এর চেয়ে ভালো দল’

Total
1
Share