সুযোগ মিস না হলে গল্পটা অন্যরকম হতে পারতো বলছেন রিয়াদ

চ্যাম্পিয়ন ক্রিকেটার সাকিবকে পাওয়া বাংলাদেশের ভাগ্য

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৫ উইকেটে হেরে বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্ব শুরু করলো বাংলাদেশ। ক্যাচ মিসের খেসারত দিতে হয়েছে বললেও ভুল হবেনা। লিটন দাসের হাত ফসকে মিস হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ দুই ক্যাচ। ম্যাচ শেষে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও বলছে সুযোগগুলো হাত ছাড়া না হলে গল্পটা অন্য রকম হতে পারতো।

নাইম শেখ ও মুশফিকুর রহিমের জোড়া ফিফটিতে বাংলাদেশ পায় ৪ উইকেটে ১৭১ রানের পুঁজি। জবাবে চারিথ আসালঙ্কা ও ভানুকা রাজাপাকশের ব্যাটে ৫ উইকেট ও ৭ বল হাতে রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় লঙ্কানরা।

১৫ রানে জীবন পেয়ে রাজাপাকশে খেলেন ৫৩ রানের ইনিংস, ৬৩ রানে জীবন পেয়ে আসালঙ্কা অপরাজিত ছিলেন ৮০ রানে। দুটো সহজ ক্যাচই মিস করেন লিটন দাস। অথচ একটা সময় ৪ উইকেটে ৭৯ রান ছিলো লঙ্কানদের।

এদিকে শারজাহর উইকেটে বাড়তি স্পিন ধরবে বিবেচনায় নিয়ে তাসকিন আহমেদকে বাদ দিয়ে একাদশে ফেরানো হয় নাসুম আহমেদকে। নাসুম ২ উইকেট নিলেও রান খরচে ছিলেন উদার। সাকিব আল হাসান ছাড়া বাকি স্পিনাররাও তুলনামূলক খরুচে ছিলেন।

ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে টাইগার দলপতি ক্যাচ মিসগুলোকে সামনে আনেন। সুযোগ লুফে নিতে পারলে ম্যাচের চিত্র ভিন্ন হতে পারতো বলে মত রিয়াদের।

তিনি বলেন, ‘ব্যাটসম্যানরা নিজেদের কাজটা দারুণভাবে করেছে। লিটন ও নাইম খুব ভালো শুরু এনে দেয়। নাইম অসাধারণ এক ইনিংস খেলেছে দলের পুরো ইনিংস টেনে নেওয়ার ক্ষেত্রে। মুশিও বেশ দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছে।’

‘আমরা কিছু সুযোগ হারিয়েছি। পরের ম্যাচে এসব ভুল শুধরে নিতে চাই। এখানকার শেষ কিছু ম্যাচ কিছু ম্যাচ দেখেছি আমরা, যেকারণে অনুভব করেছিলাম বাড়তি স্পিনার খেলানোটা ভালো বিকল্প হবে। আমরা সুযোগগুলো হাতছাড়া করেছি, তা না হলে গল্পটা অন্যরকম হতে পারতো। আশা করছি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভালো একটা ম্যাচ হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ক্যাচ মিসের মাশুল দিয়ে হারল বাংলাদেশ

Read Next

এনসিএলে বড় সংগ্রহের পথে ঢাকা, ধুঁকছে সিলেট

Total
24
Share