নাইম-মুশফিকের ব্যাটে টাইগারদের লড়াকু সংগ্রহ

নাইম-মুশফিকের ব্যাটে টাইগারদের লড়াকু সংগ্রহ

মুশফিকুর রহিমের বিবর্ণ টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে যেটুকু রঙিন অধ্যায় তাতে প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কার নাম আসবে অবধারিত। তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বেশি গড়, রান, ফিফটি ও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্ট্রাইক রেট যে লঙ্কানদের বিপক্ষে। সাম্প্রতিক সময়ে টানা ফর্মহীন মুশফিক ফর্মে ফিরতে বেছে নিলেন প্রিয় প্রতিপক্ষকেই। আর তাতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৪ উইকেটে ১৭১ রানের বড় সংগ্রহ বাংলাদেশের। ফিফটি হাঁকিয়ে ভীত গড়ে দিয়ে যান অবশ্য ওপেনার নাইম শেখ।

বাংলাদেশের দলীয় সংগ্রহে নাইমের অবদান ৬২, মুশফিকের ব্যাটে অপরাজিত ৫৭ রান।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় লঙ্কান দলপতি দাসুন শানাকা। আগে ব্যাট করতে হয়েছে বলে আক্ষেপ নেই অবশ্য টাইগার দলপতি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। টস জিতলে যে ব্যাটিংই নিতেন।

বাংলাদেশের উদ্বোধনী জুটি অনেকদিন ধরেই চিন্তার কারণ। চলতি টি-চটোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের ৩ ম্যাচেও হতাশাজনক পারফরম্যান্স। ৩ ম্যাচে উদ্বোধনী জুটি উপহার দেয় মাত্র ১৯ রান!

তবে আজ বদল এসেছে সে চিত্রে। ৫.৫ ওভারে লিটন দাস ও নাইম শেখের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৪১ রান। যদিও যথারীতি ব্যর্থ লিটন, ফিরেছেন ১৬ বলে ১৬ রান করে। লাহিরু কুমারার বলে মিড অফে ক্যাচ দেন। সাজঘরে ফেরার আগে লঙ্কান পেসারের সাথে বাগ বিতন্ডায়ও জড়ান।

দারুণ ফর্মে থাকা সাকিব আল হাসান আজ ভালো শুরু পেয়েও বেশিক্ষণ টিকেননি। চামিকা করুণারত্নের বলে বোল্ড হন ৭ বলে ১০ রান করে। তবে অন্য প্রান্তে নাইম ছিলেন নিজের মতোই। ১০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে ৭২।

ব্যাট হাতে খারাপ সময় কাটানো মুশফিকুর রহিম ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকে স্লগ সুইপে ছক্কা হাঁকিয়ে যেনো বার্তা দিলেন আজ রানে ফিরছেন। বাঁহাতি পেসার ভিনুরা ফার্নান্দোকে হাঁকানো দ্বিতীয় ছক্কায়ও ছিলো আত্মবিশ্বাসের রসদ।

১৪তম ওভারে লাহিরু কুমারাকে চার হাঁকিয়ে ৪৪ বলে নিজের ফিফটি ও দলীয় ১০০ রান পূর্ণ করেন নাইম। তার আগে ব্যক্তিগত ৪৬ রানে অবশ্য তাকে ফেরানোর সহজ সুযোগ পায় লঙ্কানরা, তবে সরাসরি থ্রোতে রান আউট করতে ব্যর্থ হন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

ততক্ষণে আরও চড়াও হন মুশফিক, ১৫তম হাসারাঙ্গাকে সুইপ শটে হাঁকান ব্যাক টু ব্যাক চার। তবে অন্য প্রান্তে নাইম ৫২ বলে ৬২ রানের ইনিংস খেলে আউট হলে ভাঙে দুজনের ৫১ বলে ৭৩ রানের জুটি।

বাকি সময়টা আফিফ হোসেন (৭), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে (১০*) নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন মুশফিক। ৩২ বলে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ৬ষ্ঠ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তৃতীয় ফিফটি। মুশফিক শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ৩৭ বলে ৫ চার ২ ছক্কায় ৫৭ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (১ম ইনিংস শেষে):

বাংলাদেশ ১৭১/৪ (২০), নাইম ৬২, লিটন ১৬, সাকিব ১০, মুশফিকুর ৫৭*, আফিফ ৭, মাওমুদউলাহ ১০*; করুণারত্নে ৩-০-১২-১, ফার্নান্দো ৩-০-২১৭-১, কুমারা ৪-০-২৯-১।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

টসে হেরে আগে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

Read Next

এক দিনে দুই হ্যাটট্রিক দেখল এনসিএল

Total
13
Share