জয়ের অপেক্ষায় ঢাকা, খুলনার হয়ে বাজিমাত বিজয়-মিরাজের

জয়ের অপেক্ষায় ঢাকা, খুলনার হয়ে বাজিমাত বিজয়-মিরাজের

প্রথম দিনই জয়ের পথটা এগিয়ে রেখেছিল ঢাকা। সিলেট একাডেমি গ্রাউন্ডে জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে স্বাগতিক সিলেটের বিপক্ষে জয় তাদের সময়ের ব্যাপার। জয়ের জন্য প্রয়োজন আর মাত্র ১৮ রান, হাতে ৭ উইকেট ও পুরো দুইদিন। ঢাকা বিভাগের হয়ে স্পিন ভেল্কি দেখানো নাজমুল ইসলাম অপুর শিকার ম্যাচে ১০ উইকেট।

আরেক ম্যাচে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে রংপুরের বিপক্ষে এনামুল হক বিজয়ের ব্যাটে ভালোই জবাব দিচ্ছে খুলনা। বল হাতে খুলনার হয়ে ৬ উইকেট শিকার মেহেদী হাসান মিরাজের।

গতকাল (১৭ অক্টোবর) প্রথম দিনেই আগে ব্যাট করা সিলেটকে ৬৭ রানে অল আউট করে ঢাকা বিভাগ। এরপর নিজেরা আওআউট হয়েছিল ১৭৬ রানে। ১০৯ রানে পিছিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে সিলেট প্রথম দিন শেষ করেছিল ১ উইকেটে ৩৫ রানে।

আজ (১৮ অক্টোবর) দ্বিতীয় দিনে তারা অল আউট হয় ১৭৪ রানে। সর্বোচ্চ ৭৬ রান আসে অমিত হাসানের ব্যাটে। ২২ রানে দিন শুরু করা ইমতিয়াজ হোসেন করেন ৪৩ রান। ঢাকা বিভাগের হয়ে প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট নেওয়া বাঁহাতি স্পিনার অপু দ্বিতীয় ইনিংসেও নেন ৪ উইকেট।

৬৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৩ উইকেটে ৪৮ রান তুলে দিন শেষ করে ঢাকা বিভাগ। ওপেনার রনি তালুকদার আউট হন ২০ রান করে। অপরাজিত আছেন রাকিবুল হাসান (৫) ও তাইবুর রহমান (৩)।

অন্যদিকে পাশের সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চলছে রংপুর ও খুলনা বিভাগের ম্যাচ। আগে ব্যাট করা রংপুর প্রথম দিন শেষ করেছিল ৮ উইকেটে ২২৬ রানে। আজ দ্বিতীয় দিন তারা যোগ করে আরও ৩১ রান। ২৫৭ রানে অল আউট হওয়ার আগে ২২ রানে দিন শুরু করা ধীমান ঘোষ ৩১ ও ১০ রানে দিন শুরু করা রবিউল হক আউট হন ১০ রানে। ৯০ রানে ৬ উইকেত নেন খুলনার অফ স্পিনার মিরাজ।

জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৪ উইকেটে ৪ উইকেটে ১৭১ রান তুলে দিন শেষ করে খুলনা। ৭২ রানে অপরাজিত আছেন বিজয় ও ১৭ রানে মিরাজ।

খুলনার ওপেনিং জুটি টিকেনি ১১ রানের বেশি, ইমরান উজ জামানকে (৪) ফেরান মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ। এরপর ইমরুল কায়েসকে নিয়ে আরেক ওপেনার বিজয়ের ৪৪ রানের জুটি। কায়েস থেমেছেন ২৫ রানে। মাঝে নিজের শেষ এনসিএল খেলতে থাকা তুষার ইমরানও ১৩ রানের বেশি করতে পারেননি।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে বিজয়ের ৬৩ রানের জুটি। বাঁহাতি স্পিনার সোহরাওয়ার্দী শুভর তৃতীয় শিকার হয়ে মিঠুন আউট হন ৬৪ বলে ৩৩ রান করে। এরপ মিরাজকে নিয়ে দিনের বাকি সময় পার করেন বিজয়।

ততক্ষণে ফিফটি তুলে ১৩৫ বলে ৪ চার ৩ ছক্কায় ৭২ রানে অপরাজিত আছেন বিজয়। ৩৭ বলে ১৭ রানে অপরাজিত মিরাজ। খুলনা এখনো পিছিয়ে আছে ৮৬ রানে।

উল্লেখ্য, সিলেটে চলমান ম্যাচ দুইটি এনসিএলের টায়ার-১ এর ম্যাচ।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দেশের সাথে তামিমের অভিমান, পাপন বলছেন এমন আবেগের জায়গা নেই

Read Next

ক্যাম্ফারের রেকর্ড গড়ার দিনে হেসেখেলে জিতল আয়ারল্যান্ড

Total
24
Share