ডাম্বুলায় শেষ ওভারের থ্রিলারে হারল টাইগার যুবারা

ডাম্বুলায় শেষ ওভারের থ্রিলারে হারল টাইগার যুবারা
Vinkmag ad

২২৯ রানের লক্ষ্য তাড়ায় সহজ জয়ের পথেই ছিল বাংলাদেশ যুবারা। তবে মাঝে ছন্দ পতন এবং শেষদিকে নাটকীয়তা। ফলাফল শ্রীলঙ্কান যুবাদের বিপক্ষে রোমাঞ্চে মোড়ানো দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হারতে হয়েছে ১ রানের ব্যবধানে। বৃথা গেলো বাংলাদেশ যুব দলের মফিজুল ইসলাম রবিনের ৭৫ রানের ইনিংস।

রনগিরি ডাম্বুলা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করে শ্রীলঙ্কা যুব দলের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২২৮। জবাবে টপ ও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ভালো করার পরও হারতে হয়েছে টাইগার যুবাদের।

ওপেনার রবিনের ৭৫, ইফতেখার হোসেনের ৩৬, অধিনায়ক এস এম মেহেরবের ৩৩ রানের ইনিংসগুলো দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছাতে পারেনি। ২২৭ রানে অল আউট হয়ে ৫ ম্যাচ সিরিজটি ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে গেল বাংলাদেশ যুব দল।

প্রথম ম্যাচের মত আজও আগে ব্যাট করতে নেমে আশিকুর জামানের করা ইনিংসের ৩য় ওভারেই বোল্ড হন লঙ্কান ওপেনার জিবাকা শাশিন (৩)। তবে ৩ নম্বরে নামা শেভন ড্যানিয়েলের সঙ্গে ৬৬ রানের জুটি গড়েন আরেক ওপেনার সাদিশ জয়াবর্ধনে।

৩৪ রান করা ড্যানিয়েল ফিরলে ভাঙে জুটি। এরপর পাওয়ান পাথিরাজার সঙ্গে জুটিতে আরও ৫৪ রান যোগ করেন সাদিশ। এ দফা জুটি ভাঙে সাদিশের বিদায়ে, ততক্ষণে পেয়ে যান ফিফটির দেখা। ৯৪ বলে ৪ চারে সাজান ৫৪ রানের ইনিংস।

ফিফটির দেখান পান পাথিরাজাও, থেমেছেন ৬৮ বলে ৪ চারে ৫১ রান করে। লঙ্কান যুবাদের লড়াইয়ের পুঁজি আসে শেষদিকে রাভিন ডি সিলভা (২৫), অধিনায়ক দুনিথ ওয়েল্লালাগে (১৫) ও চামিন্দু বিক্রমাসিংহের (২৭) ছোট ছোট ইনিংসে ভর করে। ৮ উইকেটে স্কোরবোর্ডে ২২৮।

টাইগার যুবাদের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট পেসার রিপন মন্ডলের। দুইটি শিকার আশিকুর জামানের। একটি করে নেন আরিফুল ইসলাম ও নাইমুর রহমান নয়ন।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে দুই বাংলাদেশ ওপেনার মফিজুল ইসলাম রবিন ও ইফতেখার হোসেন ১০.৪ ওভার স্থায়ী জুটিতে তোলে ৫৭ রান। শুরুতে জড়তা দেখা যায় রবিনের ব্যাটে। ইফতেখার অবশ্য রান তুলেছেন দ্রুত গতিতে। তবে স্পিনার ত্রিভেন ম্যাথুর বলে ফিরেছেন উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে।

৩১ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় তার ব্যাটে ৩৬। তখনো খোলস বন্দী রবিন, ব্যক্তিগত ৪ রানে স্লিপে তার সহজ ক্যাচও মিস হয়। পরে বেশ কয়েকবার স্পিনারদের কাছে পরাস্তও হয়েছেন।। ৩ নম্বরে নামা তাজিবুল ইসলাম ছিলেন আরও ধীর।

তবে তখন কিছুটা সাবলীল হন রবিন। দুজনে মিলে যোগ করেন ৩৫ রান। রান আউটে কাটা পড়ে ৪২ বলে ১৭ রানে থামেন তাজিবুল। দলের ধারাবাহিক পারফর্মার আইচ মোল্লা (২) এদিন ব্যর্থ হন, সোজা বলে বোল্ড করেন দুনিথ ওয়েল্লালাগে।

অধিনায়ক এস এম মেহেরবকে নিয়ে ৫৩ রানের জুটিতে দলকে জয়ের পথেই রাখেন শুরুর অস্বস্তি কাটানো রবিন। ৭৪ বলে তুলে নেন ফিফটিও। ফিফটির পর বড় শট খেলতেও দ্বিধা করেননি।

যদিও সেঞ্চুরির পথে হেঁটে থামেন ৯৬ বলে ৮ চার ১ ছক্কায় ৭৫ রানে, মাথিশা পাথিরানার ইয়র্কারে হয়েছেন এলবিডব্লিউ।

এরপর মেহেরবও (৪৭ বলে ৩৩) ফেরেন দলকে জয় থেকে বেশ খানিকটা দূরে রেখে। আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ফিরতে হয় খালি হাতে। ১৮৭ রানে ৬ উইকেট হারানো বাংলাদেশ যুব দলের জয়ের জন্য শেষ ৬ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৩০ রান।

পরের চার ওভারে আরও ৩ উইকেট হারিয়ে শেষ ২ ওভারে সমীকরণ দাড়ায় ১৬, ক্রিজে শেষ দুই ব্যাটসম্যান। এক পাশ আগলে রেখে লড়াই চালানো আরিফুল আউট হন ২৩ রান করে। ১৯তম ওভারে আসে ৮ রান, শেষ ওভারের সমীকরণও ৮!

প্রথম বলেই আশিকুর জামান আপার কাটে হাঁকান চার, পরের বলে ওয়াইড, এরপর সিঙ্গেল। ৪ বলে সমীকরণ ২, তবে তৃতীয় বলেই সরাসরি থ্রোতে রান আউট রিপন মন্ডল। ১ রানের আক্ষেপে পুড়তে হল টাইগার যুবাদের।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ ২২৮/৮ (৫০), সাদিশ ৫৮, শাশিন ৩, ডানিয়েল ৩৪, পাথিরাজা ৫১, রাজাপাকশে ৩, রাভিন ২৫, ওয়েল্লালাগে ১৫, বিক্রমাসিংহে ২৭, রড্রিগো ৭*; আশিকুর ১০-১-৫৪-২, রিপন ১০-১-৪৯-৩, আরিফুল ১০-২-২৭-১, মেহেরব ৭-০-৩২-১

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ২২৭/১০ (৪৯.৩), মাহফিজুল ৭৫, ইফতিখার ৩৬, তাহজিবুল ১৭, আইচ ২, মেহেরব ৩৩, আরিফুল ২৩, আব্দুল্লাহ ০, কিবরিয়া ৮, নাইমুর ৬, আশিকুর ১১*, রিপন ৩; ওয়েল্লালাগে ১০-১-৩০-৩, ম্যাথু ১০-০-৪৭-২, পাথিরানা ৪.৩-০-২৬-৩

ফলাফলঃ শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দল ১ রানে জয়ী।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিসিএসএ’র ভূয়সী প্রশংসায় ওমান ক্রিকেট চেয়ারম্যান

Read Next

দেশের সাথে তামিমের অভিমান, পাপন বলছেন এমন আবেগের জায়গা নেই

Total
34
Share