অ্যামাজন ডেলিভারি ম্যান থেকে স্কটিশদের বিশ্বকাপের নায়ক

অ্যামাজন ডেলিভারি ম্যান থেকে স্কটিশদের বিশ্বকাপের নায়ক

বিশ্বকাপ আসর মানেই তো কতশত কাব্যের উপাখ্যান। নতুন করে লেখা হয় বহু ক্রিকেটীয় মহাকাব্য। তেমনই এক কাব্য লিখে বসলেন ক্রিস গ্রেভস। ২১ বছর ধরে টেস্ট খেলা আইসিসির পূর্ণ সদস্য বাংলাদেশকে হারিয়ে দিয়ে জন্ম দিলেন নতুন এক অঘটনকে। তবে কিছুদিন আগেও তার পরিচয় ছিলো অ্যামাজনের পার্সেল ডেলিভারি ম্যান হিসেবে।

ব্যাটে বলে অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে স্কটল্যান্ড জয়ের গল্পটি তিনিই লেখেন যে কিনা স্কটল্যান্ডের চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়ও নন। ব্যাট হাতে ২৮ বলে ৪৫ রান যেমন তার দলকে খাদের কিনার থেকে তুলে নিয়ে আসে তেমনি বল হাতে ১৯ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন সাকিব, মুশফিকের উইকেট যে কিনা মাত্র ৯ দিন আগে প্রথম আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি খেলে। এই ডেলিভারি ম্যানই স্কটল্যান্ডের জয়টা সামনে থেকে স্কটিশদের ডেলিভারি করল।

বিশ্বজুড়ে করোনার প্রকোপ থেকে নিজের পরিবারকে বাচাতে যোগ দিয়েছিলেন অ্যামাজনের পার্সেল ডেলিভারির কাজে, সেখান থেকে বিশ্বকাপে এসে বাজিমাত। সংবাদ সম্মেলনে এই ক্রিকেটারের জীবনের গল্প সামনে নিয়ে আসেন স্কটল্যান্ড অধিনায়ক কাইল কোয়েটজার, বলতে গিয়ে হয়েছেন গর্বিত, আবেগআপ্লুত।

কোয়েটজার বলেন, ‘গ্রেভসকে নিয়ে আমি সত্যিই গর্বিত। সে অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছে। খুব বেশিদিন আগের কথা নয় সে অ্যামাজনের পার্সেল বিতরণ করতো। এখন সে বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় হয়েছে। সে স্কটল্যান্ডের চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড় নন। সে পরিকল্পায় ছিল। সে পরিশ্রম করেছে এবং নিজেকে বিবেচনার জন্য রেখেছিল।’


কোয়েটজার আরও বলেন, ‘মাসখানেক আগে পেছনে ফিরে গেলে সে একটি ম্যাচও খেলেনি। কিন্তু দেখুন সে কি করেছে। এটা প্রমাণিত যে সহযোগী দেশগুলোর ক্রিকেটেও মানসম্পন্ন খেলোয়াড় আছে। এখন শুধু এটা দেখানোর জন্য তাদের প্ল্যাটফর্ম দরকার।’

ক্রিস গ্রেভসদের মতো মহাকাব্যের রচয়িতাদের জন্যই হয়তো ক্রিকেট খেলাটা এতো সুন্দর।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আজও টাইগার যুবাদের সামনে একই লক্ষ্য

Read Next

চলে গেলেন শ্রীলঙ্কার প্রথম টেস্ট অধিনায়ক

Total
5
Share