কক্সবাজারে সাদমান, চট্টগ্রামে ইয়াসির আলির ব্যাটে রান

কক্সবাজারে সাদমান, চট্টগ্রামে ইয়াসির আলির ব্যাটে রান

২৩ তম বঙ্গবন্ধু জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) প্রথম দিনে টায়ার-২ এর ম্যাচে চট্টগ্রামে ভালো অবস্থানে স্বাগতিক চট্টগ্রাম। সেঞ্চুরির পথে চট্টগ্রামের ইয়াসির আলি রাব্বি। কক্সবাজারে সাদমান ইসলাম ও মোহাম্মদ শরিফুল্লাহর ফিফটিতে ঢাকা মেট্রো পেয়েছে মাঝারি মানের সংগ্রহ।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে আগে ব্যাট করে ১৬৬ রানেই গুটিয়ে যায় রাজশাহী বিভাগ। জবাবে ২ উইকেটে ১২৬ রান চট্টগ্রামের স্কোরবোর্ডে। ৭০ রানে ইয়াসির আলি রাব্বি ও ৩২ রানে অপরাজিত অধিনায়ক মুমিনুল হক।

আগে ব্যাট করতে নামা রাজশাহী শুরু থেকেই বিপাকে ছিল। ব্যাট হাতে লড়াইটা একাই করেন তৌহিদ হৃদয়। ৭৯ বলে ৮ চার ২ ছক্কায় তার ব্যাটে ৬৮ রান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ রান সানজামুল ইসলামের ব্যাটে। ২০ রান করেন সাব্বির রহমান।

চট্টগ্রামের হয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট অফ স্পিনার নাইম হাসানের। বাঁহাতি স্পিনার হাসান মুরাদ, পেসার মেহেদী হাসান রানা ও ইফরান হাসান নেন সমান দুইটি করে উইকেট।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২২ রানেই দুই ওপেনার সাদিকুর রহমান (১২) ও তাসামুল হককে (১০) হারায় চট্টগ্রাম। দিনের বাকি অংশ অবশ্য আর কোনো বিপদ ছাড়াই পার করে ইয়াসির-মুমিনুল। দুজনে অবিচ্ছেদ্য আছেন ১০৪ রানে। ১০০ বলে ১০ চার ১ ছক্কায় ৭০ রানে ইয়াসির ও ৫৭ বলে ৩ চারে ৩২ রানে অপরাজিত মুমিনুল। চট্টগ্রাম এখনো পিছিয়ে ৪০ রানে।

এদিকে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বরিশাল বিভাগের বিপক্ষে টস হেরে আগে ব্যাট করে ঢাকা মেট্রো। অধিনায়ক সাদমান ইসলাম ও মোহাম্মদ শরিফুল্লাহর জোড়া ফিফটিতে অলআউট হওয়ার আগে ২৩৯ রান তাদের স্কোরবোর্ডে। জবাবে ১ উইকেট হারিয়ে ৬ রানে দিন শেষ করে বরিশাল।

ভালো শুরু পেয়েও ঢাকা মেট্রোকে আটকে দেওয়ার কাজটা করেছেন বরিশালের বাঁহাতি স্পিনার তানভীর ইসলাম ও পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি। এক পাশ আগলে রেখে শুরুতে পথ দেখান ঢাকা মেট্রো ওপেনার ও অধিনায়ক সাদমান। তবে থেমেছেন ১৪৫ বলে ৭ চার ১ ছক্কায় ৭৫ রান করে তানভীরের বলে মনির হোসেনকে ক্যাচ দিয়ে।

শেষদিকে ১০১ বলে ৭ চারে ৫৯ রানের ইনিংস মোহাম্মদ শরিফুল্লাহর ব্যাটে। এ ছাড়া ৩৮ রান আসে আবু হায়দার রনির ব্যাট থেকে। ২৬ রান করেন শামসুর রহমান শুভ। ৭৮ রান খরচায় তানভীরের ৬ উইকেট, ৪ উইকেট নিতে রাব্বির খরচ ৪৩ রান।

জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়নি বরিশালেরও। ওপেনার মইনুল ইসলামকে (০) মোহাম্মদ শরিফুল্লাহ বোল্ড করলে দিনের খেলা শেষ হয়। তাতে ১ উইকেটে ৬ রান বরিশালের স্কোরবোর্ডে, পিছিয়ে আছে ২৩৩ রানে। মোহাম্মদ আশরাফুল অপরাজিত ৬ রানে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

জাতীয় লিগের প্রথম দিনে সিলেটে স্পিনারদের রাজত্ব

Read Next

মাসকাটে আগে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

Total
1
Share