বিশ্বকাপে নিয়মিত হতে চায় পাপুয়া নিউ গিনি

বিশ্বকাপে নিয়মিত হতে চায় পাপুয়া নিউ গিনি
Vinkmag ad

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মত খেলতে যাচ্ছে পাপুয়া নিউ গিনি। তবে তাদের অধিনায়ক আসাদ ভালার ইচ্ছা, বিশ্বকাপে যেন তাদের দেশ নিয়মিত হতে পারে। কোভিড-১৯ মহামারীর বড় প্রভাবের এ বিশ্বকাপ দিয়ে মানুষের মুখে হাসি ফুটবে, এমনটাই বিশ্বাস তার।

‘এ মুহুর্তটা আমার ও ছেলেদের জন্য অনেক গর্বের বিষয়। অনেক সময় পর এ মুহুর্তটা এসেছে। অনেকবারই আমরা অনেক কাছাকাছি এসেছিলাম। প্রথম বিশ্বকাপের ম্যাচ থেকে আমরা মাত্র ২ দিন দূরে। রবিবারের ম্যাচের জন্য ছেলেরা সবাই উৎসুক। মহামারীর পর মানুষের জন্য একটু স্বস্তির বিষয়। আমরা চেষ্টা করবো তাদের মুখে হাসি ফোটাতে,’ বলেন আসাদ ভালা।

সহযোগী আয়োজক ওমানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু করবে পাপুয়া নিউ গিনি।

‘সত্যি বলতে, আমরা নিজেরা আত্নবিশ্বাসী। সামর্থ্য অনুযায়ী আমাদের সেরাটা খেলতে চাই। আমরা নিজেদের প্রকাশ করতে চাই। সেকেন্ড রাউন্ডে উন্নীত বিশ্বের বাঘা বাঘা দলগুলোর বিপক্ষে খেলতে চাই। প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিতে চাই না। উন্নতির ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। শক্তিশালী দলগুলোর বিপক্ষে নিজেদের আত্নপ্রকাশ করতে চাই।’

‘২০১৯ সালের বাছাইপর্ব থেকে আমরা আত্নবিশ্বাস পেয়েছিলাম। গত ১৮ মাসে অনেক ম্যাচ খেলেছি আমরা। অধিক ম্যাচ খেলে আমরা আরও উন্নতি করেছি, বিশেষ করে ওমান ও দুবাইতে। ভালো ধারা অব্যাহত রয়েছে। রবিবার মাঠেই তা প্রমাণ করবো।’

আসাদ ভালা নিজেও একজন দুর্দান্ত ক্রিকেটার। তিনি ছাড়াও নরমান ভানুয়া এবং চার্লস আমিনি প্রতিভাবান অলরাউন্ডার রয়েছে দলে। ভানুয়ার কাধের ইনজুরি থাকলেও রবিবার তাকে ম্যাচে পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী আসাদ ভালা।

‘এ মুহূর্তে ভানুয়াকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। সে খুবই ভালো অলরাউন্ডার। কেনিয়ার বিপক্ষে দুর্দান্ত ইনিংস খেলে আমাদের জয় পাইয়ে দিয়েছিল। আশা করি রবিবার তাকে পাবো আমরা। স্পিন আক্রমণে নেতৃত্ব দিবে চার্লস আমিনি। তার উপর অনেক দায়িত্ব। সেও দারুণ বোলার। ক্রিকেটের ৩ বিভাগে সে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। আশা করি, পিচ থেকে সে সহযোগিতা পাবে।’

সাবেক কোচ জন ডাওয়েসের প্রতি সম্মান জানান আসাদ ভালা। ওয়ানডে স্ট্যাটাস ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন তিনি। ভারতের সাবেক এই বোলিং কোচ করোনা মহামারীতে পরিবারকে সময় দিতে মার্চে কোচের পদ ছাড়েন। বর্তমানে পাপুয়া নিউ গিনির কোচ হিসেবে আছেন কার্ল স্যান্ড্রি।

‘আমি মনে করি, ডাওয়েস দলকে অনেক বেশি গঠনশীল হিসেবে গড়ে তুলেছে। যখন সে প্রথম আসে, সে দেখে দলে অনেক কিছুই ঠিকমত হচ্ছিল না। সে সব ঠিক করতে চেষ্টা করতে লাগলো। দলকে সঠিক পথে নিয়ে আসলো এবং আমাদেরকে উপযুক্ত করলো। যখন আমরা ক্ষুদ্র ব্যাপারগুলো ঠিক করলাম, ক্রিকেট তখন এমনিতে সহজ হয়ে গেল। আমাদের দলকে এ পর্যায়ে আনতে সে অনেক বড় ভূমিকা পালন করেছে।’

‘কার্ল স্যান্ড্রির মত ভালো কোচও আমাদের এখন আছে। সে বিগ ব্যাশে আছে। তার বিভিন্ন চিন্তাধারা আছে। ছেলেরা চেষ্টা করছে তার চিন্তাধারাকে রপ্ত করতে। তারা চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে চায় এবং কোচের সাথে কাজ করতে চায়।’

জুলাইয়ে নতুন বোলিং কোচ হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার চ্যাড স্যায়ার্স যুক্ত হন পাপুয়া নিউ গিনি শিবিরে। তাকে বোলিং ইউনিটের জন্য বন্ধুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে আসাদ ভালার।

‘স্যায়ার্স আসলেই ভালো। আমার মনে হয় বোলাররা তার সাথে কাজ করে বেশ আনন্দ পাচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষ পর্যায়ে সে খেলেছিল। এবি ডি ভিলিয়ার্সকে আউট করা নিয়ে সে সবসময় বলে। এটা খুবই আনন্দদায়ক, ছেলেদেরকে আরও অনুপ্রাণিত করে। তারা তার সাহচর্য উপভোগ করছে এবং অনেক কিছু শিখছে।’

প্রথম রাউন্ডে তারা বাংলাদেশের সাথে মুখোমুখি হবে। বাংলাদেশের মানসম্পন্ন স্পিনারদের ব্যাপারে তারা অবগত। এ নিয়ে তারা কাজও করছে। একইসাথে ভালা আত্নবিশ্বাসী, তার ছেলেরা ভালো করবে এবং এ মুহুর্তটাকে দারুণভাবে উপভোগ করবে।

‘মানসম্মত স্পিনারদের বিপক্ষে আমরা প্রস্তুত থাকবো। এ নিয়ে অনুশীলনে আমরা অনেক পরিশ্রম করেছি। এখন শুধু মাঠে দেখানোর পালা। আমরা বিচক্ষণভাবে খেলতে চাই এবং উপভোগ করতে চাই।’

‘আমাদের ফিল্ডিং নিয়ে আমরা গর্বিত। অন্যান্য বিভাগেও ভালো খেলে অলরাউন্ড দল হিসেবে নিজেদের প্রমাণ করতে চাই। এটা আসলেই আনন্দের। মাঠে নিজেদের সবটুকু দিতে আগ্রহী। একইসাথে হাসিমুখে নিজেদের দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে উন্মুখ হয়ে আছি আমরা।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

২৩ তম এনসিএলের পূর্নাঙ্গ সূচি

Read Next

কেনো বাদ পড়েছেন জানেন না ওয়ার্নার

Total
9
Share