ধোনির ক্যামিওতে দিল্লিকে হারিয়ে ফাইনালে চেন্নাই

featured photo updated v 8

ফিনিশার ধোনি! রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে জয় পেল চেন্নাই সুপার কিংস। ২০২১ আইপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে শেষ ওভারের থ্রিলারে দিল্লিকে ৪ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে ধোনির চেন্নাই। নবম বারের মতো আইপিএলের ফাইনাল খেলার টিকিট পেল চেন্নাই সুপার কিংস।

প্রথমে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে দিল্লি ক্যাপিটালস স্কোরবোর্ডে তোলে ১৭২ রান। ফাইনালে যেতে চেন্নাইয়ের টার্গেট ছিল ১৭৩। রান তাড়া করতে নেমে ২ বল বাকি থাকতেই কাঙ্খিত জয় তুলে দলকে ফাইনালে পৌঁছে দিলেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি।

দুবাইয়ে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ধীরে চল নীতি নিয়ে ইনিংস শুরু করল দিল্লি ক্যাপিটালস। মাত্র ৭ রান করেই আউট হলেন শিখর ধাওয়ান। প্রথম ৬ ওভারের মধ্যেই ২ উইকেট হারাল দিল্লি। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ব্যাট হাতে এক রানের বেশি করতে পারেননি শ্রেয়াস আইয়ার।

এক প্রান্ত সচল থেকে ২৭ বলে অনবদ্য হাফ সেঞ্চুরি করেছেন পৃথ্বী শ। তবে রবীন্দ্র জাদেজার শিকার হওয়ার আগে ৩৪ বলে ৬০ রানের ইনিংস খেলেন পৃথ্বী। মাঝে ১০ রান আসে আক্সার প্যাটেলের ব্যাট থেকে।

দলীয় ৮০ রানে চতুর্থ উইকেট পড়ার পর থেকে দলের সংগ্রহ এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন অধিনায়ক রিশাব পান্ট ও শিমরন হেটমায়ের। ১৯তম ওভারের চতুর্থ বলে হেটমায়ের-পান্টের ৮৩ রানের জুটি ভাঙেন ডোয়াইন ব্রাভো। তিনটি চার ও একটি ছয়ের সাহায্যে হেটমায়ের ২৪ বলে ৩৭ রান করেন।

পান্ট মাত্র ৩৫ বলে ৫৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। মারেন ৩টি চার এবং দুটি ছয়। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭২ রান তোলে দিল্লি।

চেন্নাইয়ের সুপার কিংসের হয়ে বল হাতে ২ উইকেট পেয়েছেন জশ হ্যাজেলউড। এছাড়া ১টি করে উইকেট নেন রবীন্দ্র জাদেজা, মইল আলি ও ডোয়াইন ব্রাভো

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারেই ফাফ ডু প্লেসিসের (১) উইকেট হারায় চেন্নাই। তবে তারপর থেকে দলের হাল ধরেছেন রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও রবিন উথাপ্পা। ফিফটি হাঁকান দু’জনই। তবে ব্যক্তিগত ৬৩ রানে উথাপ্পা বিদায় নিলে ভাঙে ১১০ রানের জুটি। ৪৪ বলে ৭ চার ও ২ ছয়ে সাজানো উথাপার ৬৩ রানের ইনিংস।

এরপর দ্রুত ফিরে গেলেন শারদুল ঠাকুর (০) ও আম্বাতি রাইডু (০)। ইনিংসের ১৯তম ওভারে চেন্নাইয়ের বিপদ বাড়ে রুতুরাজের বিদায়ে। আভেশ খানের শিকার হয়ে ফেরার আগে ৫০ বলে ৭০ রানের ইনিংস আসে রুতুরাজ গায়কোয়াড়ের ব্যাট থেকে। আভেশ খান দিল্লিকে গুরুত্বপূর্ণ উইকেট এনে দিলেন।

শেষ ওভারে সিএসকের জয়ের জন্য দরকার ১৩ রান। ক্রিজে ছিলেন ধোনি ও মইন আলি। টম কারানের করা প্রথম বলেই ক্যাচ তুলে ফেরেন ১৬ রান করা মইন। স্ট্রাইক প্রান্তে ব্যাট হাতে দাঁড়িয়ে মাহেন্দ্র সিং ধোনি। পরপর দুই বলে দুই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয়ের পথ সহজ করেন। এরপর ওয়াইডে আসে ১ রান। তৃতীয় বলে ফের বাউন্ডারি হাঁকান ধোনি। ৪ উইকেটের জয়ে ফাইনালে পৌঁছে যায় চেন্নাই সুপার কিংস। ৬ বলে ১৮ রানের ক্যামিও ইনিংসে ধোনি তীরে ভেড়ান চেন্নাইয়ের জয়ের নৌকা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (কোয়ালিফায়ার ১)

দিল্লি ক্যাপিটালসঃ ১৭২/৫ (২০ ওভার) পৃথ্বী ৬০, আক্সার ১০, রিশাব ৫১*, হেটমায়ের ৩৭; হ্যাজলউড ২/২৯, ব্রাভো ১/৩১, মইন ১/২৭, জাদেজা ১/২৩

চেন্নাই সুপার কিংসঃ ১৭৩/৬ (১৯.৪ ওভার) রুতুরাজ ৭০, উথাপ্পা ৬৩, মইন ১৬, ধোনি ১৮*; কারান ৩/২৯, নরকিয়া ১/৩১, আভেশ ১/৪৭

ফলাফলঃ চেন্নাই সুপার কিংস ৪ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ রুতুরাজ গায়কোয়াড় (চেন্নাই সুপার কিংস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

দুই বছরের মধ্যে আরেকটি বিশ্বকাপ ঘরে আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ

Read Next

সব ফরম্যাট খেলতে নিজেকে বদলাতেও রাজি সাদমান

Total
1
Share