সম্পর্ক নষ্টের শঙ্কায় প্যানেলমুক্ত নির্বাচন নাজমুল হাসান পাপনের

পাপন বুঝে গেছেন তার মৃত্যুর আগে কেউ বিসিবি সভাপতি হতে চায়না

বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের নির্বাচনে প্রার্থীদের আলাদা আলাদা প্যানেল দেখা যায় নিয়মিতই। তবে আসন্ন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নির্বাচনে থাকছে না এমন কিছু। বর্তমান সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন প্যানেল না রাখার যেসব কারণ দেখিয়েছেন তার মধ্যে আছে সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার শঙ্কাও।

বিসিবি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল (৬ অক্টোবর)। তার আগে গতকাল (৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে আয়োজন করা হয় সারাদেশের কাউন্সিলরদের নিয়ে ‘গেট টুগেদার’ অনুষ্ঠান।

শশুরের মৃত্যুর কারণে সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন খুব বেশি সময় ব্যয় না করলেও ঠিকই দেখা করে গেছেন সবার সাথে। সেখানেই ভোটারদের কাছে যোগ্য ব্যক্তির জন্য ভোট চেয়ে পাপন বক্তব্য রাখেন।

প্যানেল না থাকা নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি এটা আমাদের বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বপ্রথম (প্যানেল না থাকা)। আসলে হয় কি দুটো জিনিস। একটা হচ্ছে ক্রিকেট বোর্ডে নির্বাচন হলে পুর্ণাঙ্গ বোর্ডে হবে। সাধারণত দুইটা প্যানেল থাকে বা একাধিক প্যানেল থাকে। প্যানেল থাকাটা দোষের কিছু না। তবে সমস্যাটা হয় একটা ভালো সম্পর্ক নির্বাচনের কারণে অনেকের সম্পর্ক কিন্তু নষ্ট হয়ে যায়। অন্য প্যানেল থেকে কেউ আসলে বেশিলোক যে প্যানেলের তারা সবসময় প্রতিপক্ষ মনে করে।’

‘এ রকম পরিস্থিতি থেকে কিভাবে বের হওয়া যায় আমার মাথায় সব সময় একটা চিন্তা ছিল। একটা পরিকপলনা ছিল প্যানেল ছাড়া করলে কি হয়। প্যানেল ছাড়া করলে সুবিধা হচ্ছে, যারা ভালো, ক্রিকেট বোর্ডে যারা অবদান রাখতে পারবে, বাংলাদেশের ক্রিকেটে যারা অবদান রাখতে পারবে, এ ধরণের লোকজন আসার সম্ভাবনা বেশি। সেটায় কিভাবে মানুষকে উৎসাহী করা যায়। গত দুই নির্বাচন আমরাটা খুবই খারাপ গেছে কারণ কোনো প্রার্থী নাই।’

‘প্যানেলটা দেয়ার পর প্রথম কয়েকদিন থাকে এরপর নির্বাচনের কয়েকদিন আগে আর নাই। যদি না থাকে তাহলে তো নির্বাচনটার মানে হল না। দুই নম্বর, আমার প্যানেল যারা আছেন তারাই যে সেরা এমন কিন্তু না। এর বাইরের প্যানেলেও তো ভালো ভালো মানুষ আছে। এই জিনিসটা উন্মুক্ত করে দেয়া।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শেষের রোমাঞ্চে জিতল দিল্লি, দখল করল শীর্ষস্থান

Read Next

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বললেন আনা পিটারসন

Total
10
Share