তুষার ইমরানকে দিয়ে পারফরম্যান্স মূল্যায়নের ব্যাখ্যা দিলেন রাজ্জাক

তুষার ইমরানকে দিয়ে পারফরম্যান্স মূল্যায়নের ব্যাখ্যা দিলেন রাজ্জাক

ঘরোয়া লিগে পারফর্ম করেও নির্বাচকদের নজরে না আসার আক্ষেপ প্রতি মৌসুমেই দেখা যায়। যে তালিকায় বছর কয়েক আগে আব্দুর রাজ্জাকের নামও ছিল তবে তিনি এখন খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টেনে নির্বাচকের ভূমিকায়। নির্বাচক হিসেবে সাবেক এই বাঁহাতি স্পিনার অবশ্য ইতোমধ্যে পারফরম্যান্স মূল্যায়নের ধরণ বুঝে গেছেন। জাতীয় দলের জন্য বিবেচিত হওয়ার সুযোগ নেই এমন ক্রিকেটারের ঘরোয়া পারফরম্যান্স আলাদাই পড়ে থাকবে বলে জানালেন রাজ্জাক।

এক সময় জাতীয় দলের হয়ে খেললেও বয়স, ফিটনেস, বর্তমান দলে প্রতিযোগিতা বিবেচনায় অনেক ক্রিকেটারের জন্য দরজাটা বন্ধই বলা যায়। জাতীয় দলের স্বপ্ন এক পাশে রেখে ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে এগিয়ে যান সেসব ক্রিকেটার। গতবছর খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টানার আগে আব্দুর রাজ্জাকও অনেকটা একই পথের পথিক ছিলেন।

এবার তিনি নির্বাচক, তবে অমন অনেক ক্রিকেটারই এখনো খেলে যাচ্ছেন। তুষার ইমরান সে তালিকায় সবার উপরেই। প্রতি মৌসুমেই রানের ফোয়ারা ছুটে তার ব্যাটে। তবে বয়স বিবেচনায় বর্তমান জাতীয় দলে তার সুযোগ দেখেননা আব্দুর রাজ্জাকও।

আজ (২ অক্টোবর) থেকে শুরু হয়েছে আসন্ন জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল) সামনে রেখে ফিটনেস টেস্ট। বেশ কয়েকটি বিভাগ মিরপুরের ইনডোরে অংশ নেয় ইয়ো ইয়ো টেস্টে। যা সামনে থেকে দেখভাল করেছেন নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক।

পরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কথা বলেন পারফরম্যান্স মূল্যায়ন নিয়ে ওঠা অভিযোগ ইস্যুতে। তার দাবি নির্বাচকদের বিবেচনায় কেবল তারাই থাকেন যাদের শুধু পারফরম্যান্স নয় জাতীয় দলে লম্বা সময় সেবা দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

রাজ্জাক বলেন, ‘কেউ এটা মনে করে থাকলে ভুল হবে (পারফরম্যান্স অবমূল্যায়ন)। আমাদের পারফরম্যান্স দেখাই হয় এই ২-৩টি খেলায়… এনসিএল, বিসিএল, ডিপিএল আর এখন বিপিএল। এখানে যারা পারফর্ম করে সাধারণত তারাই থাকে। তারপরও সন্দেহ থাকার কথা না। এমন কিছু হতে পারে- কিছু খেলোয়াড় থাকে, যারা প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেই শুধু খেলছে। তুষার ইমরানের কথা ধরুন, ভালো খেলছে, কিন্তু এখন কি ওকে নেওয়া সম্ভব? এসব অভিযোগ থাকবে। এ নিয়ে চিন্তার কিছু নেই।’

‘মূল ব্যাপার হল- যাদের নিয়ে জাতীয় দল চিন্তা করছেন তাদের ঠিক পথে নিতে পারছি কি না। আমরা চাই সব খেলোয়াড় টুর্নামেন্টগুলো খেলুক। বেশি খেললে নিজের কাছেও পরিস্কার থাকবে। জাতীয় দলে কিছু জায়গা থাকে একদম পাকাপোক্ত। ঐ জায়গাতে কাউকে আসতে হলে অসাধারণ পারফরম্যান্স করে আসতে হবে। এটা খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। যদি অভিযোগ করে থাকে, হয়ত এরকম ব্যাপার।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ফিটনেস টেস্টে প্রথম দিনেই উতরে গেলেন নাসিররা, সন্তুষ্ট রাজ্জাক

Read Next

এমসিসিতে সাঙ্গাকারার স্থলাভিষিক্ত হলেন ক্লেয়ার কনর

Total
14
Share