মুস্তাফিজ, স্যামসনের উজ্জ্বল দিনেও হারল রাজস্থান

মুস্তাফিজ, স্যামসনের উজ্জ্বল দিনেও হারল রাজস্থান

মুস্তাফিজুর রহমানের দাপুটে বোলিংয়ের সামনে দাঁড়িয়ে বড় সংগ্রহ করতে ব্যর্থ দিল্লি ক্যাপিটালস। রাজস্থানের সেরা বোলার মুস্তাফিজ। ৪ ওভারে ২২ রান দিয়ে নিয়েছেন ২টি উইকেট। ১৫৪ রানে দিল্লিকে আটকে রেখেও অবশ্য ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় হারতে হল রাজস্থান রয়্যালসকে। অধিনায়ক স্যামসনের অপরাজিত ৭০ রানও কাজে আসেনি।

আবু ধাবিতে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ২১ রানেই দুই উইকেট হারায় দিল্লি। ব্যক্তিগত ৮ রানে কার্তিক তিয়াগির বলে আউট হলেন ওপেনার শিখর ধাওয়ান। ধাওয়ান ফিরতেই পরের ওভারে চেতন সাকারিয়ার বলে আউট হলেন পৃথ্বী শ (৮)। মাত্র ১০ রান করে আউট হন ধাওয়ান।

২৪ রানে মুস্তাফিজুর রহমানের বলে বোল্ড হলেন দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিনায়ক রিশাব পান্ট। পান্ট ফিরে গেলে শ্রেয়াসও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ব্যাট হাতে তান্ডব চালানো শিমরন হেটমেয়ারকে ইনিংস বড় করতে দেননি মুস্তাফিজ। ১৬ বলে ২৮ রানের ইনিংসে হেটমেয়ার ফেরত যান প্যাভিলিয়নে।

শেষদিকে আক্সার প্যাটেলের ব্যাট থেকে আসে ১২ রান। ১৪ রানে অপরাজিত ছিলেন ললিত যাদব ও ৬ রানে অপরাজিত ছিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ফলে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রান সংগ্রহ করে দিল্লি ক্যাপিটালস।

বল হাতে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে ২ উইকেট নেন মুস্তাফিজুর রহমান ও চেতন সাকারিয়া। ১টি করে উইকেট পান রাহুল তেওয়াটিয়া ও কার্তিক তিয়াগি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

১৫৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম থেকেই ব্যাকফুটে চলে গেল রাজস্থান রয়্যালস। দিল্লি ক্যাপিটালস অনবদ্য বোলিং দিয়ে শুরু করল খেলার দ্বিতীয় ইনিংস। প্রথম ওভারেই ওপেনার লিয়াম লিভিংস্টোনকে ১ রানে রেখে ফেরান আবেশ খান। পরের ওভারে আনরিখ নরকিয়ার প্রথম বলেই আউট হন যশস্বী জায়সওয়াল। ডেভিড মিলারকে ৭ রানে প্যাভিলিয়ানে পাঠান রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

রান পাননি রিয়ান পরাগ (২) ও রাহুল তেওয়াটিয়া (৯)। মাঝে মাহিপাল লোমররের ব্যাট থেকে আসে ১৯ রান। কিন্তু উইকেটের এক প্রান্তে সচল অধিনায়ক স্যাঞ্জু স্যামসন পূর্ণ করেন অর্ধশত।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

দিল্লি ক্যাপিটালসঃ ১৫৪/৬ (২০ ওভার) পৃথ্বী ১০, ধাওয়ান ৮, আইয়ার ৪৩, পান্ট ২৪, হেটমেয়ার ২৮, ললিত ১৪*, আক্সার ১২; মুস্তাফিজ ২/২২, সাকারিয়া ২/৩৩,

রাজস্থান রয়্যালসঃ ১২১/৬ (২০ ওভার) লিভিংস্টোন ১, জায়সওয়াল ৫, স্যামসন ৭০*, মিলার ৭, লোমরর ১৯, পরাগ ২, তেওয়াটিয়া ৯; নরকিয়া ২/১৮, অশ্বিন ১/২০, আক্সার ১/২৭, রাবাদা ১/২৬, আবেশ ১/২৯

ফলাফলঃ দিল্লি ক্যাপিটালস ৩৩ রানে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ শ্রেয়াস আইয়ার (দিল্লি ক্যাপিটালস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

টানা ৩ জয়ে বাংলাদেশ সফর শেষ করল আফগান যুবারা

Read Next

বিসিবি নির্বাচনঃ মনোনয়ন পত্র কিনলেন যারা

Total
15
Share