পাকিস্তানে সফর বাতিলে সায় ছিল না ইংল্যান্ড সরকারের

ইসিবি

ব্রিটিশ সরকার তাদের খেলোয়াড়দের নিয়ে বেশ সতর্ক। তবে অক্টোবরে পাকিস্তান সফর বাতিলের বিষয়ে ব্রিটিশ সরকারের কোন হাত নেই, এটা সম্পূর্ণই ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) সিদ্ধান্ত, এমনটাই জানিয়েছেন পাকিস্তানে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাই কমিশনার ক্রিশ্চিয়ান টার্নার।

টুইটারে এক বিবৃতিতে টার্নার জানান, ব্রিটিশ সরকারে ইসিবি সম্পূর্ন স্বাধীনভাবে নিজেদের সিদ্ধান্ত নিতে পারে। ব্রিটিশ হাই কমিশনও এ ট্যুরের সমর্থনে ছিল।

‘অক্টোবরে ইংল্যান্ডের পাকিস্তান সফর বাতিল হওয়ায় আমি ভীষণ দুঃখ প্রকাশ করছি। এটা সম্পূর্ণ ইসিবির নিজস্ব সিদ্ধান্ত। তারা ব্রিটিশ সরকারে সম্পুর্ণ স্বাধীনভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে। ব্রিটিশ হাই কমিশনও এ সফরের সমর্থনে ছিল। মাঠের নিরাপত্তা নিয়ে ব্রিটিশ হাই কমিশনের কোন অভিযোগ ছিল না এবং পাকিস্তান সফরের ব্যাপারে কোন দ্বিমত ছিল না। পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে আমি চ্যাম্পিয়ন এবং আগামী বছরের শরতে ইংল্যান্ডের পাকিস্তান সফরের ব্যাপারে আমার দ্বিগুণ প্রচেষ্টা থাকবে। পিসিবির প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি, যারা সবসময় এমন সমর্থনে কঠোর পরিশ্রম করে আসছে,’ বলেন টার্নার।

টার্নারের বিবৃতির পর পিসিবির রাগ খুব একটা গলে যায়নি। ইসিবি গতকাল এক বিবরণে জানায়, দুই পক্ষের স্বার্থে তারা এমন সিদ্ধান্তে নেয়, যেখানে পাকিস্তানে নিরাপত্তাজনিত সমস্যার চেয়ে খেলোয়াড় ও কর্মীদের শারীরিক ও মানসিক দিককে বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও এ অঞ্চলে সফরের ব্যাপারে সচেতনতা বেড়ে যাওয়াকেও গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের পাকিস্তান সফরের বাতিলের ঠিক তিনদিন পরে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডও একই পথে হাটে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার পরামর্শক মাহেলা জয়াবর্ধনে

Read Next

টাকার কারণে অস্ট্রেলিয়ানরা তাদের ডিএনএ পরিবর্তন করেছে: রমিজ রাজা

Total
9
Share