সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে বাংলাদেশ যুবাদের পিছিয়ে দিল বিলাল

অনূর্ধ্ব ১৯

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে একমাত্র চারদিনের ম্যাচের দ্বিতীয় দিন শেষে চালকের আসনে আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল। দিনের শুরুতে দ্রুত উইকেট হারিয়ে বিপদের শঙ্কা তৈরি হলেও আফগানদের টেনে তুলেন বিলাল সায়েদি ও কামরান হোতাক। সায়েদির সেঞ্চুরির সাথে হোতাকের ফিফটিতে প্রথম ইনিংসে ইতোমধ্যে ৬৪ রানের লিড আফগানদের।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গড়ানো ম্যাচে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ যুব দলকে ১৬২ রানে গুটিয়ে দেয় আফগানিস্তান যুবারা। জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে নিজেদের প্রথম ইনিংসে সফরকারীদের স্কোরবোর্ডে ৮ উইকেটে ২২৬।

সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে স্বেচ্ছায় মাঠ ছাড়া বিলাল সায়েদির ব্যাটে অপরাজিত ১০১ রান। ৮ নম্বরে নেমে ৬৬ রান করেন কামরান হোতাক।

২ উইকেটে ৪০ রান নিয়ে দিন শুরু করে আফগানরা, ১১ রানে সায়েদি ও ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন ইজাজ আহমেদ। তবে এদিন নিজের নামের পাশে আর ৪ রান করেই ফেরেন ইজাজ। অফ স্পিনার আশরাফুল ইসলাম ২ রানের বেশি করতে দেননি বিলাল আহমেদকে। জাহিদুল্লাহ সেলিমি ফেরেন ১ রান করে, আর তাতে ৫৮ রানেই ৫ উইকেট হারায় আফগান যুব দল।

সেখান থেকে দলকে টেনে নেন বিলাল সায়েদি। নাঙ্গেয়ালিয়া খারোতের (১৫) সাথে গড়েন ২৬ রানের বিপর্যয় সামাল দেওয়া জুটি। এরপর কামরান হোতাকের সাথে জুটিতে যোগ করেন ১৪০ রান। ততক্ষণে অবশ্য পেয়ে গেছেন সেঞ্চুরির দেখা। ২৮৫ বলে ছুঁয়েছেন সেঞ্চুরি। সেঞ্চুরির পরই যান স্বেচ্ছা অবসরে। ইনিংসে ছিল ১২ চার ও ১ ছক্কা।

ফিফটির দেখা পেয়ে সেঞ্চুরির পথে হাঁটা কামরান অবশ্য ফিরেছেন আইচ মোল্লার বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে। ১৭৫ বলে ৮ চারে সাজান ৬৬ রানের ইনিংসটি। মাঝে ইজহারুল হক নাভিদ (৩) ফেরেন আশরাফুলের তৃতীয় শিকার হয়ে।

এরপর দিনের বাকি সময় কাটিয়ে দেন বিলাল সামি (০*) ও ফয়সাল খান (০*)। ৮ উইকেটে ২২৬ রানে দিন শেষ করে ৬৪ রানে এগিয়ে আছে আফগানরা। বাংলাদেহ যুব দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট স্পিনার আশরাফুলের। একটি করে নেন আহসান হাবিব, মুশফিক হাসান, এসএম মেহরব ও আইচ মোল্লা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: দ্বিতীয় দিন শেষে

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ১ম ইনিংস: ১৬২

আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল ১ম ইনিংস: (আগের দিন ৪০/২) ২২৬/৮ (১১৩ ওভার) সুলিমান ৪, বিলাল সায়েদি ১০১(স্বেচ্ছা অবসর), ইশহাক ১৭, ইজাজ ১, বিলাল আহমেদ ২, জাহিদউল্লাহ ১, খারোতে ১৫, কামরান ৬৬, নাভিদ ৩,বিলাল সামি ০*, ফয়সাল ০*; হাবিব ২১-৩-৬৩-১, রিপন ১৭-৯-১৮-০, মুশফিক ১৭-৬-২৫-১, আশরাফুল ৩২-৭-৬৩-৩, মেহরব ১৫-১-৩৩-১, আইচ ৭-৪-৫-১, খালিদ ৪-০-১৪-০)।

আফগানিস্তান যুব দল ৬৪ রানে এগিয়ে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

চট্টগ্রামে আকবরদের আরও একটি সফল দিন

Read Next

মুম্বাইকে উড়িয়ে দিয়ে কোলকাতা উঠল পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে

Total
23
Share