সহজ জয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসের শীর্ষস্থান দখল

সহজ জয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসের শীর্ষস্থান দখল

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদকে হেসে-খেলে হারিয়ে ফের টেবিলের শীর্ষস্থান দখল করল দিল্লি ক্যাপিটালস। হায়দ্রাবাদের করা ১৩৪ রান ১৮ ওভারের আগেই টপকায় রিশাব পান্টের দল। ধাওয়ান, আইয়ার, পান্টের ব্যাটিং নৈপুণ্যে ৮ উইকেটের বড় জয়ে আইপিএলের দ্বিতীয় পর্ব শুরু দিল্লি ক্যাপিটালসের। তবে বল হাতে দাপট দেখিয়ে মাত্র ১২ রান খরচায় ২ উইকেট শিকার করা আনরিখ নরকিয়া পেলেন ম্যাচ সেরার পুরষ্কার।

২০২১ আইপিএলের ৩৩তম ম্যাচে সহজেই হার মানল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। ১৩ বল বাকি থাকতেই ৮ উইকেটে ম্যাচ জিতে আরও একবার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে পৌঁছে গেল রিশাব পান্টের দল। ৯ ম্যাচ খেলে ৭ জয়ে ১৪ পয়েন্ট তাঁদের। দীর্ঘসময় পর বাইশগজে ফিরেই অনবদ্য ব্যাটিং শ্রেয়াস আইয়ারের। অপরাজিত থাকেন ৪৭ রানে। ম্যাচ জেতান ছয় মেরে। রিশাব পান্টও অপরাজিত থাকেন ৩৫ রানে। এর আগে শিখর ধাওয়ানের ব্যাট থেকে আসে ৪২ রান।

সানরাইজার্সের হয়ে ওপেন করতে নামেন ডেভিড ওয়ার্নার ও ঋদ্ধিমান সাহা। কিন্তু প্রথম ওভারেই খাতা না খুলে আনরিখ নরকিয়ার শিকার হন ওয়ার্নার। ঋদ্ধি কয়েকটি বাউন্ডারি মারলেও বেশি সময় ক্রিজে থাকতে পারেননি। রাবাদার বলে ১৮ রান করে আউট হন তিনি।

২৬ বলে ১৮ রানের ইনিংসে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বিদায় নেন। মানিশ পান্ডের ব্যাট থেকে আসে ১৭ রান। রাবাদা তুলে নেন নিজের দ্বিতীয় উইকেট। রান পাননি কেদার যাদব (৩)। আক্সারের দ্বিতীয় শিকার হওয়ার আগে জেসন হোল্ডার করেন ১০ রান।

ইনিংসের শেষে দিকে আব্দুল সামাদ ২৮ ও রাশিদ খান ২২ রানের ইনিংস খেলে সম্মানজনক স্কোরে পৌছে দেন হায়দ্রাবাদকে। ৪১ রানের পার্টনারশিপ হয় তাঁদের। ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রান জমা হয় হায়দ্রাবাদের স্কোরবোর্ডে।

দিল্লির হয়ে বল হাতে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট কাগিসো রাবাদার দখলে। এছাড়া আনরিখ নরকিয়া ও আক্সার প্যাটেল নেন দু’টি করে উইকেট। ৪ ওভারের কোটায় কেবল ১২ রান খরচায় দাপট দেখান নরকিয়া।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দিল্লির দুই ওপেনার দারুণ শুরু করলে জুটি বেশি লম্বা হয়নি। খলিল আহমেদের হাতে আসে হায়দ্রাবাদের প্রথম ব্রেকথ্রু। ব্যক্তিগত ১১ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন পৃথ্বী শ।

ভাঙল শিখর ধাওয়ান ও শ্রেয়াস আইয়ারের জুটিও। ৪২ রানে রেখে ধাওয়ানকে আউট করলেন রাশিদ খান। এরপর আর কোন বোলারই কোন বিপদ ঘটাতে পারেনি দিল্লির ব্যাটিং অর্ডারে। ৪১ বলে ৪৭ রান করে অপরাজিত থাকেন শ্রেয়াস আইয়ার। এই ইনিংসে দু’টি ৪ ও দু’টি ছক্কা আসে তাঁর ব্যাট থেকে। মারমুখী মেজাজে ব্যাটিং করেন অধিনায়ক রিশাব পান্টও। তিন ৪ ও দু’টি ছক্কায় ২১ বলে ৩৫ রান করেন। শেষপর্যন্ত ক্রিজে থেকে দলের জয় নিশ্চিত করে আইয়ার-পান্ট জুটি। ১৩ বল বাকি থাকতেই ৮ উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় দিল্লি ক্যাপিটালস।

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে একটি করে উইকেট নেন খলিল আহমেদ ও রাশিদ খান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (৩৩তম ম্যাচ)

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদঃ ১৩৪/৯ (২০ ওভার) ওয়ার্নার ০, ঋদ্ধিমান ১৮, উইলিয়ামসন ১৮, মানিশ ১৭, সামাদ ২৮, হোল্ডার ১০, রাশিদ ২২; নরকিয়া ২/১২, রাবাদা ৩/৩৭, আক্সার ২/২১

দিল্লি ক্যাপিটালসঃ ১৩৯/২ (১৭.৫ ওভার) পৃথ্বী ১১, ধাওয়ান ৪২, আইয়ার ৪৭*, পান্ট ৩৫*; রাশিদ ১/২৬, খলিল ১/৩৩

ফলাফলঃ দিল্লি ক্যাপিটালস ৮ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ আনরিখ নরকিয়া (দিল্লি ক্যাপিটালস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সময়ের অভাবে বাতিলের খাতায় পড়ছে টাইগার যুবাদের পাকিস্তান সফরও

Read Next

আইপিএলে ফিরেই স্টয়নিসের চোট, দুশ্চিন্তা বেড়েছে অস্ট্রেলিয়ার

Total
7
Share