স্পোর্টিং উইকেটে বিশ্বকাপ চ্যালেঞ্জিং হবে বলছেন তামিম

চাপের মুখে তরুণদের দায়িত্ব নেওয়া মুগ্ধ করেছে তামিমকে

টানা জয়ের ধারায় আছে বাংলাদেশ, ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার পর সিরিজ জিতেছে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও। তবে বিশ্বকাপের আগে স্পোর্টিং উইকেটে না খেলায় প্রস্তুতি নিয়ে সংশয় আছে বিশ্লেষকদের। টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালও অনেকটা সেরকমই ভাবেন। স্পোর্টিং উইকেটে খেলা হলে বিশ্বকাপে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে বাংলাদেশকে এমনটাই ধারণা তামিমের।

অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১০ ম্যাচের ৯ টিই নিজেদের হোম কন্ডিশনের সুবিধা নিয়ে মন্থর উইকেটে খেলেছে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ড সিরিজের শেষ ম্যাচটি কিছুটা স্পোর্টিং হলেও হারতে হয়েছে স্বাগতিকদের।

তবে জয়ের ধারায় থেকে বিশ্বকাপে যাওয়াকে আত্মবিশ্বাসের রসদ হিসেবে দেখছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান সহ অনেকেই। আগেই নিজেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে সরিয়ে নেওয়া তামিম ইকবালও জয়কে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। তবে ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের স্পোর্টিং উইকেট চ্যালেঞ্জ জানাতে পারে সেটিও উল্লেখ করেছেন।

সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার, বর্তমানে ধারাভাষ্যকার রাসেল আরনল্ডের সাথে একটি ফেসবুক লাইভে তিনি বলেন, ‘প্রথম বাধাটা যে কোনো ভাবে হোক পার করতে হবে আমাদের, সেটা বাছাইপর্ব (প্রথম রাউন্ড)। কারণ, টি-টোয়েন্টিতে ওমান, স্কটল্যান্ডের মতো দলগুলো বেশ ধাঁধিয়ে দিতে পারে আপনাকে।’

‘মূল বিশ্বকাপে উইকেটটা বেশ আগ্রহের বিষয় হয়ে দাঁড়াবে। ভুলে গেলে চলবে না, আইপিএল হচ্ছে এখন। বিশ্বকাপের সময় উইকেট ক্লান্ত থাকতে পারে। স্পিনারদের ভূমিকা রাখার সুযোগ যদি থেকে থাকে, তাহলে আমার মনে হয় আমরা অবশ্যই ভালো করব। তবে উইকেট ভালো থাকলে বিশ্বকাপটা খুব চ্যালেঞ্জিং হবে আমাদের। ’

‘আমরা যথেষ্ট প্রস্তুতি নিয়ে বিশ্বকাপে যাচ্ছি। ম্যাচ জিতেছি, বড় দলগুলোকে হারিয়েছি। ম্যাচ জেতা গুরুত্বপূর্ণ। তবে আদর্শ প্রস্তুতি হতো যদি স্পোর্টিং উইকেটে খেলতে দেখতাম দলকে। কারণ বিশ্বকাপের বিষয়টাই তো আলাদা। বাংলাদেশ অবশ্য আত্মবিশ্বাস নিয়ে যাচ্ছে বিশ্বকাপে, এটা দলের জন্য বাড়তি রসদ।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

যে কারণে মাশরাফিকে মেন্টর করেনি বিসিবি

Read Next

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের নয়া কোচ সালাউদ্দিন

Total
26
Share