রুতুরাজের অনবদ্য ইনিংস, বোলারদের দাপট; শীর্ষে উঠল চেন্নাই

রুতুরাজের অনবদ্য ইনিংস, বোলারদের দাপট; শীর্ষে উঠল চেন্নাই

মাঠে ফিরছে আইপিএল মহাযজ্ঞ। ২০২১ আইপিএলের দ্বিতীয় পর্বের প্রথম ম্যাচেই মুম্বাইয়ের সঙ্গে লড়াইয়ে চেন্নাই। মুম্বাইয়ের বোলারদের দাপটের পর রুতুরাজ গায়কোয়াড়ের ব্যাটিং তান্ডব। রুতুরাজের অনবদ্য ৮৮* রানের ইনিংসে চেন্নাইয়ের সংগ্রহ ১৫৬। কাজে আসেনি সৌরভ তিওয়ারির ফিফটি। রুতুরাজের ব্যাটিংয়ের পর চাহার, ব্রাভোদের দাপুটে বোলিংয়ে ২০ রানে জিতল চেন্নাই।

চেন্নাইয়ের করা ১৫৬ রানের বিপরীতে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ২০ ওভারে থামে ১৩৬ রানে। ২০ রানের জয়ে দিল্লিকে টপকে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠল ধোনির চেন্নাই।

চেন্নাই বনাম মুম্বাই ম্যাচ দিয়ে আইপিএল এর দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচ শুরু হয়েছে। রোহিত শর্মা নেই মুম্বাই একাদশে, অধিনায়কের দায়িত্বে কাইরন পোলার্ড। দুবাইয়ে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নামার সিদ্ধান্ত নেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি। ৩ ওভারে স্কোরবোর্ডে ৭ রান তুলতেই নেই চেন্নাইয়ের ৪ ব্যাটসম্যান।

প্রথম ওভারেই শূন্য রানে ফিরে গেলেন ফাফ ডু’প্লেসিস। মুম্বাইকে প্রথম সাফল্য এনে দিলেন ট্রেন্ট বোল্ট। দ্বিতীয় ওভারে অ্যাডাম মিলনের বলে ক্যাচ তুলে মইন আলি ফিরেন; সেই শূন্য রানেই। এরপর মাথায় বলের আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হলেন আম্বাতি রাইডু (০)।

ট্রেন্ট বোল্টের বলে রাহুল চাহারের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে গেলেন সুরেশ রায়না (৪)। মাত্র ৩ রানে মাহেন্দ্র সিং ধোনির বিদায়ে পাওয়ার প্লে-তে চতুর্থ উইকেট হারায় সিএসকে।

ডু প্লেসিস, ধোনি, রায়নাদের ব্যর্থতা চাপা পড়ে গেল রুতুরাজের দৃঢ়তায়। বিপর্যয় কাটিয়ে চেন্নাই সুপার কিংস তুলল ১৫৬ রান। ৫৮ বলে অপরাজিত ৮৮ রান করে চেন্নাইয়ের নায়ক রুতুরাজ গায়কোয়াড়। ৯টি চার ও ৪টি ছয়ে সাজানো তাঁর এই অনবদ্য ইনিংস।

রুতুরাজকে যোগ্য সঙ্গ দেন রবীন্দ্র জাদেজা। ৮১ রানের পার্টনারশিপ গড়ে চেন্নাই ইনিংসের ভিত গড়েন ঋতুরাজ, জাদেজা। তবে প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে ২৬ রান আসে জাদেজার ব্যাট থেকে। শেষে ৮ বলে ২৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন ডোয়াইন ব্রাভো। ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৫৬ রান সিএসকের সংগ্রহে।

মুম্বাইয়ের হয়ে বলে হাতে দুটি করে উইকেট নেন বুমরাহ, বোল্ট ও মিলনে।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জয়ের জন্য প্রয়োজন ১৫৭ রান। ওপেনিংয়ে কুইন্টন ডি ককের সঙ্গী আনমোলপ্রীত সিং। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে দীপক চাহারের দ্বিতীয় বলে এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন কুইন্টন ডি’কক। ৩টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১১ বলে ১৭ রান করেন তিনি। ১৬ রান করা ওপেনার আনমোলপ্রীতকেও ফেরালেন চাহার। পরের ওভারেই শারদুল ঠাকুরের আক্রমণে ইনিংস বড় হয়নি সুরিয়াকুমার যাদবের (৩)।

ইশান কিশান উইকেটে থিতু হয়েও ব্যাট হাতে ব্যর্থ। ডিজে ব্রাভোর শিকার হয়ে ফেরার আগে ১০ বলে ১ চারে করেন ১১। সৌরভ তিওয়ারির সঙ্গে কাইরন পোলার্ডের গড়া জুটি স্থায়ী হয়নি বেশিক্ষণ। ২৯ রানের পার্টনারশিপ ভাঙে ব্যক্তিগত ১৫ রানে পোলার্ডের বিদায়ে। দ্বিতীয় স্পেলে ফিরেই দাপট দেখালেন জশ হ্যাজেলউড। রান আউটে কাটা পড়লেন ক্রুণাল পান্ডিয়া (৪)। ৯৪ রানে ৬ উইকেট নেই মুম্বাইয়ের।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ২৪ রান। ফিফটি পূর্ণ করলেও দলকে জেতাতে পারেননি সৌরভ তিওয়ারি। ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রানের বেশি করতে পারেনি চেন্নাই। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে ২০ রানে হারিয়ে আইপিএলের দ্বিতীয়ার্ধে যাত্রা শুরু করল সুপার কিংস।

চেন্নাইয়ের হয়ে বল হাতে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট ডোয়াইন ব্রাভোর এছাড়া দীপক চাহারের দখলে দুই উইকেট এবং হ্যাজলউড, শারদুলের শিকার করেন ১টি করে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (৩০তম ম্যাচ)

চেন্নাই সুপার কিংসঃ ১৫৬/৬ (২০ ওভার) রুতুরাজ ৮৮*, প্লেসিস ০, মইন ০, রাইডু ০, রায়না ৪, ধোনি ৩, জাদেজা ২৬, ব্রাভো ২৩, শারদুল ১*; মিলনে ২/২১, বুমরাহ ২/৩৩, বোল্ট ২/৩৫

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সঃ ১৩৬/৮ (২০ ওভার) কক ১৭, আনমোলপ্রীত ১৬, সুরিয়া ৩, ইশান ১১, পোলার্ড ১৫, সৌরভ ৫০, ক্রুণাল ৪, মিলনে ১৫; দীপক ২/১৯, ঠাকুর ১/২৯, ব্রাভো ৩/২৫, হ্যাজলউড ১/৩৪

ফলাফলঃ চেন্নাই সুপার কিংস ২০ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ রুতুরাজ গায়কোয়াড় (চেন্নাই সুপার কিংস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আইপিএলেও অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা ভিরাট কোহলির

Read Next

যে কারণে মাশরাফিকে মেন্টর করেনি বিসিবি

Total
11
Share