স্ত্রী’র ইচ্ছেপূরণ করে জাতীয় দলে ফিরতে চান নাসির হোসেন

বিয়ে নিয়ে বিতর্ক, মুখ খুললেন নাসির-তামিমা

২০১৮ সালে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা নাসির হোসেন সাম্প্রতিক সময়ে বেশি আলোচিত অক্রিকেটীয় কারণে। বিয়ে করে জীবনের নতুন ইনিংস শুরু করে গত বছর তুমুল বিতর্কিত হয়েছেন। তবে স্ত্রীর চাওয়া ছিল নাসির যেন আবারও জাতীয় দলের জার্সিতে ফেরেন। এই অলরাউন্ডার নিজেও স্ত্রীর ইচ্ছে পূরণে চেষ্টা করবেন বলে আরেক দফা জানালেন, যতদিন ক্রিকেট খেলবেন জাতীয় দলই যে তার স্বপ্ন।

সর্বশেষ প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে নাসিরকে দেখা যায় ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএলে)। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে চলতি বছর মাঠে গড়ানো এই টুর্নামেন্টে খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি নাসির।

আসন্ন জাতীয় লিগ দিয়ে মাঠে ফেরার অপেক্ষায় আছেন। অক্টোবরের ১৫-১৭ তারিখের মধ্যেই শুরু হতে পারে জাতীয় লিগ। এতদিন জাতীয় দলের খেলা থাকায় মিরপুরে অনুশীলনের সুযোগ পায়নি ঘরো লিগের ক্রিকেটাররা।

বর্তমানে ফাঁকা সময়ে সেটিই কাজে লাগাচ্ছে নাসির হোসেন সহ বেশিরভাগ ক্রিকেটার। আজ (১৫ সেপ্টেম্বর) মিরপুরে অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলেন নাসির।

স্ত্রীর ইচ্ছে পূরণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই আমি চেষ্টা করবো (স্ত্রীর ইচ্ছে পূরণ করতে)। যতদিন ক্রিকেট খেলবো আমি চেষ্টা করবো জাতীয় দলে কামব্যাক করতে। আমার মনে হয়, এটাই সব প্লেয়ারের স্বপ্ন। আমারও স্বপ্ন আবার যাতে জাতীয় দলে কামব্যাক করতে পারি।’

বর্তমান প্রতিদ্বন্দিতাপূর্ণ জাতীয় দলে ফিরতে নাসির কতটুকু চেষ্টা করছেন এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘ফেরার জন্য আসলে অবশ্যই ট্রেনিংয়ের কোনো বিকল্প নাই। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে ফিটনেসের ওপর বেশি কাজ করছি। যেহেতু করোনার জন্য আমরা (অনুশীলনের জন্য) উইকেট ওভাবে পাচ্ছি না। আমার বিশ্বাস, আমরা এখন উইকেট পাবো। তো অবশ্যই ব্যাটিং-বোলিং দুইটাই হবে।’

বাংলাদেশের জার্সিতে ১৯ টেস্ট, ৬৫ ওয়ানডে ও ৩১ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন নাসির। ২০১৮ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে শেষবার জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়িয়েছেন।

এবারের ঘরোয়া মৌসুমে নাসিরের লক্ষ্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ঘরোয়া লিগে আমি সবসময়ই চেষ্টা করি টপ রান গেটার হবো। এটাই সবসময় চেষ্টা করি। এবারও যখন (জাতীয় লিগ) শুরু হবে, এটাই আমার টার্গেট থাকবে যেনো আমি টপ রান গেটার হতে পারি।’

২৯ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার বলছেন ভক্তদের ভালোবাসার জবাব দিতে চান জাতীয় দলে ফিরেই, ‘তাদের ভালোবাসার প্রতিদান আমি জাতীয় দলে ব্যাক করে দিতে চাই। তাদের উদ্দেশ্যে আমি এতটুকুই বলবো যে, তারা সবসময় আমাকে সাপোর্ট করে আসছে। তাদের কাছে আমি দোয়া চাচ্ছি। ইন শা আল্লাহ আমি আবার জাতীয় দলে কামব্যাক করবো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

টি-টোয়েন্টিতে কুইন্টন ডি ককের ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাংকিং অবস্থান

Read Next

শরিফুলের আবদার রাখতেই তাসকিনের অমন উদযাপন

Total
49
Share