প্রোটিয়াদের হাতে হোয়াইটওয়াশড স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা

featured photo updated v 15

ঘরের মাঠেই হোয়াইটওয়াশ শ্রীলঙ্কা। সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে ১০ উইকেটে জিতে স্বাগতিক লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। শ্রীলঙ্কার করা ১২০ রান ডি কক, হেনড্রিকসের জোড়া ফিফটিতে সহজেই টপকায় প্রোটিয়ারা। ব্যাট হাতে পুরো সিরিজেই জ্বলে থাকা ওপেনার কুইন্টন ডি কক জিতলেন ম্যাচ সেরা ও সিরিজ সেরার পুরষ্কার।

নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১২০ রান করে শ্রীলঙ্কা। দক্ষিণ আফ্রিকার ওপেনিং জুটিই ছুঁয়ে ফেলে এই রান। ডি কক ও রেজা হেনড্রিকসের ১২১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে দক্ষিণ আফ্রিকার যেকোনো উইকেটেই সর্বোচ্চ। দক্ষিণ আফ্রিকার রেকর্ড গড়া জয়ে হোয়াইটওয়াশড শ্রীলঙ্কা।

আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের শুরুতেই বিপাকে পড়ে শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় ওভারের পঞ্চম বলে ১২ রান করা আভিষ্কা ফার্নান্দো কাগিসো রাবাদাকে ফিরতি ক্যাচ দেন। তিনে নেমে উইকেটে এসে যেন দাঁড়ানোর আগেই বিদায় নেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা (১)। পরের ওভারে ভানুকা রাজাপাকসে (৫) বোল্ড করে রাবাদা তুলে নেন নিজের দ্বিতীয় উইকেট।

কামিন্দু মেন্ডিসের ব্যাট থেকে আসে ১০ রান। এক প্রান্ত আগলে রেখে উইকেটে থাকা কুশল পেরেরাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন কেশব মহারাজ। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে ৩৩ বলে ৩ চারে ৩৯ রানের ইনিংস খেলেন পেরেরা। ফের ব্যর্থ ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (৪)। রান পাননি লাহিরু মাদুশঙ্কাও (১)।

অধিনায়ক দাসুন শানাকা বল খেয়ে উইকেটে থিতু হয়েও লম্বা করতে পারেননি ইনিংস। মুল্ডারের বলে ডুসেনের হাতে ক্যাচ তুলে ফেরার আগে ২৬ বলে তিনি করেন ১৮ রান। শেষ দিকে চামিকা করুনারত্নের ২৪ রানের ঝড়ো ইনিংসে ১২০ রানের সংগ্রহ পায় শ্রীলঙ্কা।

বল হাতে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ফোরটান ও রাবাদা শিকার করেন ২টি করে উইকেট। এছাড়া মহারাজ, মার্করাম ও মুল্ডারের ঝুলিতে যায় ১টি করে উইকেট।

১২১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। শুরু থেকেই দারুণ সব স্ট্রোক্স খেলতে থাকেন ওপেনার কুইন্টন ডি কক ও রেজা হেনড্রিকস। প্রথম পাওয়ার-প্লের ৬ ওভারের প্রোটিয়াদের সংগ্রহ ৪৩ রান।

লঙ্কান বোলারদের পাত্তা না দিয়ে ফিফটি তুলে নেন দুই ওপেনারই। ডি ককের ফিফটি পূর্ণ হয় ৪০ বলে। অপরদিকে হেনড্রিকস করেন ৩৮ বলে। দলের জয়ের বন্দরে নিয়ে যেতে কোন উইকেটই হারায়নি তাঁরা। ১০ উইকেট ও নির্ধারিত ওভারের ৩২ বল হাতে রেখেই শ্রীলঙ্কার করা ১২০ রান টপকায় কক-হেনড্রিকস জুটি। ৭ চারে ৪৬ বলে ৫৯ রানে অপরাজিত থাকেন কুইন্টন ডি কক। অপরদিকে, ৪২ বলে ৫ চার ও এক ছক্কায় ৫৬ করে অপরাজিত থাকেন রেজা হেনড্রিকস।

শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৫৯ রানের ইনিংসে ডি কক জিতেছেন ম্যাচ সেরার পুরষ্কার। সঙ্গে তাঁর হাতে ওঠে সিরিজ সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কারও। ৩ ম্যাচে মোট ১৫৩ রান (৫৯*, ৫৮* ও ৩৬) রান সংগ্রহ করেছেন প্রোটিয়া ওপেনার কুইন্টন ডি কক।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

শ্রীলঙ্কাঃ ১২০/৮ (২০ ওভার) পেরেরা ৩৯, আভিষ্কা ১২, ধনাঞ্জয়া ১, রাজাপাকসে ৫, কামিন্দু ১০, শানাকা ১৮, হাসারাঙ্গা ৪, মাদুশঙ্কা ১, চামিকা ২৪*, চামিরা ২*; ফোরটান ৪-০-২১-২, রাবাদা ৩-০-২৩-২, মার্করাম ২-০-৪-১, মহারাজ ৪-০-১-১৪-১, মুল্ডার ১-০-১১-১

দক্ষিণ আফ্রিকাঃ ১২১/০ (১৪.৪ ওভার) হেনড্রিকস ৫৬*, ডি কক ৫৯*; থিকশানা ৪-০-২৮-০, হাসারাঙ্গা ৪-০-৩৫-০, কামিন্দু ৩-০-২২-০, চামিরা ১-০-৯-০, চামিকা ১.৪-০-১৩-০, শানাকা ১-০-১৪-০

ফলাফলঃ দক্ষিণ আফ্রিকা ১০ উইকেটে জয়ী

সিরিজঃ ৩ ম্যাচের সিরিজ ৩-০ তে জিতেছে দক্ষিণ আফ্রিকা

ম্যাচ সেরাঃ কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা)

সিরিজ সেরাঃ কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা)

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

উচ্ছ্বসিত ফিল্যান্ডার, হাসনাইন-আফ্রিদির সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে আছেন

Read Next

বিস্ফোরক কামরান, বলছেন অবসর নিতে পারেন হাফিজ!

Total
1
Share