বিসিবির এফডিআরে ৯০০ কোটি টাকা

বিসিবির এফডিআরে ৯০০ কোটি টাকা

সরকার মনোনীত এক বছর ও দুই মেয়াদে নির্বাচিত বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। চলতি মাসেই শেষ হচ্ছে দ্বিতীয় মেয়াদের সময়কাল। আসন্ন নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন কিনা তা নিয়ে আছে সংশয়। তবে নিজে ক্ষমতায় থেকে বোর্ডকে অর্থনৈতিকভাবে কতটা সমৃদ্ধ করেছেন তুলে ধরেছেন তা।

আজ (৪ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে বিসিবির প্রয়াত পরিচালক আফজালুর রহমান সিনহার স্মরণে এক অনুষ্ঠানে পাপন জানান বর্তমানে বিসিবির এফডিআর ৯০০ কোটি টাকার।

তিনি বলেন,বিদেশি বড় বড় স্পন্সর বাদ দিয়ে সব দেশি স্পন্সর নিয়ে আমরা ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফদের বেতন বাড়িয়েছি। অন্তত দশ গুণ বেড়েছে। এত কিছু করার পরও গত দুই মেয়াদে আমাদের এফডিআর আছে প্রায় ৯০০ কোটি টাকার মত।’

‘প্রতি বছর এসব (সমালোচনা) অনেক শুনেছি। বিসিবি কত টাকা পেয়েছে আমাকে এটা বলুন। আগে একটা হেড কোচ থাকত। এখন ফিল্ডিং কোচ, বোলিং কোচ, ব্যাটিং কোচ, ট্রেনার- এসব শুধু জাতীয় দলের। তারপর রইল এইচপি, মহিলা দল, এমনকি অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচও তো বিদেশি। কি পরিমাণ খরচ বিসিবির, বুঝতে হবে।’

এদিকে ২ বছর পরই বিসিবি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) মত অর্থ পাবে আইসিসি থেকে সেটি নিশ্চিত করেন পাপন।

তার মতে, ‘অনেকে মনে করে বিসিবি এখন এত টাকা কই পায়, কোথা থেকে টাকা পায়, মানে কিসের টাকা এগুলো। আইসিসি যে অনুপাতে টাকা দিত সেই অনুপাতেই টাকা পাই এখনো। এটা বাড়বে সামনে। ২০২৩ থেকে আমরা অনেক বেশি টাকা পাব।’

‘এতদিন আমাদের যে অনুপাতে টাকা দিয়ে আসছিল ওটা ঠিক না। চ্যালেঞ্জ করেছিলাম এ নিয়ে কিন্তু ওদের ৮ বছরের চক্রে পড়ে গিয়েছিলাম বলে পাইনি। ২০২৩ সাল থেকে বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়ার সমান টাকা পাবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল চূড়ান্ত হচ্ছে আগামীকালই

Read Next

সাকিবের মত হাবিবুল বাশারের স্মৃতিতেও ফিরে এলো ২০০৭

Total
52
Share