সর্বসাধারণের খেলার জন্য মাঠ কিনবে বিসিবি

এজিএম নাজমুল হাসান পাপন

শিশু, কিশোরদের খেলাধুলার বড় মঞ্চ মাঠ। অথচ সময়ের বিবর্তনে মাঠ হারাচ্ছে। শহুরে জীবনে এক টুকরো খেলার উপযোগী মাঠ যেন সোনার হরিণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের নজর এড়ায়নি বিষয়টি। যে কারণে প্রয়োজনে মাঠ কিনতেও প্রস্তুত দেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

পাড়া, মহল্লা ও এলাকার খেলার মাঠে প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আলো ছড়ানোর নজির আছে অহরহ। বাংলাদেশ ক্রিকেটেও এমন উদাহরণের তালিকাটা হবে বেশ লম্বাই। তবে সাম্প্রতিক সময়ে শহুরে শিশু কিশোরদের খেলার মাঠই যে বড় সংকট! বানিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের রেষানলে নষ্ট হয়েছে হাজার হাজার মাঠ।

টানা দুইবার নির্বাচিত হওয়া বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে চলতি বছর। তার আগে আজ (২৬ আগস্ট) বর্তমান বোর্ডের সর্বশেষ বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজধানীর একটি হোটেলে এরপর সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন পাপন। মাঠ সংকটের প্রসঙ্গ তুলেই জানান খেলাধুলার প্রয়োজনে মাঠ কিনতে চান তারা।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বাধা হচ্ছে আমাদের খেলার মাঠ নেই। স্টেডিয়ামের কথা বলছি না। আমাদের স্টেডিয়ামের দরকার নেই, খেলার মাঠ দরকার। ঢাকা শহরে তো নেই, বাইরেও নেই। স্টেডিয়াম আছে, ওখানে সব ধরনের খেলাই হয়। আমাদের এমন মাঠ দরকার যেখানে যে কেউ ক্রিকেট খেলতে পারবে।’

ভারত, শ্রীলঙ্কার উদাহরণ টেনে আরও যোগ করেন, ‘শ্রীলঙ্কা ভারতে আছে, আমাদের খেলার জায়গা নেই। এজন্য সর্বশেষ বোর্ড মিটিংয়ে একটি কমিটি প্রস্তুত করেছে। আমরা খেলার মাঠ কিনতে ইচ্ছুক, যেখানেই পাই। অন্তত স্টেডিয়াম করব না, খেলার মাঠ করব যেখানে ক্রিকেট খেলতে পারবে।’

আরও পড়ুনঃ

তবে কি পরবর্তী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন না নাজমুল হাসান পাপন?

চলতি বছরই একই সময়ে বাংলাদেশের দুইটি জাতীয় দল খেলবে

ভবিষ্যতে বোর্ড সভাপতি ছাড়াই বিসিবি চলতে পারবে বিশ্বাস পাপনের

৩ বছরেই বিসিবি আয় করেছে আগের ৬ বছরের প্রায় সমান

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ভবিষ্যতে বোর্ড সভাপতি ছাড়াই বিসিবি চলতে পারবে বিশ্বাস পাপনের

Read Next

৩ বছরেই বিসিবি আয় করেছে আগের ৬ বছরের প্রায় সমান

Total
4
Share