হেডিংলিতে ভারতের ভুলে যাবার মত এক দিন

হেডিংলিতে ভারতের ভুলে যাবার মত এক দিন

২০১৯ সালের ২৫ আগস্ট বেন স্টোকসের বীরত্ব গাঁথা এক ইনিংসে ভর করে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হেডিংলি টেস্টে অবিশ্বাস্য এক জয় পায় ইংল্যান্ড। দুই বছর পর একই দিনে হেডিংলিতে ভারতের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্ট খেলতে নেমেও প্রথম দিন শেষে চালকের আসনে ইংলিশরা। ৪২ রানে লিড পাওয়া দিনে আগে ব্যাট করা ভারতকে লন্ডভন্ড করতে দুই সেশনও লাগেনি ইংলিশ পেসারদের। জিমি অ্যান্ডারসনের গড়ে দেওয়া ভীত কাজে লাগিয়ে অলআউট করেছে মাত্র ৭৮ রানে।

টস জিতে আগে ব্যাট করা ভারত ৪০.৪ ওভারে অলআউট হয়েছে ৭৮ রানে। যা প্রথম ইনিংসে ভারতের তৃতীয় সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ। ২০ রানও করতে পারেনি কোনো ব্যাটসম্যান, দুই অঙ্কই ছুঁয়েছে মাত্র দুইজন। লম্বা সময় এক পাশে আগলে রাখা রোহিত শর্মার ব্যাটে সর্বোচ্চ ১৯ রান।

জবাবে ইংলিশ দুই ওপেনার ররি বার্নস ও হাসিব হামিদের অবিচ্ছেদ্য ১২০ রানের জুটিতে ৪২ রানের লিড স্বাগতিকদের। ৫২ রানে বার্নস ও ৬০ রানে অপরাজিত আছেন হাসিব।

দিনের প্রথম ঘন্টায় নিজের প্রথম স্পেলেই ভারতকে সুইং বিষে নীল করে দেন অ্যান্ডারসন। লোকেশ রাহুলকে (০) ইনসুং ও চেতেশ্বর পুজারাকে (১) আউট সুইংয়ে অসহায় করে ক্যাচে পরিণত করান উইকেটের পেছনে জস বাটলারের।

৪ রানে ২ উইকেট হারানো ভারতকে পথ দেখাতে পারেননি অধিনায়ক ভিরাট কোহলিও। অ্যান্ডারসনের অফ স্টাম্পের বাইরের ফুল লেংথ বলে বেশ জোরে ব্যাট চালিয়েও ঠিকঠাক সংযগ করাতে পারেননি। ৭ রান করে ক্যাচ দেন উইকেটের পেছনে। আর তাতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার সেঞ্চুরিবিহীন টানা ইনিংস দাঁড়ালো ৫০ এ।

সেখান থেকে রোহিত শর্মা ও আজিঙ্কা রাহানে ৩৫ রানের জুটিতে বিপদ কাটানোর চেষ্টা করেন। তবে লাভ হয়নি খুব একটা, ওলি রবিনসন রাহানেকে (১৮) ফিরিয়ে ভাঙেন জুটি। ৫৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে লাঞ্চে ভারত।

তবে লাঞ্চের পর সফরকারীরা টিকেনি ১৫ ওভারও। রবিনসন, স্যাম কারেন, ক্রেইগ ওভারটনদের তোপে একে একে ফেরেন রিশাব পান্ট (২), রবীন্দ্র জাদেজা (৪), মোহাম্মদ শামি (০), বুমরাহ (০), মোহাম্মদ সিরাজরা ( ৩)।

সবচেয়ে বেশি ১০৫ বল খেলে ১৯ রান করা রোহিত শর্মা ফেরেন ওভারটনের শর্ট বলে মিড অনে ক্যাচ দিয়ে। ২৫ বলে ভারত হারিয়েছে নিজেদের শেষ ৬ উইকেট। ৮ ওভারে ৫ মেডেনসহ মাত্র ৬ রান খরচায় ৩ উইকেট অ্যান্ডারসনের। ওভারটন ৩ উইকেট নেন ১৪ রান খরচায়। ২ টি করে শিকার কারেন ও রবিনসনের।

ভারতকে ৭৮ রানে গুটিয়ে দিয়ে দুর্দান্ত এক দিন কাটালো ইংলিশ ওপেনাররা। ৪২ ওভার ব্যাট করে ১২০ রান তুলে অবিচ্ছেদ্য থেকে দিন শেষ করেন। ১১০ বলে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটি তোলা হাসিম হামিদ ১৩০ বলে ১১ চারে ৬০ রানে অপরাজিত আছেন। আরেক ওপেনার ররি বার্নস ১২৫ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় ৫২ রানে অপরাজিত।

প্রথম দিনেই প্রতিপক্ষ ওপেনাররা ভারতের প্রথম ইনিংসের রান টপকে যাওয়া জুটি গড়ার দ্বিতীয় নজির এটি। এর আগে ২০০৮ সালে আহমেদাবাদ টেস্টে ভারতকে ৭৬ রানে অলআউট করে দক্ষিণ আফ্রিকান দুই ওপেনার গ্রায়েম স্মিথ ও নেইল ম্যাকেঞ্জি তুলে ফেলে ৭৮ রান।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাবর আজম’দের সঙ্গে দেশে ফিরবে না পাকিস্তানের ৪ ক্রিকেটার

Read Next

অভিমানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছাড়ছেন শন উইলিয়ামস

Total
1
Share