শেষ দিনের রোমাঞ্চের সামনে জ্যামাইকা টেস্ট

দল হারলেও বাবর বললেন এটাই টেস্ট ক্রিকেটের সৌন্দর্য

দিনের শুরুতেই শাহীন শাহ আফ্রিদির বোলিং তান্ডব। একে একে ঝুলিতে তুলে নেন ৬ উইকেট, যা তাঁর ক্যারিয়ার সেরা। এরপর টি-টোয়েন্টির স্টাইলে ব্যাট করে জ্যামাইকা টেস্টে লিড বাড়ালো পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা। সিরিজ বাঁচাতে যে জয়ের বিকল্প নেই বাবর আজমদের। উইন্ডিজকে ৩২৯ রানের বড় টার্গেট দিয়েও নেই স্বস্তিতে। চতুর্থ দিনের শেষ ঘন্টায় ১ উইকেট হারিয়ে স্বাগতিকরা সংগ্রহ করেছে ৪৯ রান। জয়ের জন্য টেস্টের শেষ দিন প্রয়োজন ২৮০ রান। আর পাকিস্তানের প্রয়োজন ৯টি উইকেট।

শাহীন শাহ আফ্রিদির বোলিং তোপে ২য় ইনিংসে কোণঠাসা ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৭.৩-৭-৫১-৬, নিজের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং পারফর্ম্যান্সের দিন শাহীন শাহ আফ্রিদি উঠলেন অনন্য উচ্চতায়।

১৮ রানে অপরাজিত থেকে এদিন ব্যাট করতে নামা এনক্রুমাহ বোনার ফিরে যান ৩৭ রানে। রান পাননি কাইল মেয়ার্স (০)। ব্ল্যাকউডের ব্যাট থেকে আসে ৩৩ রান। এছাড়া জেসন হোল্ডার করেন ২৬ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ থামে ১৫০ রানে। প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান পায় ১৫২ রানের লিড।

পাকিস্তানের হয়ে বল হাতে শাহীন শাহ আফ্রিদির শিকার ৬ উইকেট। এছাড়া মোহাম্মদ আব্বাসের দখলে ৩ উইকেট ও ফাহিম আশরাফ নিয়েছেন ১টি উইকেট।

লিড বড় করতে পাকিস্তানের দুই ওপেনার শুরু থেকে টি-টোয়েন্টি মেজাজে ব্যাট করতে থাকেন। ফলে প্রথম ৬ ওভারেই পাকিস্তানের রান ৫০ ছাড়িয়ে। শেষ ১৩ বছরের মধ্যে টেস্টে এটিই দলীয় দ্রুততম অর্ধশত রান।

তবে ৭০ রানের ওপেনিং জুটি ভাঙ্গে আবিদ আলির বিদায়ে। আলজারি জোসেফের শিকার হয়ে আবিদ ফেরেন ২৩ বলে ৬ চারের সাহায্যে ২৯ রানে। এরপর ৩৭ রান করা ইমরান বাটকে ক্যাচ বানিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরান কাইল মেয়ার্স। আজহার আলির ব্যাট থেকে আসে ২২ রান। ১ ছয় ও ১ চারে অধিনায়ক বাবর আজম থাকেন ৩৩ রানের ইনিংসে।

ঝড়ো শুরু করা হাসান আলি এগোতে পারেননি বেশি দূর। হোল্ডারের শিকার হয়ে ফেরার আগে ২ ছয়ে করে ১৭ রান। ফাহিম আশরাফ আউট হন ৯ রানে। মোহাম্মদ রিজওয়ান অপরাজিত ১০ রানে। প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান ফাওয়াদ আলমকে ব্যাট করতে হয়নি। এর আগেই ১৭৬ রানে ইনিংস ঘোষণা করে পাকিস্তান। লিড দাঁড়ায় ৩২৮ এ।

৩২৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ২য় ইনিংসের শুরুটা ভালোই করেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনার। তবে রান আউটে কাটা পড়ে কাইরন পাওয়েল (২৩) ফিরলে জুটি ভাঙ্গে ৩৪ রানের। এরপর ক্রেইগ ব্র‍্যাথওয়েট ও নাইট ওয়াচম্যান হিসেবে নামা আলজারি জোসেফ আর কোনো বিপদ হতে দেননি দলের।

ব্র‍্যাথওয়েট অপরাজিত ১৭ রানে, আলজারি জোসেফ ব্যাট করছেন ৮ রান নিয়ে। দিনশেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৪৯ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রয়োজন আরও ২৮০ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (চতুর্থ দিন শেষে)

পাকিস্তান ১ম ইনিংসঃ ৩০২/৯ডিক্লে. (১১০ ওভার) আবিদ ১, ইমরান ১, আজহার ০, বাবর ৭৫, ফাওয়াদ ১২৪*, রিজওয়ান ৩১, ফাহিম ২৬, আফ্রিদি ১৯; রোচ ২৭-৯-৬৮-৩, সিলস ১৫-৪-৩১-৩, হোল্ডার ২৩-৯-৪৬-২

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংসঃ ১৫০/১০ (৫১.৩ ওভার) ব্র‍্যাথওয়েট ৪, পাওয়েল ৫, চেজ ১০, বোনার ৩৭, ব্ল্যাকউড ৩৩, হোল্ডার ২৬; আফ্রিদি ১৭.৩-৭-৫১-৬, আব্বাস ১৮-৬-৪৪-৩ ফাহিম ৭-৪-১৪-১

পাকিস্তান ২য় ইনিংসঃ ১৭৬/৬ডিক্লে. (২৭.২ ওভার) ইমরান ৩৭, আবিদ ২৯, আজহার ২২, বাবর ৩৩, হাসান ১৭, ফাহিম ৯, রিজওয়ান ১০*; জোসেফ ৪.২-০-২৪-২, হোল্ডার ৬-০-২৭-২, ব্র‍্যাথওয়েট ৪-০-২৮-১, মেয়ার্স ৭-০-৪৩-১

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২য় ইনিংসঃ ৪৯/১ (১৯ ওভার) ব্র‍্যাথওয়েট ১৭*, পাওয়েল ২৩, জোসেফ ৮*

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়াকে হারতে দেখাটা নিউজিল্যান্ডের জন্য বোনাস

Read Next

করোনা প্রভাবে এবার পেছাচ্ছে ‘এ’ দলের সিরিজও

Total
1
Share