ট্রল সংস্কৃতি পছন্দ না মিঠুনের, জবাব দিতে চান রান করে

মিঠুন

বাংলাদেশ ক্রিকেটের মোহাম্মদ মিঠুন বেশ পরিচিত মুখ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তবে যতটা মাঠের পারফরম্যান্স দিয়ে, তার থেকে বেশি ট্রল ও মিমের শিকার। ফেসবুক কিংবা টুইটার যেকোন অনলাইন প্ল্যাটফর্মে মিঠুনকে রীতিমতো ব্যঙ্গ করছেন বাংলাদেশি সমর্থকরা। আগেও এই প্রসঙ্গে কথা বলেছেন মিঠুন, তবে এবার জানালেন এটি তাঁর জন্য অপমানজনক! সমালোচনার নামে ক্রিকেটারদের ব্যঙ্গ করার সংস্কৃতি পছন্দ করছেন না মিঠুন।

মাঠে বাজে পারফরম্যান্সের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রায়শই তিক্ত সমালোচনার শিকার হন মিঠুন। ফেসবুকে মিঠুনকে নিয়ে সীমাহীন ট্রল শুরু হয়। স্যার, লর্ড এমনকি আরও অশালীন শব্দ দিয়ে জুড়ে দেওয়া হয় মিঠুনের ছবির সঙ্গে। ট্রল করতে গিয়ে ছবি এডিট করে বা অনলাইনের কমেন্ট এডিট করে মানহানিকর উপস্থাপনার মাধ্যমে হয়রানি করা হয়।

সম্প্রতি ক্রিকেটবিষয়ক সংবাদমাধ্যম ইএসপিএনক্রিকইনফোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অনলাইনে ট্রল সম্পর্কে মোহাম্মদ মিঠুন বলেছেন,

‘লোকেরা যখন আপনাকে রসিকতায় পরিণত করার চেষ্টা করে তখন এটি অপমানজনক। কারো এমন করার অধিকার নেই। আপনি একজন মানুষ হিসেবে এই ধরনের আচরণ ডিজার্ভ করেন না। আমি শুধু একজন জাতীয় ক্রিকেটারের কথা বলছি না। এটি সবার জন্য প্রযোজ্য৷’

‘সিনিয়র ক্রিকেটাররা এর আগে অনলাইন ট্রল নিয়ে অনেকে কথা বলেছে। তবে কোন কিছুই পরিবর্তন হয়নি। আমার মনে হয়, যারা আমাকে নিয়ে মজা করে তাঁদের মূলত ক্রিকেট সম্পর্কে জ্ঞান নেই। আমি আমাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে দূরে রাখতে পারি। কিন্তু আপনি কি সবকিছু এড়িয়ে চলতে পারবেন? আপনার বন্ধু-বান্ধবই আপনাকে সেগুলো দেখিয়ে দেবে। ভারতের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের টেস্ট সিরিজের আগে দিনেশ কার্তিকের সঙ্গে ভিরাট কোহলির একটি সাক্ষাৎকার দেখেছি। আমি কোহলির সঙ্গে একমত যে যারা তাঁকে অপমান করে তাঁদের তিনি কোন গুরুত্বই দেন না।’

ব্যাট হাতে রান করেই ট্রলের জবাব দিতে চান মিঠুন,

‘এখন আমি মনে করি, একটা ভাল অবস্থানে রয়েছি। পুরো ব্যাপারটিও বুঝতে পেরেছি। রান করবেন তো দলে জায়গা পাবেন। রান করবেন না তো ছুড়ে ফেলা দেওয়া হবে। সমর্থকরাও আপনাকে নিয়ে ব্যঙ্গ করবে। একই সাথে আমি আমার খেলায় আরো মনোযোগি হতে চাই।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ফাওয়াদ আলমে মুগ্ধ শোয়েব আখতার

Read Next

বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়াকে হারতে দেখাটা নিউজিল্যান্ডের জন্য বোনাস

Total
24
Share