সমর্থকদের বিশ্বকাপে সেমিতে যেয়ে থামল বাংলাদেশ

সমর্থকদের বিশ্বকাপে সেমিতে যেয়ে থামল বাংলাদেশ

সমর্থকদের বলা হয়ে থাকে খেলার প্রাণ। এবারে সেই সমর্থকরাই ভূমিকা বদলে হয়েছিলেন খেলোয়াড়। সমর্থকদের অংশগ্রহণে মাঠে গড়িয়েছিল বিশ্বকাপ। ৬ দলের লড়াইয়ে ছিল বাংলাদেশের নামও।

সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানে অক্টোবরে শুরু হচ্ছে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এর আগেই অবশ্য আর একটি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়ে গেল! সমর্থকদের বিশ্বকাপ নিয়ে হাজির হয়েছিল ইংল্যান্ডের সমর্থক গোষ্ঠী বার্মি আর্মি।

প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ডের বার্মি আর্মির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে ক্রিকেট সিক্সেস ফ্যান্স ওয়ার্ল্ড কাপ। লন্ডনের অক্সফোর্ডে এসটন রোয়্যান্ট ক্রিকেট ক্লাব মাঠে এই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেছিল ক্রিকেট সমর্থকদের সংগঠন গুলো। বাংলাদেশ থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট সাপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএসএ)-এর হয়ে এই বিশ্বকাপে প্রতিনিধিত্ব করেছে বিসিএসএ ইউকে। অন্য দেশ গুলোর মধ্যে অংশগ্রহণ করে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের হয়ে বার্মি আর্মি, ভারতের হয়ে ভারত আর্মি, ওয়ার্ল্ড ইলেভেন (দক্ষিণ আফ্রিকা), অস্ট্রেলিয়ার হয়ে বাজি স্মাগলার ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে বারবাডোস ট্যুরিজম টিম।

১ দিনেই শেষ হওয়া এই টুর্নামেন্টে ট্রফি জিতেছে বার্বাডোস। ফাইনালে মুখোমুখি হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বারবাডোস ট্যুরিজম টিম ও ওয়ার্ল্ড ইলেভেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)। শক্তিশালী বারবাডোস ট্যুরিজম টিমের কাছে হেরে যায় ওয়ার্ল্ড ইলেভেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)। প্রথম বারের মতো ক্রিকেট সিক্সেস ফ্যানস ওয়ার্ল্ড কাপ বিজয়ী হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বারবাডোস ট্যুরিজম টিম।

বিসিএসএ এই টুর্নামেন্টে গ্রুপ পর্বে অস্ট্রেলিয়ার বাজি স্মাগলার, ইংল্যান্ডের বার্মি আর্মি, ভারতের ভারত আর্মি ও ওয়ার্ল্ড ইলেভেন (দক্ষিণ আফ্রিকা) কে হারিয়ে সেমি ফাইনালে উঠে। সেমি ফাইনালে ওয়ার্ল্ড ইলেভেন (দক্ষিণ আফ্রিকা) এর কাছে হেরে বিদায় নিলেও পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে বিসিএসএ দারুণ দাপট দেখায়।

বিসিএসএ এর হয়ে খেলায় অংশগ্রহণ করেছিলেন বিসিএসএ ইউকে থেকে আবদুস সালাম (বিসিএসএ ইউকে প্রেসিডেন্ট), জাওয়ার আলী (বিসিএসএ ইউকে সেক্রেটারি), আয়াজ করিম (বিসিএসএ ইউকে জয়েন্ট সেক্রেটারি), সালমান, সাইফুর, আমীন, হাসান, সাজেদুল, জুয়েল রায়, শান্ত।

স্বাধীনতার ৫০ বছর সুবর্ণজয়ন্তীতে বিসিএসএ তাদের জার্সিতে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর সুবর্ণজয়ন্তী বিশেষ লোগো ব্যবহার করেছিল। প্রতিটি জার্সিতে ব্যবহার করা হয়েছিল বিশেষ জার্সি নাম্বার, যা ফুটিয়ে তুলেছে বাংলাদেশের স্বাধীনতার অর্জনের বিশেষ সময় ও বিশেষ মুহূর্ত কে। জার্সি নাম্বার গুলো হচ্ছে- ২১ (২১ ফেব্রুয়ারি, মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস), ১৫ (১৫ আগস্ট, ১৯৭৫, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের মৃত্যু দিন), ৭১ (১৯৭১ সাল, মহান মুক্তিযুদ্ধের বছর), ৫২ (১৯৫২, মহান ভাষা আন্দোলনের বছর), ৮ (৮ জানুয়ারি, ১৯৭২, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের কারামুক্তি দিবস), ৭ (৭ মার্চ, ১৯৭১, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের কালজয়ী ভাষণের দিন), ২৫ ( ২৫ মার্চ, ১৯৭১ গণহত্যা দিবস, কালরাত), ২৬ (২৬ মার্চ, ১৯৭১ মহান স্বাধীনতা দিবস)।

সমর্থকদের এই বিশ্বকাপে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ক্রিকেটার জোয়েল গার্নার ও ইংল্যান্ডের বার্মি আর্মির প্রতিষ্ঠাতা পল বার্নহাম।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

কন্ডিশনের দোহাই দিয়ে সৌম্যকে আগলে রাখলেন প্রধান নির্বাচক

Read Next

বাবর-ফাওয়াদ জুটিতে উদ্ধার পাকিস্তান

Total
10
Share