‘কোহলির মুখের ভাষা সবচেয়ে খারাপ’, তোপে পড়ে নিকের টুইট ডিলিট

এক ম্যাচে জয়ী নির্ধারণ, পছন্দ নয় কোহলির

ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ক্রিকেটার নিক কম্পটন ভারত অধিনায়ক ভিরাট কোহলিকে ক্রিকেট দুনিয়ার ‘সবচেয়ে বাজে মুখের ব্যক্তি’ বলে অভিহিত করেন। এবং ইংল্যান্ড টেস্ট অধিনায়ক জো রুট, নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এবং কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারের প্রশংসা করেন কোহলির উদাহরণ টেনে।

টেস্ট ক্রিকেট মানেই তর্ক-বিতর্ক। কথা কাটাকাটি, স্লেজিং আর উত্তেজনা প্রতি মুহূর্তে। তবে এক্ষেত্রে সবার গুরু বলা চলে ভিরাট কোহলিকেই। ইডেন গার্ডেনস থেকে লর্ডস কোহলির আগ্রাসী মেজাজের সামনে পড়তে হয়েছে বহু দেশের বহু ক্রিকেটারকে। তবে এটিও টেস্ট ক্রিকেটের সৌন্দর্যেরই অংশ।

সম্প্রতি শেষ হওয়া ইংল্যান্ড-ভারত দ্বিতীয় টেস্টের পর ভারত অধিনায়ক ভিরাট কোহলির মুখের ভাষা সবচেয়ে খারাপ আখ্যা দিয়ে টুইটারে এক পোস্ট করেন নিক কম্পটন। কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার, জো রুট ও কেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে তুলনা টেনে কোহলির সমালোচনায় মাতেন। এর পিছনে রয়েছে কারণও, ২০১২ সালে ভারতের বিরুদ্ধে টেস্টে কোহলির স্লেজিংয়ের শিকার হতে হয় কম্পটনকে।

টুইট বার্তায় প্রাক্তন ইংলিশ ব্যাটসম্যান নিক কম্পটন লিখেন,

‘কোহলি কি ক্রিকেট বিশ্বের সবথেকে খারাপ কথা বলা ব্যক্তি নয়! ২০১২ সালে আমি যে তাঁর বাজে ব্যবহারের মুখোমুখি হয়েছিলাম, তা কখনই ভুলব না। আমি মনে করি এইভাবে আমাকে মৌখিক হেনস্থা করে ও নিজেই নিজেকে ছোট করেছে। এই ঘটনা, প্রমাণ করে কোহলির তুলনায় রুট, টেন্ডুলকার, উইলিয়ামসনরা কত ভদ্র ও নম্র ক্রিকেটার, তেমনই মাথা তাঁদের।’

Screenshot 20210819 150110 Messenger

কিন্তু কোহলিকে নিয়ে এই টুইটের পর নিক কম্পটন ভারতীয় সমর্থকের কড়া সমালোচনার শিকার হন। তোপে পড়ে পরবর্তীতে তিনি টুইটটি সরিয়ে টুইটার থেকে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

তালেবান ইস্যুতে নিউজিল্যান্ডের পাকিস্তান সফর অনিশ্চিত

Read Next

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের স্কোয়াড ঘোষণা

Total
16
Share