টেস্ট ক্রিকেটের রূপে মুগ্ধ মুশফিক, আফ্রিদি, বিশপরা

লর্ডসে ক্ল্যাসিক টেস্ট, শেষ হাসি ভারতের

ক্রিকেটে সবসময়ই সর্বোচ্চ সৌন্দর্যের অধিকারী টেস্ট ক্রিকেট। সম্প্রতি রোমাঞ্চকর ও উত্তেজনাকর দু’টি টেস্ট শেষ হয়েছে লর্ডস ও জ্যামাইকাতে। জ্যামাইকাতে শেষের নাটকীয়তায় পাকিস্তানকে হারাল স্বাগতিক উইন্ডিজ। এরপর শামি, বুমরাহ, সিরাজদের বীরত্বে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে লর্ডসে রূপকথা লিখল ভারত। টেস্ট ক্রিকেটের এমন সৌন্দর্যে মুগ্ধ যেন পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। মুশফিক থেকে শুরু করে কিংবদন্তি ক্রিকেটাররাও টেস্ট ক্রিকেটের বন্দনায় মুখর।

বিদেশের মাটিতে কোহলিদের অন্যতম সেরা টেস্ট জয়। লর্ডসে রূপকথার জয় ছিনিয়ে নিল ভারত। ইংলিশদের প্রতিরোধ গুঁড়িয়ে ১৫১ রানে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট জিতে ভিরাট কোহলিরা। জসপ্রীত বুমরার সঙ্গে জুটি বেঁধে নবম উইকেটে ৮৯ রান যোগ করেন মোহাম্মদ শামি। নিজের অর্ধশতরানও পূরণ করেন। ইংল্যান্ডের মাটিতে নবম উইকেটে ভারতের সর্বোচ্চ রানের পার্টনারশিপ এটি। যার জন্য ইংল্যান্ডকে ২৭২ রানের লক্ষ্যমাত্রা দিতে পারে ভারত। কিন্তু ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১২০ রানেই দ্বিতীয় ইনিংসে অল আউট হয়ে যায় জো রুটের দল।

তবে ম্যাচের রাশ নাটকীয়ভাবে পেন্ডুলামের মতো একবার ভারতের দিকে ঝুঁকেছে, তো পরের মুহূর্তেই ইংল্যান্ডের দিকে। শেষ দিকে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন ঘটায় ভারত। প্রথম ইনিংসে রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুলের ব্যাটিংয়ে ভারতকে সুবিধাজনক জায়গায় রেখেছিল। তবে ইংল্যান্ডকে লড়াইয়ে ফিরিয়েছিল অধিনায়ক জো রুটের অনবদ্য সেঞ্চুরি। একটা সময় ইংল্যান্ডের পাল্লায় ওজন ছিল। ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের টপ অর্ডার ব্যাটিংয়ে ধস নামে। তবে লোয়ার অর্ডার অবিশ্বাস্য লড়াই করে। মোহাম্মদ শামি ৫৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। জসপ্রীত বুমরাহ মূল্যবান ৩৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন।

অপরদিকে কেমার রোচের বীরত্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজ পায় রোমাঞ্চকর জয়। কিংস্টন টেস্টে শেষের নাটকীয়তায় পাকিস্তানকে ১ উইকেটে হারায় ক্যারিবীয়রা। দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৫ উইকেট নেওয়া জেইডেন সিলস অবশ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ের পথটা আগেই সহজ করে দিয়েছিলেন। জিতেছেন ম্যাচ সেরার পুরষ্কারও।

একপর্যায়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর ৯ উইকেটে ১৫১। জয় থেকে তথনও ১৭ রান দূরে ক্যারিবিয়ানরা। এমন পরিস্থিতি থেকে কেমার রোচ লড়াই চালান শেষ ব্যাটসম্যান জয়ডন সিলসকে নিয়ে। শেষমেশ ৯ উইকেটে ১৬৮ রান তুলে ১ উইকেটের জয় পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রোচ ৩০ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেন। সিলস অপরাজিত থাকেন ২ রান করে।

 

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ভারত-শ্রীলঙ্কা সফল সিরিজ, দ্রাবিড়কে এসএলসির ধন্যবাদ

Read Next

জো রুট ছাড়া ইংল্যান্ডের সেঞ্চুরি করার মত ব্যাটসম্যান দেখেন না শচীন

Total
23
Share