লর্ডসে শেষ দিনে রোমাঞ্চের অপেক্ষা

লর্ডসে শেষ দিনে রোমাঞ্চের অপেক্ষা

লর্ডস টেস্টের প্রথম দুই দিন এগিয়ে থাকা ভারত পিছিয়ে পড়েছে পরের দুই দিনে। মার্ক উডের গতির ঝড়, মাঝে অজিঙ্কা রাহানে-চেতেশ্বর পূজারার শত রানের জুটি ও শেষ বিকেলে মইন আলির স্পিন ঘূর্ণি। তিন সেশনে ভিন্ন ভিন্ন স্বাদে চতুর্থ দিন শেষে সুবিধাজনক অবস্থায় নেই ভিরাট কোহলির দল। ২৭ রানে পিছিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে তুলেছে ১৮২ রান। হাতে ৪ উইকেট নিয়ে লিড ১৫৪ রানের।

প্রথম ইনিংসে ভারতের ৩৬৪ রানের জবাবে অধিনায়ক জো রুটের হার না মানা ১৮০ রানে ইংলিশদের সংগ্রহ ৩৯১। তৃতীয় দিন শেষ সেশনে অলআউট হয়ে লিড পেয়েছিল ২৭ রানের। তৃতীয় দিন আর ব্যাট করেনি ভারত।

তবে গতকাল (১৫ আগস্ট) চতুর্থ দিন ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই মার্ক উডের তোপের মুখে পড়তে হয়। ২৭ রানেই উড তুলে নেনে প্রথম ইনিংসে সফল দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল (৫) ও রোহিত শর্মাকে (২১)। রাহুল ও রোহিত প্রথম ইনিংসে করেছেন যথাক্রমে ১২৯ ও ৮৩ রান।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পর অধিনায়ক ভিরাট কোহলি ও চেতেশ্বর পূজারার হাল ধরার চেষ্টা। তবে স্যাম কারেনের অ্যাঙ্গেল বদলে করা ফুলার লেংথের অফ স্টাম্পের বেশ বাইরের বল খোঁচা দেন কোহলি। ২০ রান করে উইকেটের পেছনে ক্যাচে পরিণত হলে ভারত কাপ্তানের টানা সেঞ্চুরিবিহীন ইনিংস বেড়ে দাঁড়ালো ৪৯।

২০১৯ সালে কোলকাতায় গোলাপি বল টেস্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে হাঁকানো সেঞ্চুরিটিই সব ফরম্যাট মিলিয়ে এখনো পর্যন্ত তার সর্বশেষ সেঞ্চুরি। কোহলির বিদায়ে ৩ উইকেটে ৫৬ রান নিয়ে লাঞ্চে যায় ভারত।

লাঞ্চের পরের সেশনে কোনো উইকেট হারায়নি সফরকারীরা। পূজারা-রাহানে খেলেছেন দেখেশুনে। চা বিরতির আগে ভারতের স্কোরবোর্ডে ৩ উইকেটে ১০৫ রান। পূজারা ২৯ ও রাহানে ২৪ রানে অপরাজিত ছিলেন।

চা বিরতির পর ফিফটির দেখা পান রাহানে, ১২৫ বলে ৫ চারে ছুঁয়েছেন ক্যারিয়ারের ২৪তম ফিফটি। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেওয়া পূজারাকে শরীর তাক করা শর্ট বলে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন মার্ক উড। ভেঙেছেন জমে যাওয়া ঠিক ১০০ রানের জুটি। ২০৬ বল ও ৪ ঘন্টার বেশি সময় ক্রিজে কাটিয়ে পূজারার ব্যাটে ৪৫ রান।

মইন আলির নিরীহ এক ডেলিভারিতে অলস ভঙ্গিতে খোঁচা মেরে দারুণ সম্ভাবনাময় ইনিংসের ইতি টানেন রাহানে। পূজারার মত ৪ ঘন্টার বেশি সময় ক্রিজে থেকে ১৪৬ বলে ৫ চারে সাজান ৬১ রানের ইনিংসটি।

রবীন্দ্র জাদেজাকে (৫ বলে ৩) দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করেন দ্রুতই ফেরান মইন। ১৭৫ রানেই ৬ উইকেট হারায় ভারত। আলোক স্বল্পতায় শেষ পর্যন্ত ৮২ ওভার খেলা মাঠে গড়ায়। ভারত দিন শেষ করে ৬ উইকেটে ১৮১ রান তুলে। ১৪ রানে রিশাব পান্ট ও ৪ রানে ইশান্ত শর্মা অপরাজিত।

দ্বিতীয় নতুন বল নেওয়ার সুযোগ আসলেও এদিন আর তা নেয়নি ইংল্যান্ড। পরদিন নতুন বলে জিমি অ্যান্ডারসন, মার্ক উড, ওলি রবিনসনকে দিয়ে বিধ্বস্ত করার পরিকল্পনাই ইংলিশ অধিনায়ক জো রুটের। ১৫৪ রানের লিড পাওয়া ভারতকে যত কম রানে আটকাবে ততই জয়ের পথটা যে মসৃণ হয় স্বাগতিকদের।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

স্কোয়াড ইস্যুতে আইসিসির সিদ্ধান্তে বিসিবির অসন্তোষ

Read Next

বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ উঠল ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে

Total
1
Share