স্কোয়াড ইস্যুতে আইসিসির সিদ্ধান্তে বিসিবির অসন্তোষ

স্কোয়াড ইস্যুতে আইসিসির সিদ্ধান্তে বিসিবির অসন্তোষ

করোনা মহামারীর সময়েও আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াডে ১৫ জন খেলোয়াড় ও ৮ জন অফিশিয়ালকে অনুমোদন দিচ্ছে আইসিসি। তবে চাইলেই দলগুলো অতিরিক্ত খোলোয়াড় ও অফিশিয়াল নিয়ে যেতে পারবে, যাদের সবাইকে থাকতে হবে জৈব সুরক্ষা বলয়ে। এমনকি খরচও বহন করতে হবে সংশ্লিষ্ট বোর্ডকে। আর আইসিসির এমন সিদ্ধান্তে কিছুটা হতাশই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

স্বাভাবিক সময়ের আইসিসি ইভেন্টেও ১৫ জন খেলোয়াড় স্কোয়াডে রাখার অনুমতি ছিল। তবে এবারের পরিস্থিতি ভিন্ন হওয়ার পরেও স্কোয়াডে সদস্য সংখ্যা আগের মত থাকাটা অস্বাভাবিক। বিশেষ করে বাড়তি খেলোয়াড়ের খরচ যখন বোর্ডগুলোকে বহন করতে হচ্ছে।

অক্টোবর-নভেম্বরে সংযুক্ত আর আমিরাত ও ওমানে অনুষ্ঠিত হবে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ১০ সেপ্টেম্বরের আগে বোর্ডগুলোকে স্কোয়াড জমা দিতেও বলেছে আইসিসি।

আজ (১৫ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি শেষে মিরপুরে সাংবাদিকদের বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান বলেন স্কোয়াডে সদস্য সংখ্যা করোনাকালীন সময়ে কমই হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই কম, আমার মনে হয়। মহামারীর কারণে তাদের অন্য নিয়ম থাকা উচিৎ ছিল, ব্যাকআপ খেলোয়াড় নেওয়ার নিয়ম রাখা উচিৎ ছিল। বাড়তি খেলোয়াড় নিলে নিজ নিজ খরচে নিতে হবে। সেটা করতে হচ্ছে।’

‘মহামারীর জন্য আরও ১-২ বছর দেখা উচিৎ এবং স্কোয়াড আরও বড় রাখা হলে ভালো হত। তবে সুযোগ আছে, আপনি নিজের খরচে নিয়ে যেতে পারবেন।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

যোগ্যতা থাকা স্বত্বেও অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডে আমন্ত্রণ পায়না বাংলাদেশ

Read Next

লর্ডসে শেষ দিনে রোমাঞ্চের অপেক্ষা

Total
1
Share