টি-টোয়েন্টিতেও জয়ে শুরু ভারতের

টি-টোয়েন্টিতেও জয়ে শুরু ভারতের

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেওয়ার পর এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের পথে এক ধাপ এগিয়ে গেল ভারত। অভিজ্ঞ ভুবনেশ্বর কুমারের চৌকস বোলিং ও ইনফর্ম সুরিয়া কুমার যাদবের হাফ সেঞ্চুরিতে কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের ১ম ম্যাচে ভারত ৩৮ রানে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে।

দলের কোচ যখন রাহুল দ্রাবিড়ের মত লিজেন্ড ব্যাটসম্যান এবং অধিনায়ক যখন শিখর ধাওয়ানের মত অভিজ্ঞ ওপেনার, তখন ভারত আনকোরা দল হলেও পারফরম্যান্সের ব্যাঘাত ঘটবে না,সেটাই স্বাভাবিক। দাপুটে পারফরম্যান্স উপহার দিয়েই জয় ছিনিয়ে নিয়েছে ভারত।

টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ভারত প্রথম বলেই অভিষিক্ত পৃথ্বী শকে হারায়। তবে শিখর ধাওয়ান ও সাঞ্জু স্যামসনের ব্যাটে চড়ে ভালো সংগ্রহের পথে এগিয়ে যেতে থাকে ভারত।

স্যামসন ২৭ রান করে আউট হওয়ার পর ক্রিজে আসেন সুরিয়া কুমার। ওয়ানডে সিরিজে হয়েছিলেন সিরিজ সেরা। টি-টোয়েন্টিতে নিজের ব্যাটিং ঝলক উপহার দিলেন এই বুদ্ধিদীপ্ত ব্যাটসম্যান। মাত্র ৪ ম্যাচে খেলেই ক্যারিয়ারের ২য় হাস সেঞ্চুরি তুলে নিলেন। তবে হাফ সেঞ্চুরি করার পরের বলে আউট হয়ে যান তিনি। এছাড়া শিখর ধাওয়ান ৪৬ রান করেন।

শেষদিকে ইশান কিশানের অপরাজিত ২০ রানের কল্যাণে ভারত ৫ উইকেটে ১৬৪ রান করতে সমর্থ হয়।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা এবং দুশমান্থ চামিরা ২টি করে উইকেট পান।

১৬৫ রানের টার্গেটে খেলতে নামা শ্রীলঙ্কা ইনফর্ম আভিষ্কা ফার্নান্দোর কল্যাণে ভালো সূচনাই করেছিল। তবে ফার্নান্দোকে ব্যক্তিগত ২৬ রানে হারানোর পর ভারতীয় বোলারদের সামনে আর দাঁড়াতে পারেনি শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানরা। চারিথ আসালঙ্কা সর্বোচ্চ ৪৪ রান করে লড়াই চালিয়ে গেলেও তা দলের পরাজয় এড়াতে সচেষ্ট ছিল না। ৯ বল বাকি থাকতে ১২৬ রানে অলআউট হয়ে যায় লঙ্কানরা।

অনেকদিন পরে টি-টোয়েন্টি দলে ফিরেই নিজেকে অন্যমাত্রায় নিয়ে গেলেন ভুবনেশ্বর। সুইং, স্লোয়ার, কাটার, নাকাল বলের সম্মিলিত প্রয়াসে মাত্র ২২ রান দিয়ে প্রতিপক্ষের ৪টি উইকেট নেন তিনি। ম্যাচ সেরার পুরষ্কারও তার হাতে যায়।

২য় ওয়ানডে ম্যাচের জয়ের নায়ক দীপক চাহার এদিন খেলার মাঝের ১ ওভারে আসালঙ্কা ও হাসারাঙ্গার মূল্যবান ২টি উইকেট নিয়ে ভারতের জয়ের পথ প্রশস্ত করেন। এছাড়া ভারতের বাকি ৪ বোলারও ১টি করে উইকেট পান।

সিরিজের ২য় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ একই ভেন্যুতে ২৭ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ভারতঃ ১৬৪/৫ (২০), পৃথ্বী ০, ধাওয়ান ৪৬, স্যামসন ২৭, সুরিয়া ৫০, হার্দিক ১০, ইশান ২০*, ক্রুনাল ৩*; চামিরা ৪-০-২৪-২, করুণারত্নে ৪-০-৩৪-১, হাসারাঙ্গা ৪-০-২৮-২

শ্রীলঙ্কাঃ ১২৬/১০ (১৮.৩), ফার্নান্দো ২৬, ভানুকা ১০, ধনঞ্জয়া ৯, আসালঙ্কা ৪৪, বান্দারা ৯, শানাকা ১৬, হাসারাঙ্গা ০, করুণারত্নে ৩, উদানা ১, চামিরা ১, আকিলা ১*; ভুবনেশ্বর ৩.৩-০-২২-৪, দীপক ৩-০-২৪-২, ক্রুনাল ২-০-১৬-১, বরুণ ৪-০-২৮-১, চাহাল ৪-০-১৯-১, হার্দিক ২-০-১৭-১

ফলাফলঃ ভারত ৩৮ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ ভুবনেশ্বর কুমার (ভারত)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সিরিজ সেরা হওয়া সৌম্যের ভালো লাগা অনুভূতি

Read Next

ইনজুরিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতীয় স্কোয়াডে রদবদল

Total
1
Share