অর্জনের খাতা ভারী করতে শেষ ওয়ানডেতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

অর্জনের খাতা ভারী করতে শেষ ওয়ানডেতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ নিশ্চিত হয়েছে আগেই। তবে আজ (২০ জুলাই) জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচটি নানাদিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের জন্য। ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগের অংশ বলে এ ম্যাচ থেকে পাওয়া ১০ পয়েন্ট অর্জন করা হবে দারুণ কিছু।

ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগের ১১ ম্যাচে বাংলাদেশের পয়েন্ট এখন ৭০। টাইগারদের উপরে আছে কেবল ইংল্যান্ড, তাদের পয়েন্ট ১৫ ম্যাচে ৯৫। আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ জিতলে ব্যবধানটা কমবে ইংল্যান্ড ও নিচের দিকে থাকা বাকিদের সাথেও।

আজ স্বাগতিকদের হারাতে পারলে আরও একটি অর্জনের মুকুটে পালক যোগ করবে টাইগাররা। কেনিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর বিদেশের মাটিতে তৃতীয় কোনো দলকে হোয়াইট ওয়াশের স্বাদ দিতে পারবে বাংলাদেশ। সর্বশেষ ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজেকে তাদের মাটিতে হোয়াইট ওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ। বাকি একটি হোয়াইট ওয়াশ কেনিয়াকে, ২০০৬ সালে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫০তম জয়ের হাতছানিও দিচ্ছে টাইগারদের। আজ জিতলে ৭৮ ম্যাচে ৫০ জয় নিশ্চিত হবে, এই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে টানা জয়ের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে ১৯ এ।

বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টায় হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে ম্যাচটি মাঠে গড়াবে। প্রথম দুই ম্যাচে একই একাদশ নিয়ে খেলা বাংলাদেশ দুই একটা পরিবর্তন আনতে পারে। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত কিংবা মোহাম্মদ মিঠুনের পরিবর্তে ২০১৮ সালের পর জাতীয় দলের জার্সিতে দেখা যেতে পারে নুরুল হাসান সোহানকে।

চোট কাটিয়ে ফেরা বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের একাদশে থাকার সম্ভাবনাও প্রবল। সে ক্ষেত্রে তার জন্য জায়গা ছাড়তে হতে পারে দ্বিতীয় ওয়ানডেতেই ক্যারিয়ার সেরা বোলিং (৪৬ রানে ৪ উইকেট) করা শরিফুল ইসলামকে। কিংবা বিশ্রাম দিতে একাদশের বাইরে রাখা হতে পারে তাসকিন আহমেদকে।

তামিমের সাথে ওপেনিংয়ে লিটনের পরিবর্তে নাইম শেখও সুযোগ পেতে পারেন। লিটন চলে যেতে পারেন মিডল অর্ডারে। আগের ম্যাচে আঙুলে চোট পাওয়া মেহেদী হাসান মিরাজও মিস করতে পারেন এই ম্যাচ।

প্রতিপক্ষে জিম্বাবুয়ে, তার উপর ১ ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত হওয়া। তবে এতেও কাজ শেষ ভাবছেনা টাইগার ক্রিকেটাররা, ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগ বলে হাঁটুর চোট ঝুঁকি নিয়েও খেলছেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। বাকিরাও নিংড়ে দিচ্ছেন সবটুকু।

অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন যেমন গতকাল (১৯ জুলাই) বললেন, ‘প্রত্যেক ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। অধিনায়ক তামিম ইকবাল ভাই চোট নিয়ে এই সিরিজ খেলছে কারণ সুপার লিগে পয়েন্টের ব্যাপার আছে। প্রত্যেক খেলোয়াড়ই এটা মাথায় রেখে গুরুত্ব সহকারে খেলছে।’

সিরিজ ৩-০ ব্যবধান হতে পারে বলে আশাবাদী সাইফউদ্দিন আরও যোগ করেন, ‘জিম্বাবুয়েকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই যেহেতু ঘরের মাঠে সব দলই দুর্দান্ত। এজন্য বেশি মনোযোগ রেখে খেলছি, শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করছি। প্রত্যেক সিরিজে হোয়াই টওয়াশের লক্ষ্য থাকবে। প্রসেস ঠিক থাকলে ৩-০ ব্যবধানে জিতব ইনশাআল্লাহ।’

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশঃ

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), নাইম শেখ, সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ মিঠুন/ লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত/লিটন দাস, নুরুল হাসান সোহান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ ও মুস্তাফিজুর রহমান।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শামসির স্পিন জাদুতে প্রোটিয়াদের জয়

Read Next

হার্শা ভোগলের চোখে ভারতের সর্বকালের সেরা টেস্ট একাদশ

Total
2
Share