যেভাবে বিপর্যয় কাটিয়ে দলকে জেতালেন সাকিব

যেভাবে বিপর্যয় কাটিয়ে দলকে জেতালেন সাকিব

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সাকিব আল হাসান খেললেন মহা গুরুত্বপূর্ণ এক ইনিংস। ২৪১ রানের ছোট লক্ষ্য তাড়ায় নেমেও অন্য প্রান্তে যখন আসা যাওয়ার মিছিল চলছিল তখন মাথা ঠান্ডা রেখে বের করে এনেছেন ম্যাচ। তার অপরাজিত ৯৬ রানের ইনিংসে ভর করে কঠিন হয়ে যাওয়া ম্যাচ ৩ উইকেটে জিতলো টাইগাররা। ম্যাচ শেষে সাকিব জানালেন কি পরিকল্পনায় ব্যাট করেছেন।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৪০ রান তোলে তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। তবে ১০ রানের ব্যবধানে দুই ওপেনার ও মোহাম্মদ মিঠুন বিদায় নেয়। তিন নম্বরে নামা সাকিবের সামনে তখন বড় দায়িত্ব। ব্যাট হাতে সাম্প্রতিক সময়ে বিবর্ণ সাকিব এরপর কেবল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কিছুটা সঙ্গ পেয়েছিলেন। ব্যর্থ হয় মোসাদ্দেক হোসেন ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রানেই নেই ৭ উইকেট। সেখান থেকে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে নিয়ে ৬৯ রানের অবিচ্ছেদ্য জুটিতে ৫ বল আগেই লক্ষ্যে পৌঁছে দেন দলকে। নিজে সেঞ্চুরির কাছে গিয়েও থেকেছেন অপরাজিত, ৯৬ রানের ইনিংসে দলের জয়টাই মূখ্য ছিল।

ম্যাচ শেষে সাকিব জানালেন লক্ষ্য ছিল ৪৫ ওভার পর্যন্ত টেনে নেওয়া। এরপর প্রয়োজনে ওভার প্রতি খুব বেশি রান প্রয়োজন হলেও সমস্যা হতনা বিশ্বাস ছিল টাইগার অলরাউন্ডারের। যে কারণে তাড়াহুড়ো করেননি কখনোই।

তিনি বলেন, ‘ব্যাটিংয়ের সময় একটা কথাই বলছিলাম- আমরা ব্যাটসম্যানরা ৪৫ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করলে দেখতে পারব কোথায় আছি। এরপর ১৫-২০ বা ৩০ রান ২-৩ ওভারেও করা সম্ভব এখনকার ওয়ানডে ক্রিকেটে। সবসময় টার্গেট ছিল খেলা যতটা ক্লোজ করতে পারি, তারপর জয়ের ব্যাপারে দেখব।’

‘তখনও ভাবিনি আমাদের ৬০-৭০ রান লাগে এবং সেটা দ্রুত তাড়া করতে হবে। সবসময় জানতাম, এখনকার ওয়ানডে ক্রিকেটে এই পরিস্থিতি থেকে রানটি তাড়া করা খুবই সম্ভব।’

অন্যদের আসা যাওয়া যখন সাকিবকে চিন্তিত করছে তখনই ৮ম উইকেট জুটিতে দারুণ সঙ্গ দিলেন সাইফউদ্দিন। শুধু সাকিবকে সঙ্গ দেওয়া নয়, বল-রানের ব্যবধান কমাতে নিজেও রান করেছেন। ৩৪ বলে ২৮ রানে অপরাজিত ইনিংসে সাইফউদ্দিন হাঁকিয়েছেন মাত্র একটি চার, স্ট্রাইক রোটেট করেছেন নিয়মিত।

সাইফউদ্দিনকে কৃতিত্ব দিয়ে সাকিব বলেন, ‘আজকের উইকেট একটু ভিন্ন ছিল। বল ব্যাটে আসছিল না তাই রান করার জন্য শট খেলতে হত। সেই জায়গায় অনেক মানিয়ে নিতে হয়েছে ব্যাটসম্যান হিসেবে। যেভাবে দরকার ছিল মানিয়ে নিতে পেরেছি বলে খুশি। উইকেটে সময় নিয়েছি। নিয়মিত উইকেট পড়ায় তেমন কিছু করতেও পারতাম না। সাইফউদ্দিনকে কৃতিত্ব দিতে হবে। যেভাবে ও খেলাটা শেষ করতে পেরেছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সাকিবের ব্যাটিং বীরত্বে বাংলাদেশের কষ্টার্জিত জয়

Read Next

ইংল্যান্ডের মত স্টেটমেন্ট দিয়ে রাখল ভারতও

Total
1
Share