মাহমুদউল্লাহর অবসরে মন খারাপ মুমিনুলের

টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় বলছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
Vinkmag ad

১৭ মাস পর টেস্ট দলে ফিরে খেললেন ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। এরপর ম্যাচ চলাকালীনই মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দিলেন সাদা পোশাকের ক্রিকেট থেকে বিদায়ের ঘোষণা। টাইগারদের টেস্ট কাপ্তান মুমিনুল হক বলছেন এমন খবরে তার মন খারাপ, তবে শ্রদ্ধা করছেন মাহমুদউল্লাহর সিদ্ধান্তকে। সতীর্থরা অভিষেক টেস্টের মত বিদায়ী টেস্টেও জয় উপহার দিতে চেয়েছিল এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে।

গত বছর রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে দৃষ্টিকটুভাবে আউট হয়ে বাজ ফর্মের ধারাবাহিকতা টেনে আনেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের এমন ফর্ম ভালো চোখে নেননি কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। লাল বল থেকে ছুটিতে পাঠিয়ে তাকে কেবল সাদা বলেই মনযোগী হতে বলা হয়।

টেস্ট দল থেকে বাদ পড়লেও মাহমুদউল্লাহ নিজে হাল ছাড়েননি। কঠোর পরিশ্রমে নিজেকে ঐতিহ্যবাহী এই ফরম্যাটে ফেরানোর তাড়না দেখিয়ে গেছেন। যদি কোচের গুড লিস্টে আসতে সময় লাগছিল। জিম্বাবুয়ে সফরে টেস্ট স্কোয়াডে ছিলেন না। পরে অন্তর্ভূক্ত হয়েছেন তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের চোট ভাবনায়।

তামিমে চোটে একাদশেও সুযোগ পেয়ে যান, দলকে উদ্ধার করা ১৫০ রানের হার না মানা ইনিংসও খেলে বসেন। দল জয় পায় ২২০ রানের রেকর্ড গড়া ব্যবধানে। কিন্তু সদ্য সমাপ্ত হারারে টেস্টের তৃতীয় দিনই সতীর্থদের জানান এই টেস্টের পর আর খেলবেন না সাদা পোশাকের ক্রিকেট।

এ নিয়ে গত দুইদিন জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশে টিম ম্যানেজমেন্ট, বোর্ড সভাপতি হয়ে কম জল ঘোলা হয়নি। তবে রিয়াদ নিজের সিদ্ধান্তে ছিলেন অটল। আজ শেষদিন মাঠে নামার আগে তাকে গার্ড অব অনারও দেয় সতীর্থরা।

অধিনায়ক হিসেবে সিনিয়র একজন ক্রিকেটারের এমন বিদায়ে মন খারাপ মুমিনুল হকের। তবে টাইগার কাপ্তান জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহর সিদ্ধান্ত নিয়ে কিছু বলা তার জন্য মুশকিল।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এটা উনার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। এই সম্পর্কে আমার কোনো কিছু বলা কঠিন। যার যার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত হতেই পারে।’

‘তরুণ অধিনায়ক হিসেবে এটা শোনার পর আমার খারাপ লাগার কথা। খারাপ না লাগলে অস্বাভাবিক জিনিস।’

এদিকে মাহমুদউল্লাহর অভিষেক টেস্টে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সে ম্যাচে বল হাতে ৮ উইকেট নিয়ে বড় অবদান রেখেছেন মাহমুদউল্লাহ নিজেই। এবার হারারেতে তার বিদায়ী ম্যাচও জয়ে মুড়িয়ে দিতে চেয়েছে সতীর্থরা, অধিনায়ক মুমিনুল জানালেন এমনটাই।

মুমিনুল বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি উনার (মাহমুদউল্লাহ) জন্য ডেডিকেটেড করে জিততে। শুনেছি উনি ডেব্যু টেস্ট জিতেছিলেন, লাস্ট ম্যাচও জিতলেন। আমরা চেষ্টা করেছি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

তরুণদের পারফরম্যান্সে উচ্ছ্বসিত অধিনায়ক মুমিনুল

Read Next

বিতর্কিত একাদশের ব্যাখ্যায় যা বললেন মুমিনুল

Total
1
Share