হারারেতে তাসকিন-রিয়াদের রেকর্ড গড়া জুটি

হারারেতে তাসকিন-রিয়াদের রেকর্ড গড়া জুটি
Vinkmag ad

১৭ মাস পর টেস্ট খেলতে নেমেই রেকর্ড বইয়ে নাম লিখিয়ে নিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। হারারে স্পোর্টস ক্লাবে তাসকিন আহমেদকে নিয়ে ফিরিয়ে আনলেন ২০১২ সালের খুলনা শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামের মূহুর্তকে। ৯ম উইকেট জুটিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড নতুন করে লেখালেন।

২০১২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে দলের বিপর্যয় দারুণভাবে কাটান ৮ নম্বরে নামা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও ১০ নম্বরে নামা আবুল হাসান রাজু। ১৯৩ রানে ৮ উইকেট হারানো বাংলাদেশ ৩৮৭ রান তোলে দুজনের ১৮৪ রানের জুটিতে।

যা ৯ম উইকেট জুটিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ তো বটেই, টেস্ট ইতিহাসেই ৯ম উইকেতে ৩য় সর্বোচ্চ জুটির রেকর্ড হয়ে টিকেছিল আজকের আগ পর্যন্ত। যে ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে রেকর্ড করেন আবুল হাসান। মাত্র ২য় ব্যাটসম্যান হিসেবে অভিষেকে ১০ নম্বরে নেমে সেঞ্চুরি হাঁকান। ঐ ম্যাচে অবশ্য সেঞ্চুরির আগেই থামেন মাহমুদউল্লাহ (৭৬)।

গতকাল থেকে শুরু হওয়া জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারারে টেস্টে আগে ব্যাট করা বাংলাদেশ ১৩২ রানেই হারায় ৬ উইকেট। সেখান থেকে ১৩৮ রানের জুটিতে লিটন দাসকে নিয়ে বিপর্যয় কাটান মাহমুদউল্লাহ। যদিও টেস্ট স্কোয়াডে তার জায়গাই হয়েছে নাটকীয়ভাবে।

লিটন ৯৫ রান করে ফিরে যায়, নতুন ব্যাটসম্যান মেহেদী হাসান মিরাজ আউট হন কোনো রান না করেই। ৮ উইকেতে ২৭০ বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে। তবে ১০ নম্বরে নামা তাসকিন আহমেদকে নিয়ে প্রথম দিনের বাকি অংশ অনায়েসেই কাটান মাহমুদউল্লাহ। জুটি অবিচ্ছেদ্য থাকে ২৪ রানে।

আজ দিনের শুরু থেকেই দুজনে সাবলীলভাবে খেলতে থাকেন। লাঞ্চের আগে জুটির রান ১৩৪। ততক্ষণে সেঞ্চুরি হাঁকান মাহমুদউল্লাহ, ফিফটির দেখা পান তাসকিনও।

তবে লাঞ্চের পর জুটি টেনে নেন আরও অনেক দূর, তাতেই আবুল হাসান রাজুর সাথে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ১৮৪ রানের রেকর্ড অতীত হয়ে যায়। ৭৫ রান করে তাসকিন যখন মিল্টন শুম্বার বলে বোল্ড হন ততক্ষণে জুটিতে যোগ হয়ে যায় ১৯১ রান। যা সবমিলিয়ে ৯ম উইকেটে টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। তাদের সামনে ছিল কেবল দক্ষিণ আফ্রিকার মার্ক বাউচার ও প্যাট সিমকক্সের ১৯৫ রানের জুটি।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

টেইলরের সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানকে হারাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

Read Next

মাহমুদউল্লাহ’র ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস, টাইগারদের বড় সংগ্রহ

Total
3
Share