ব্যাট হাতে টাইগারদের মলিন শুরু

ব্যাট হাতে টাইগারদের মলিন শুরু
Vinkmag ad

হারারের পেস বান্ধব উইকেটে মাত্র ২ পেসারের অদ্ভুত একাদশ নিয়ে মাঠে নামা বাংলাদেশ শুরুতেই ধাক্কা খায়। টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবুয়ে পেসার ব্লেসিং মুজারাবানির তোপে বিপাকে পড়ে। লাঞ্চের আগে ৩ উইকেটে সফরকারীদের সংগ্রহ ৭০ রান।

বাউন্স, সুইং আর দারুণ লাইন লেংথে জিম্বাবুয়ে পেসাররা শুরু থেকেই বেশ ভালো পরীক্ষা নেয় বাংলাদেশের। ৮ রানে ২ উইকেট হারানোর পর সাদমান ইসলাম-মুমিনুল হকের ব্যাটে বিপর্যয় কাটালেও জুটি লম্বা হয়নি। সাদমানের বিদায়ে লাঞ্চের আগের সেশন নিজেদের করা হয়নি বাংলাদেশের।

বাংলাদেশ একাদশ সাজিয়েছে ৭ ব্যাটসম্যান ৪ বোলার নিয়ে। যেখানে স্বীকৃত পেসার তাসকিন আহমেদ ও এবাদত হোসেন চৌধুরী। দুই স্পিনার সাকিব আল হাসান ও মেহেদি হাসান মিরাজ। এ দুজনকে নিয়ে ব্যাটিং লাইন আপ হয় ৯ জনের!

হাঁটুর চোটে তামিম ইকবালকে পাওয়া যাবেনা অনেকটা নিশ্চিতই ছিল। ফলে ওপেনিংয়ে দেখা যায় সাইফ হাসান ও সাদমান ইসলামকে। কিন্তু জুটিতে কোনো রান ওঠার আগেই বিদায় নেয় সাইফ। টেস্ট ক্রিকেটে ভালো কিছুর অপেক্ষাটা আরও বাড়লো তার।

প্রস্তুতি ম্যাচে ৬৫ রানের ইনিংস খেললেও মূল ম্যাচে টিকেছেন কেবল ৫ বল। ব্লেসিং মুজারাবানির করা ইনিংসের প্রথম ওভারের প্রথম বলেই বাউন্সারে কুপোকাত হন। মুজারাবানির ইনসুইংয়েও স্বস্তিতে ছিলেন না, অফ স্টাম্পের বাইরে পিচ হয়ে ভেতরে ঢোকা বলে বোল্ড হওয়ার আগে নামের পাশে যোগ করতে পারেননি কোনো রান।

নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে এসে তিন নম্বরে নামা নাজমুল হোসেন শান্তকেও ভুগিয়েছেন মুজারাবানি। তার বলে হাতে আঘাত পেয়ে প্রাথমিক চিকিৎসাও নিতে হয় এই বাঁহাতিকে। কিন্তু নিজের তৃতীয় ওভারে শান্তকে ক্রিজ ছাড়াই করেন মুজারাবানি। গুড লেংথের কিছুটা আড়াআড়ি ডেলিভারিতে তৃতীয় স্লিপে ডিওন মায়ের্সকে ক্যাচ দেন ২ রান করে। ৮ রানেই ২ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

এরপর মুজারাবানি, ডোনাল্ড টিরিপানো, ভিক্টর নিয়াউচি, রিচার্ড এনগারাভাদের বাউন্স, সুইং সামলে অধিনায়ক মুমিনুল হক ও সাদমান ইসলাম দলকে টেনে নেন। সময়ের সাথে সাথে রান তোলাতেও বাড়ে গতি।

দুজনের জুটিতে যোগ হয় ৬০ রান। কিন্তু রিচার্ড এনগারাভার করা ২১তম ওভারের প্রথম বলেই সাদমান বিদায় নিলে ভাঙে জুটি। অফ স্টাম্পের খানিক বাইরে গুড লেংথের বল জায়গায় দাঁড়িয়ে খোঁচা মারেন সাদমান। প্রথম স্লিপে তার সহজ ক্যাচ নিতে এতটুকুও কষ্ট হয়নি ব্রেন্ডন টেইলরের। ৬৪ বলে ৪ চারে ২৩ রান করে এই বাঁহাতির বিদায়ে শুরুর বিপর্যয় কাটিয়ে প্রথম সেশন নিজেদের করা হয়নি বাংলাদেশের।

শেষ পর্যন্ত লাঞ্চের আগে টাইগারদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৭০ রান। ৫২ বলে ৬ চারে ৩২ রানে মুমিনুল ও ১৪ বলে ১ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন মুশফিকুর রহিম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (১ম দিন লাঞ্চ বিরতি পর্যন্ত):

বাংলাদেশ ৭০/৩ (২৩), সাইফ ০, সাদমান ২৩, শান্ত ২, মুমিনুল ৩২*, মুশফিক ১*; মুজারাবানি ৫-২-৫-২, এনগারাভা ৮-৩-১৬-১।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

হারারেতে আগে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

Read Next

মিরাজের কাঁধে নিঃশ্বাস ফেলা ওকস টপকেছেন স্টোকসকে

Total
1
Share