টেস্ট ক্রিকেটই আসল মঞ্চ, বুঝে গেছেন সাইফ হাসানও

সাদমানের অদ্ভুতুড়ে ইনিংস, সাইফের ফিফটি
Vinkmag ad

সাইফ হাসানকে টেস্টের জন্যই আপাতত বিবেচনা করছে নির্বাচকরা। ইতোমধ্যে খেলেছেন ৪ টি টেস্টও। নিয়মিত একাদশে সুযোগ না পেলেও গত দেড় বছরের বেশি সময় ধরে স্কোয়াডের নিয়মিত সদস্য এই ডানহাতি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের আগে সাইফ জানালেন টেস্ট ক্রিকেটই যে স্কিল প্রদর্শনের সেরা মঞ্চ সেটা অনুধাবন করছেন।

ঘরোয়া ক্রিকেটে লংগার ভার্সনে নিজের সামর্থ্যের জানান দিয়েই জাতীয় দলে আসেন ২২ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। তবে জাতীয় দলের সুখ স্মৃতি নেই এখনো পর্যন্ত। ৭ ইনিংসে ব্যাট করে ১২ গড়ে রান করেছেন ৮৪।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৭ জুলাই থেকে শুরু হতে যাওয়া একমাত্র টেস্টের আগে গতকাল (৩ জুলাই) থেকে দুইদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ে নির্বাচিত একাদশের বিপক্ষে ব্যাট হাতে প্রস্তুতিটা বেশ ভালোই হয়েছে বাংলাদেশের। ২ উইকেটে ৩১৩ রান তুলে দিন শেষ করে। সাইফ স্বেচ্ছায় অবসরে যাওয়ার আগে খেলেছেন ৬৫ রানের টেস্টসুলভ ইনিংস।

বিসিবির পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে নিজের অনুধাবন জানিয়ে এই ডানহাতি বলেন, ‘অবশ্যই টেস্ট ক্রিকেট অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আমি মনে করি এটাই সেরা প্ল্যাটফর্ম আমাদের স্কিল দেখানোর জন্য। তো যেহেতু টেস্ট দলে আছি, নিজের শতভাগ দেওয়ার চেষ্টা করব। আর এখানে আমাদের স্কিল উন্নতি করার অনেক জায়গা আছে।’

জিম্বাবুয়ে যাওয়ার আগে বাংলাদেশ টেস্ট দল লাল বলে কোনো অনুশীলনই করতে পারেনি। দেশ ছাড়ার আগে খেলেছে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল)। টি-টোয়েন্টি খেলে হুট করেই টেস্ট খেলতে কিছুটা অস্বস্তিতেই পড়ার কথা। সাইফ অবশ্য বলছেন পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে এসব যত দ্রুত মানিয়ে নেওয়া যায়।

‘একজন পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে আমাদের এ জিনিসটা খুব তাড়াতাড়ি মানিয়ে নেয়া উচিত। আমার মনে হয়, আমরা সর্বশেষ যে টুর্নামেন্ট খেলেছি, ডিপিএল টি-টোয়েন্টি ছিল। আবার এখানে আসছি টেস্ট খেলবো।’

‘তো এটা আমাদের জন্য বড় একটা চ্যালেঞ্জ, খুব তাড়াতাড়ি মানায় নিতে হবে। কারণ সবাই সব জায়গায় যখন খেলে, এরকমই খেলে। সুতরাং মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। যত তাড়াতাড়ি মানায় নিতে পারব, তত আমাদের জন্য সহজ হবে।’

দলের সাথে সরাসরি জিম্বাবুয়েতে যোগ দিয়েছে নবনিযুক্ত ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্স। সাবেক এই দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারের কাছ থেকে অভিজ্ঞতা অর্জনে আশাবাদী সাইফ।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই আমাদের ব্যাটিং কোচ, উনার কাছ থেকে অনেক অভিজ্ঞতা নেওয়ার আছে। উনি যে দলে খেলেছেন ওখানে অনেক কিংবদন্তী খেলোয়াড় ছিল। অনেক কিছু নেওয়ার আছে। মাত্র একদিন কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। আশা করি উনার কাছ থেকে অনেক কিছু নিতে পারব।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

জিম্বাবুয়েতে যে প্রথমের দেখা পেলেন সাইফ

Read Next

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টি-টোয়েন্টিতেও হারাল দক্ষিণ আফ্রিকা

Total
11
Share