অবশেষে জয়ের দেখা পেল কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স

অবশেষে জয়ের দেখা পেল কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স

ব্যর্থতার বৃত্তে ঘুরপাক খাওয়া কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স অবশেষে জয়ের দেখা পেলো। উসমান শিনওয়ারি ও খুররাম শেহজাদের চমকপ্রদ বোলিংয়ে লাহোর কালান্দার্সকে তারা হারিয়েছে ১৮ রানে। তবে এ জয়ের পরও পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে রয়েছে সরফরাজ আহমেদের দল।

জ্যাক উইদারাল্ডের ৪৮ এবং সরফরাজ আহমেদের ক্যাপ্টেন্স নক ৩৪* রানের ইনিংসের উপর ভর করে প্রথমে ব্যাট হাতে নামা গ্ল্যাডিয়েটর্স ২০ ওভারে ১৫৮ রান করতে সক্ষম হয়। এছাড়াও আজম খান ১৮ বলে ৩৩ রানের কার্যকরী ইনিংস খেলেন।

কালান্দার্সের জেমস ফকনার একাই নেন ৩ উইকেট।

১৫৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ১৮ ওভারে ১৪০ রানে সবকয়টি হারিয়ে ফেলে কালান্দার্স। কালান্দার্সের পক্ষে টিম ডেভিড সর্বোচ্চ ৪৬ এবং হারিস রউফ ১৯ রান করেন।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার পাওয়া পাকিস্তানের বামহাতি পেসার উসমান শিনওয়ারি ৪ ওভারে দারুণ বোলিং করে ৩২ রানে নেন প্রতিপক্ষ শিবিরের ৩টি মূল্যবান উইকেট। এছাড়াও খুররাম শেহজাদ ৩টি এবং মোহাম্মদ নওয়াজ ও মোহাম্মদ হাসনাইন ২টি করে উইকেট নিয়ে দলের জয়ে অবদান রাখেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সঃ ১৫৮/৫ (২০), উইদারাল্ড ৪৮, উসমান ০, ডেলপোর্ট ১০, সরফরাজ ৩৪*, আজম ৩৩, নওয়াজ ৬, হাসান ১২* ; শাহীন শাহ আফ্রিদি ৪-০-২৮-০, ফকনার ৪-০-২৫-৩, দানিয়াল ২-০-১৯-০, রউফ ৪-০-৪৪-০, হাফিজ ২-০-১২-১, রাশিদ ৪-০-২৩-১

লাহোর কালান্দার্সঃ ১৪০/১০ (১৮), ফখর ১২, সোহেল ০, জিসান ১৬, হাফিজ ১, ডাঙ্ক ৬, ডেভিড ৪৬, রাশিদ ৮, দানিয়াল ৩, ফকনার ১২*, শাহীন শাহ আফ্রিদি ১২, রউফ ১৭; উসমান ৪-০-৩২-৩, হাসনাইন ৪-০-৪০-২, শেহজাদ ৩-০-১৪-৩, নওয়াজ ৪-০-১৬-২, হাসান ২-০-১৪-০, জহুর ১-০-২৩-০

ফলাফলঃ কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স ১৮ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ উসমান শিনওয়ারি (কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স)

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

যে কারণে বাংলাদেশে আসছেন না অজি তারকারা

Read Next

জাজাই ঝড়ে হেসেখেলে জিতল পেশোয়ার জালমি

Total
1
Share