জিতেই চলেছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব

জিতেই চলেছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের জয়রথ আটকানো যেন কঠিন কাজই হয়ে পড়েছে। ১০ ম্যাচে ৮ জয়ে আগে থেকেই শীর্ষস্থানে থাকাটা যেন আরও পোক্ত হল এনামুল হক বিজয়ের দলের। বুধবার শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের (ডিপিএল) ১০ম রাউন্ডের ম্যাচে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে তারা হারিয়েছে ৬ উইকেটে।

বৃষ্টি আইনে ম্যাচ নিষ্পত্তি হওয়া ম্যাচে আগে ব্যাট করা ব্রাদার্স ১২ ওভারে তোলে৩ উইকেটে ৭৪ রান। প্রাইম ব্যাংকের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় ১২ ওভারে ৮৪। যা তারা ১১.৪ ওভারেই টপকে যায় তামিম ইকবাল, মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাটে।

এ জয়ে ১০ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষস্থান আরও মজবুত হল প্রাইম ব্যাংকের। সমান ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ৭ম স্থানেই আছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন।

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ৯.১ ওভারে স্কোরবোর্ডে তোলে ২ উইকেটে ৪৪ রান। ওপেনার মিজানুর রহমান ১০ বলে ১৩ ও তিন নম্বরে নামা নুরুজ্জামান চয়ন ফিরেছেন ৫ রান করে। তবে তাদের এমন ধীরগতির শুরুকে আর সচল হতে দেয়নি বৃষ্টি।

প্রায় ১ ঘন্টা বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ থাকলে ম্যাচ নেমে আসে ১২ ওভারে। ফলে ফের ব্যাট করতে নেমে কেবল ১৭ বল খেলার সুযোগ পায় ব্রাদার্স। বৃষ্টির আগে ১৯ রানে অপরাজিত থাকা জুনায়েদ সিদ্দিকী বৃষ্টির পর ৭ বল খেলে করতে পেরেছেন মাত্র ৫ রান। বাঁহাতি পেসার শরিফুল ইসলামের শিকার হয়ে ফিরেছেন ২৮ বলে ২৪ রান করে।

তবে মাইশুকুর রহমান ও আলাউদ্দিন বাবুর ব্যাটে শেষ ১২ বলে ২৬ রান যোগ করে ব্রাদার্স। মুস্তাফিজুর রহমানের করা ১২তম ওভারে ৩ চার হাঁকিয়ে ১৪ রান নেন আলাউদ্দিন, ওভারে রান আসে ১৫। শেষ পর্যন্ত আলাউদ্দিন ৫ বলে ১৪ ও মাইশুকুর ১২ বলে ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ১২ ওভারে ৩ উইকেটে ব্রাদার্সের সংগ্রহ ৭৪ রান।

বৃষ্টি আইনে ১২ ওভারে তামিমদের জন্য লক্ষ্য ৮৪। সহজ লক্ষ পেয়েও ২০ রানে ২ উইকেট হারায় প্রাইম ব্যাংক। ইনিংসের প্রথম ওভারেই রনি তালুকদার (০) ও তৃতীয় ওভারে অধিনায়ক এনামুল হক বিজয়কে (৮ বলে ১৫ ) ফেরান আলাউদ্দিন বাবু।

এরপর ৪৮ রানের জুটিতে তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ মিঠুন জয়ের পথে আর কোনো অস্বস্তিতে ফেলেননি প্রাইম ব্যাংককে। যদিও দলকে ১৬ রান দূরে রেখে তামিম ফিরেছেন আলাউদ্দিনের তৃতীয় শিকার হয়ে। ২৬ বলে ৩ চার ১ ছক্কায় ২৯ রান আসে তামিমের ব্যাট থেকে।

১০ রানের ব্যবধানে রাহাতুল ফেরদৌসের বলে স্টাম্পড হন মিঠুনও। তার আগে করেছেন ২২ বলে ৪ চারে ২৮ রান। শেষ পর্যন্ত রুবেল মিয়া (৪) ও অলক কপালির (৫) ব্যাটে ৬ উইকেট ও ২ বল হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে প্রাইম ব্যাংক।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ব্রাদার্স ইউনিয়ন ৭৪/৩ (১২), মিজানুর ১৩, জুনায়েদ ২৪, নুরুজ্জামান ৫, মাইশুকুর ১৫*, বাবু ১৪*; শরিফুল ৩-০-২৪-২, নাহিদুল ২-০-৪-১,

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ৮৪/৪ (১১.৪), তামিম ২৯, রনি ০, বিজয় ১৫, মিঠুন ২৮, রুবেল ৪*, কাপালি ৫*; বাবু ৩-০-১৯-৩, রাহাতুল ২-০-১৪-১

ফলাফলঃ প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ৬ উইকেটে জয়ী (ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে)

ম্যাচসেরাঃ আলাউদ্দিন বাবু (ব্রাদার্স ইউনিয়ন)।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা

Read Next

সুপার ওভারে গড়ানো ম্যাচে জিতল মোহামেডান

Total
1
Share