চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি এককভাবে আয়োজন করতে চায় বাংলাদেশ

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি এককভাবে আয়োজন করতে চায় বাংলাদেশ

গত ১ জুন আইসিসি (দ্য ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল) ২০২৪ থেকে ২০৩১ সাল পর্যন্ত নারী, পুরুষ ও যুবা ক্রিকেটারদের আইসিসি ইভেন্টের বৃত্তান্ত প্রকাশ করেছিল। যেখানে ফেরানো হয়েছে ৮ দলের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। ২০২৫ ও ২০২৯ সালে দুই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অন্তত একটি এককভাবে আয়োজন করতে চায় বাংলাদেশ।

২০২৪-২০৩১ সাল পর্যন্ত আইসিসি ইভেন্টের সূচি প্রকাশের পর থেকে গুঞ্জন ছিল ২০২৭ সালের বিশ্বকাপ এককভাবে আয়োজন করতে চায় বাংলাদেশ। সেকারণে বিসিবির বোর্ড সভায় প্রস্তাবিত শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নির্মাণ নিয়ে আলোচনা হবে বলে শোনা গিয়েছিল।

তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবির) আজকের (১৫ জুন) বোর্ড সভা শেষে বিসিবি সভাপতি বাস্তবতা সামনে আনলেন। পুরুষদের ১৪ দলের বিশ্বকাপ ও ২০ দলের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যে অবকাঠামো দরকার তা বাংলাদেশের নেই।

বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘ওয়ার্ল্ড কাপ হোস্টের সিলেকশন প্রসেস- এখানটাই কতগুলো সমস্যা আছে। উদাহরণস্বরূপ, আইসিসির পুরুষদের ওয়ার্ল্ড কাপ যেটা- সেটাতে ১০ টা পূর্ণ সুবিধাপূর্ণ ভেন্যু দরকার। যারাই নিবে তাদের ১০ টা সমস্ত সুবিধাদি সম্বলিত ভেন্যু দরকার। এটা তো আমাদের পক্ষে সম্ভব না, এটাতো আমাদের নাই।’

‘যদি আমরা টি-টোয়েন্টিতে (পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ) যাই, তাহলে ৮ টা (ভেন্যু)। এটাও আমাদের জন্য কঠিন।’

তবে ৮ দলের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি এককভাবে আয়োজন করা সম্ভব বলছেন বিসিবি সভাপতি। এর জন্য বিড করবে বিসিবি।

‘আবার আরেকটা আছে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। আমরা এটাতে পারি, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিটা আবার আমাদের জন্য ঠিক আছে। আমরা যেটা ঠিক করেছি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিটা আমরা ইনডিভিজুয়ালি বিড করবো, আমরা চাইবো।’

এককভাবে না পারলেও যৌথভাবে পুরুষদের বিশ্বকাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করতে চায় বিসিবি। সেক্ষেত্রে এশিয়ার অন্যান্য দেশের সহযোগিতা নেবে বাংলাদেশ। তবে খুব বেশি সময় নেই বাংলাদেশের হাতে।

বিসিবি বস বলেন, ‘পুরুষদের ওয়ার্ল্ড কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ- এই দুইটিও আমরা করবো। একা পারবো না, আমরা জয়েন্টলি করব। এখন এটাতে আমাদের ইচ্ছে হল এই সাব কন্টিনেন্টে বা আমাদের এশিইয়ার এসিসি’র (এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল) আন্ডারে যারা আছে তাদের সাথে আমরা কথা বলবো, আমরা কথা বলে দেখবো। আমরা যদি একসাথে দিই, তাহলে আমাদের পাবার সম্ভাবনা অনেক বেশি। পাকিস্তান আছে, শ্রীলঙ্কা আছে, ভারত আছে। তাদের সাথে কথা বলে আমরা চূড়ান্ত করবো। আমাদের হাতে সময় খুবই কম। তাই যাই ই কথা বলি না কেনো দুই একদিনের মধ্যে সেরে ফেলতে হবে।’

আইসিসি ইভেন্ট ২০২৪-২০৩১ (পুরুষ)-

 টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ডকাপ- ২০২৪, ২০২৬, ২০২৮, ২০৩০ সালে ২০ দলের, ৫৫ ম্যাচের
 
চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি- ২০২৫, ২০২৯ সালে- ৮ দলের, ১৫ ম্যাচের
 
ক্রিকেট বিশ্বকাপ- ২০২৭, ২০৩১ সালে- ১৪ দলের, ৫৪ ম্যাচের
 
ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল- ২০২৫, ২০২৭, ২০২৯, ২০৩১ সালে

আইসিসি ইভেন্ট ২০২৪-২০৩১ (নারী)-

টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ- ২০২৪ (১০ দলের, ২৩ ম্যাচের), ২০২৬, ২০২৮, ২০৩০ সালে ১২ দলের, ৩৩ ম্যাচের
 
ক্রিকেট বিশ্বকাপ- ২০২৫ (৮ দলের, ৩১ ম্যাচের), ২০২৯ সালে ১০ দলের। ৪৮ ম্যাচের
 
টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি- ২০২৭, ২০৩১ সালে ৬ দলের, ১৬ ম্যাচের।

আইসিসি ইভেন্ট ২০২৪-২০৩১ (অনুর্ধ্ব-১৯)-

মেন্স ক্রিকেট বিশ্বকাপ- ২০২৪, ২০২৬, ২০২৮, ২০৩০ সালে
 
উইমেন্স টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ- ২০২৫, ২০২৭, ২০২৯, ২০৩১ সালে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ব্যাখ্যার কারণে আটকে থাকল ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তি

Read Next

আম্পায়ারিং ইস্যুতে কোন অভিযোগ নেই ক্লাবগুলোর

Total
14
Share