বাংলাদেশ টাইগার নামে ছায়া দল গঠন করবে বিসিবি

বাংলাদেশ টাইগার নামে ছায়া দল গঠন করবে বিসিবি

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সহ বোর্ড পরিচালকদের নিয়ে আজ ছিল বিসিবির বোর্ড সভা। সভাতে কি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি। সেখানে তিনি জানিয়েছেন বাংলাদেশ টাইগার নামে ছায়া দলের কথা।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ভাবনা কেবলই জাতীয় দল কেন্দ্রিক- এই সমালোচনা বিসিবিকে কম শুনতে হয় না। জাতীয় দলে ডাক না পাওয়া ক্রিকেটারদের নিজেদের ফিট রাখতে নিজস্ব ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হয়। এবার জাতীয় দলের আশে পাশে থাকা ক্রিকেটারদের সারাবছর ট্রেনিংয়ের মধ্যে রাখতে ব্যবস্থা নিচ্ছে বিসিবি।

ছায়া দলটি মূলত ‘এ’ দলের নতুন নামকরণই বলা যায়। বাংলাদেশ ‘এ’ দল সর্বশেষ কোনো ম্যাচ খেলেছে সাড়ে তিন বছর পেরিয়েছে।

সভা শেষে গণমাধ্যমকে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আপনারা কিছুদিন আগে হয়তো শুনেছেন, আমরা একটা ছায়া জাতীয় দলের কথা বলেছিলাম আপনাদের। সেটা আজকে বোর্ডে অ্যাপ্রুভড হল। এখানে বাংলাদেশ টাইগার নামে একটি ছায়া জাতীয় দল আমরা তৈরি করতে যাচ্ছি।’

মূলত বাংলাদেশ টাইগার দলে থাকা ক্রিকেটারদের কোচিং করাবেন স্থানীয় কোচেরা। তবে দিক নির্দেশনা ও চাহিদাপত্র আসবে টাইগারদের হেড কোচের কাছ থেকে।

বিসিবি বস বলেন, ‘এটার পেছনে ব্যাকগ্রাউন্ডটা হয়তো জানেন, তারপরেও আরেকবার বলে নিচ্ছি। প্রথম ইস্যু যেটা এসেছে ন্যাশনাল টিমে যখন কেউ ডাক পায়, তারা যদি কোন কারণে না পায়। উদাহরণস্বরুপ কখনো ইমরুল ডাক পায়নি, কখনো সৌম্য থাকে না স্কোয়াডে। ওরা নাকি প্র্যাকটিস করারও সুযোগ পায় না। আমাদের ফ্যাসিলিটি গুলো ইউজ করতে পারে না। এটা একটা বড় সমস্যা। ওদের কারও যদি কোন ঘাটতি থাকে ওরা শিখবে কোথায়? এই ইস্যুকে আমলে নিয়ে আমরা যেটা ঠিক করেছি সারা বছর আমাদের এখানে ট্রেনিং চলবে। বেসিক্যালি লোকাল কোচ দিয়ে। পরিষ্কার নির্দেশনা আসবে প্রধান কোচের কাছ থেকে।’

বাংলাদেশ টাইগার দলের প্রসেস কি হবে সেটা সম্পর্কেও ধারণা দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এখন কি হচ্ছে? আমাদের এখন যেটা হয় ধরেন ওপেনিংয়ে আমাদের একটা প্লেয়ার এখন নেই। আমরা যাকে নিয়েছি সে খেলবে না বা ইনজুরড বা কোন কারণে নেই। তখন আমরা ট্রায়াল বেসিসে ইউজ করি। আজ এক ত কাল ওকে। আমাদের যদি রেডিমেড থাকত, যে যদি দরকার হয় তাহলে ন্যাশনাল টিমে কে যাবে। পজিশন ওয়াইজ- ১ নম্বর, ২ নম্বর, ৭ নম্বর- রিকুয়ারমেন্ট বলে দিবে কোচ। আমরা ঐ অনুযায়ী আইডেন্টিফাই করব ও তাদেরকে ট্রেনিং করাব সারা বছর। যাতে করে যদি ন্যাশনাল টিমে প্রয়োজন হয় সাথে সাথে যেনো চলে যেতে পারে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালঃ ভারতের স্কোয়াড ঘোষণা

Read Next

ব্যাখ্যার কারণে আটকে থাকল ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তি

Total
275
Share