বাজে আম্পায়ারিং ইস্যুতে সময় নিতে চায় তদন্ত কমিটি

নিরুত্তাপ আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে উত্তাপ ছড়ালেন সাকিব

সাকিব আল হাসানের বিতর্কিত কান্ডের পর ফের আলোচনায় দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের বাজে আম্পায়ারিং। আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে অসাদাচরোণের পর শাস্তি পেয়েছেন সাকিব। সাথে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি আম্পায়ারিং খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটিও গঠন করেছেন। কিন্তু মাত্র ৩ দিনে এমন স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে তদন্ত শেষ করা কঠিন হতে পারে। ফলে সময় বাড়িয়ে নেওয়ার আভাস কমিটির সদস্য নাইমুর রহমান দুর্জয়ের।

দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে পক্ষপাতিত্বমূলক আম্পায়ারিং একদম নতুন কিছু নয়। প্রতি মৌসুমেই আম্পায়ারিং নিয়ে উঠে প্রশ্ন। প্রতিবারই বিসিবির তরফ থেকে দেওয়া হয় আশ্বাস। কিন্তু বছর ঘুরে আড়ালেই পড়ে যায় বিতর্কিত ইস্যুটি।

শুক্রবার আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ প্রকাশ করে সাকিব দুই দফায় মেজাজ হারান। প্রথমে লাথি দিয়ে স্টাম্প ভাঙার পর হাত দিয়ে উপড়েও ফেলেন মোহামেডান অধিনায়ক।

তাকে শাস্তি দেওয়ার পাশাপাশি আম্পায়ারিং ইস্যুতে শক্ত অবস্থানের কথা জানান বিসিবি সভাপতি। ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রো পলিস (সিসিডিএম) চেয়ারম্যান কাজী ইনাম, প্রধান ম্যাচ রেফারি রকিবুল হাসান, বিসিবি পরিচালক নাইমুর রহমান দুর্জয়, শেখ সোহেল ও বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

১৫ জুন বোর্ড সভায় তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা থাকলেও সময় বাড়িয়ে নিতে চান তদন্ত কমিটির সদস্য নাইমুর রহমান দুর্জয়।

রোববার মিরপুরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, আমরা কাজ শুরু করি। এরপর সময় লাগলে আমরা বোর্ড প্রেসিডেন্টের কাছে আরো সময় চাইতে পারি। আসলে আমাদের বোর্ড প্রেসিডেন্ট একটা গাইডলাইন দিয়েছেন। স্পেসিফিক কিছু থাকলে পরে সেই অভিযোগের ভিত্তিতে দেখতে বলা হয়েছে। আমরা কাজ শুরু করবো, এখনও কাজ শুরু করিনি। তো সেই গাইডলাইন অনুযায়ী আমরা এগোবো।’

দেশের আম্পায়ারিংয়ের মানে উন্নতির জায়গা আছেন উল্লেখ করে তিনি জানান, ‘উন্নতির কিন্তু শেষ নাই। সর্বোচ্চ জায়গায় থাকলেও উন্নতি করার সুযোগ থাকে। আম্পায়ারিংও এমন একটা জায়গা সেটা নিয়ে আমাদের উন্নতির জায়গা আছে।’

‘এখন তো ক্রিকেটের সিস্টেমেই চালু আছে যে ম্যাচ শেষে অধিনায়ক বা টিম ম্যানেজমেন্ট আম্পায়ারিংয়ের উপর রিপোর্ট দিবে। এখন হয়ত তদন্তে সেই রিপোর্টগুলো বের হয়ে আসবে। আমরা সেই রিপোর্টগুলোও খতিয়ে দেখব।’

দুর্জয় জানান চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) প্রভাবশালী ক্লাবগুলোর ম্যাচে ভালো মানের আম্পায়ার না থাকার বিষয়টিও গুরুত্ব দিবে তদন্ত কমিটি।

‘অফিসিয়ালি কাজ শুরু করবো আমরা। কাজ শুরু করলে এইরকম যত অভিযোগই আসবে সেসব নিয়ে আমরা কাজ করবো। তাছাড়া আমরা এটাও দেখব যে কারা কোন আম্পায়ারকে কোন ম্যাচে রাখছে। এটা তো যারা আম্পায়ার ঠিক করে তাদের বিষয়। আমরা সেটাও দেখব।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বাজে আম্পায়ারিংয়ের সমাধানে দুর্জয়ের ভাষ্য

Read Next

লিটনের খারাপ সময় যেন কাটছেই না…

Total
24
Share